ঢাকা, বাংলাদেশ   রোববার ০২ অক্টোবর ২০২২, ১৭ আশ্বিন ১৪২৯

শরতে অপরূপ প্রকৃতি

স্বচ্ছ নীল আকাশে সাদা মেঘের ভেলা

মোরসালিন মিজান

প্রকাশিত: ২৩:১৮, ১৭ আগস্ট ২০২২

স্বচ্ছ নীল আকাশে সাদা মেঘের ভেলা

নীল আকাশে সাদা মেঘের ভেলা

এসো গো শারদলক্ষ্মী, তোমার শুভ্র মেঘের রথে,/এসো নির্মল নীলপথে...নীর্মল নীল সেই পথটি ধরে আবারও এসেছে শরতগত মঙ্গলবার প্রিয় ঋতুর আগমন ঘটে বাংলায়আজ বৃহস্পতিবার তৃতীয় দিনএরই মাঝে রূপ বদলাতে শুরু করেছে প্রকৃতি

ষড়ঋতুর বাংলাদেশে তৃতীয় ঋতুটি শরতএর বিস্তৃতি ভাদ্র থেকে আশ্বিন পর্যন্তস্বতন্ত্র বৈশিষ্ট্যের কারণে শরত ঘিরে বাঙালীর রয়েছে বাড়তি কৌতূহলঅনেকেই আকাশের পানে ঘন ঘন তাকাচ্ছেননীল আকাশে সাদা মেঘের ওড়াওড়ি দেখছেন মুগ্ধ চোখেঅবশ্য ঢাকার আকাশ অনেক আগেই চুরি হয়ে গেছেওপরের দিকে তাকালে বাধা হয়ে দাঁড়ায় কংক্রিটের বহুতল ভবন কিংবা উড়াল সেতু

এর পরও ফাঁকফোকর দিয়ে রাজধানীবাসী শরতের নীল আকাশ দেখার চেষ্টা করছেনআরও একটু ভাল করে দেখতে চান যারা তাদের বলি, প্রেসক্লাব এলাকায় রাস্তার ধারে বেশ কটা নারিকেল গাছমাথা উঁচু করে পাশাপাশি দাঁড়িয়ে আছেআশ্চর্য নারিকেল বিথীর ওপরে যেন হেলে পড়ছে আকাশনীল আকাশে সাদা মেঘ উড়ে বেড়াচ্ছেঘুরে বেড়াচ্ছেতাকিয়ে দেখলে নাগরিক ক্লান্তি মুহূর্তেই দূর হয়ে যায়মন গুণগুণ করে গাইতে শুরু করে- আজ ধানের ক্ষেতে রৌদ্রছায়ায় লুকোচুরি খেলা রে ভাই, লুকোচুরি খেলা-/নীল আকাশে কে ভাসালে সাদা মেঘের ভেলা রে ভাই- লুকোচুরি খেলা

শরতের আরেক সৌন্দর্য কাশফুলএ সময় নদীর ধারে বিস্তৃত এলাকাজুড়ে ফুটে থাকে সাদা কাশফুলগ্রামের অপরূপ ছবি এখন ঢাকার আশপাশের এলাকাগুলোতেও দেখা যাচ্ছেকবিগুরুর বলাটি এ রকম-  আমরা বেঁধেছি কাশের গুচ্ছ, আমরা গেঁথেছি শেফালিমালা- নবীন ধানের মঞ্জরী দিয়ে সাজিয়ে এনেছি ডালা’  

কাশের মতো শিউলিও শরতের আরেক দানসেরা দানও বলা যায়কারণ প্রিয় ফুলের মিষ্টি ঘ্রাণ শরতকে ছড়িয়ে দেয়দ্রোহ ও প্রেমের কবি নজরুল কোন এক সকালের বর্ণনা দিয়ে লিখেছিলেন, শিউলিতলায় ভোরবেলায় কুসুম কুড়ায় পল্লী-বালা।/শেফালি ফুলকে ঝরে পড়ে মুখে খোঁপাতে চিবুকে আবেশ-উতলা...

শরতে শুধু প্রকৃতি নয়, মনও বদলাতে থাকেপরিবর্তিত হয়শরতের আনন্দ প্রকাশ করে রবীন্দ্রনাথ লিখেছেন, শরতে আজ কোন অতিথি এল প্রাণের দ্বারে।/আনন্দগান গা রে হৃদয়, আনন্দগান গা রে...

নজরুল শরতে হারানো প্রিয়ার শোক করেছেনলিখেছেন- শিউলি ফুলের মালা দোলে শারদ-রাতের বুকে ঐ/এমন রাতে একলা জাগি সাথে জাগার সাথী কই...একই রকম বিরহ আক্রান্ত হয়ে কবি লিখেছেন- দূর প্রবাসে প্রাণ কাঁদে আজ শরতের ভোর হাওয়ায়।/শিশির-ভেজা শিউলি ফুলের গন্ধে কেন কান্না পায়...প্রায় অভিন্ন অনুভূতির প্রকাশ ঘটিয়ে কবিগুরু লিখেছেন- আজি শরতাপনে প্রভাতস্বপনে কী জানি পরাণ কী যে চায়।/ওই শেফালির শাখে কী বলিয়া ডাকে বিহগ বিহগী কী যে গায় গো...

সব মিলিয়ে শরত অনন্যপ্রতি বছর নানা আয়োজনে এ ঋতুকে বরণ করে নেয় বাঙালীরাজধানী শহরে একাধিক উসব অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়এবারও হবে বলে জানা গেছেসবের অন্যতম আয়োজক মানজার চৌধুরী সুইট বলছেন, আমরা যথারীতি শরত উসবের প্রস্তুতি নিচ্ছিসঙ্গীত নৃত্য কবিতার ভাষায় শরত বন্দনা করা হবে

অবশ্য শরতের সবই যে উপভোগ্য, না, সে কথা বলা যাবে নাএই যেমন, নতুন ঋতুর আগমনে গরমটা আরও বেড়ে গেছেভ্যাপসা গরমসামনে হয়ত আরও বাড়বেতবে ছোটখাটো ভোগান্তি বাদ দিলে শরত অপরূপঅনন্য