ঢাকা, বাংলাদেশ   মঙ্গলবার ০৫ জুলাই ২০২২, ২১ আষাঢ় ১৪২৯

পরীক্ষামূলক

বাংলাদেশ

আশুলিয়ায় কুকুরের মাংস দিয়ে বিরিয়ানি, গ্রেফতার ১

প্রকাশিত: ২০:৪৬, ১৬ মে ২০২২

আশুলিয়ায় কুকুরের মাংস দিয়ে বিরিয়ানি, গ্রেফতার ১

নিজস্ব সংবাদদাতা, সাভার ॥ সাভারের আশুলিয়ায় কুকুরের মাংস দিয়ে বিরিয়ানি বিক্রির অভিযোগ উঠেছে আল্লাহর দান-৫ নামে এক দোকানের বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় রাজীব নামে এক ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। রবিবার রাত বারোটারদিকে আশুলিয়া থানাধীন নরসিংহপুর বাস স্ট্যান্ড সংলগ্ন ওই দোকান থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতারকৃত রাজীব বরিশালের মুলাদি থানার নুনচর গ্রামের চুন্ন হাওলাদারের ছেলে। আশুলিয়ার বিভিন্ন স্থানে তাদের আল্লাহর দান নামে সাতটি বিরিয়ানির দোকান রয়েছে। স্থানীয়রা জানান, দীর্ঘদিন ধরেই নরসিংহপুরসহ আশুলিয়ার বিভিন্ন স্থানে আল্লাহর দান বিরিয়ানি হাউসে কুকুরের মাংস দিয়ে বিরিয়ানি করা হচ্ছিল। বিষয়টি তাদের নজরে আসলে সংবাদকর্মীদের বিষয়টি জানানো হয়। পরে কয়েকজন সংবাদকর্মী ঘটনার সত্যতা যাচাইয়ে ঘটনাস্থলে গেলে হোটেল মালিক রাজিবের চাচাতো ভাই বিল্লাল সংবাদকর্মীদের উপর চড়াও হয়। বিষয়টি আশুলিয়া থানায় অবহিত করলে পুলিশ হোটেল মালিক রাজিব হাওলাদারকে আটক করে। আলমগীর হোসেন নামে এক ক্রেতা জানান, রবিবার বিরিয়ানি খাওয়ার শুরুতেই মাংসের হাড় চিকন ও কালো দেখে আমার সন্দেহ হয়। পরে তাদের কিসের মাংস জিজ্ঞেস করলে গরু বলে জানিয়ে রাগারাগি করেন। তাদের মনোভাব দেখে বিরিয়ানি না খেয়ে ১৮০ টাকা দিয়ে চলে যাই। আশুলিয়া থানার এসআই সুব্রত রায় বলেন, প্রাথমিকভাবে ঘটনাস্থল থেকে অভিযুক্তকে আটক করে থানায় আনা হয়েছে। সেই সঙ্গে মাংস জব্দ করে পরীক্ষার জন্য উপেজলা ভেটেরিনারি সার্জনের কাছে পাঠানো হয়েছে। পরীক্ষার পর বিষয়টি নিশ্চিত হওয়া যাবে। কোন অভিযোগকারী না থাকায় আমি বাদী হয়ে মামলা দিয়ে আটক রাজীবকে ৫৪ ধারায় গ্রেফতার দেখিয়ে আদালতে পাঠানো হয়। যেহেতু বিষয়টি এখনো নিশ্চিত নই। তাই পরীক্ষার ফলাফলের ভিত্তিতে পরবর্তীতে মামলা ও আইনগত প্রক্রিয়া নেয়া হবে। যদি পরীক্ষায় কুকুরের মাংস না হয়ে গরু মাংস হয় তাহলে আসামী অব্যাহতি পাবেন। উপজেলা প্রাণি সম্পদ কর্মকর্তা ডা. মো. সাজেদুল ইসলাম বলেন, আশুলিয়া থানার এক কর্মকর্তা মাংস পরীক্ষার জন্য যোগাযোগ করেছেন। আমাদের এখানে সম্ভব না হলে প্রয়োজনে ঢাকায় ল্যাবে পরীক্ষার জন্য পাঠানো হবে।