শনিবার ৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ২১ মে ২০২২ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

হাঁস খামারির হাসি বারো মাস

ময়মনসিংহের গফরগাঁও উপজেলার পাগলা থানাধীন টাঙ্গাব ইউনিয়নের ভরপুর গ্রামের দুই সহোদর অন্তর চন্দ্র বর্মণ ও সুজন চন্দ্র বর্মণের হাঁসের কোলাহলে ভোর হলো দোর খোলো বার্তা পাওয়া যায়। তিনি ৬ শতাধিক হাঁস পালন করেন। গ্রামীণ জনপদে বাড়ি বাড়ি হাঁস-মুরগি পালন অনেকটাই রেওয়াজের মতো। আজও আছে তার ধারাবাহিকতা বাংলার গ্রামাঞ্চলে। তবে দেশে পোল্ট্রি শিল্পের বিকাশে এসব লালন পালনের ধারণা পুরোটাই বদলে দেয়। ক্রমে ক্রমেই শহর থেকে বিস্তীর্ণ গ্রামীণ জনপদে কর্মঠ বেকারদের আদর্শ পেশা হয়ে দাঁড়ায়।

মুরগির তুলনায় হাঁস পালনে খরচ কম বলে হাঁসের খামার গড়তে লেগে যায় অনেকেই। খাল-বিল, নদী-নালা বেষ্টিত এলাকা বলে হাঁসের পাল জলে নেমে পড়ে জলকেলিতে। পানিতে ভেসে বেড়ানো হাঁসের এই দৃশ্য দেখে মুগ্ধ হয় অনেকেই। আর ভোরের দৃশ্য তো চোখ ফেরানো যায় না। সেই সময় সাদা ডিমের আচ্ছাদিত চারপাশের মনকে মুগ্ধ করে তোলে। এ এক অন্য রকম সৌন্দর্য, ভিন্ন রকম আনন্দ। মাঝ বেলায় রাখাল গরুর পাল লয়ে যেমন বাড়ি ফেরে, তেমনি দেখা যায় শত শত হাঁসের পাল সারি সারি বাড়ি ফিরছে কিশোর-কিশোরীর সঙ্গে। উদয়াস্তে হাঁসের পাল নদী আর খাল-বিলে শামুক আর ছোট মাছে উদর পূর্ণ করে হেলেদুলে বাড়ি ফিরছে। এতে খামারির খরচও নেই ঝামেলাও নেই।

তবে বার্ডফ্লুর মতো মহামারী অনেককেই পোল্ট্রি থেকে বিমুখ করেছে। অধিক সহজ আর রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতার কারণে গৃহস্থ থেকে বাণিজ্যিক বা পেশাদারীভাবে অনেকেই শুরু করেছেন হাঁস পালন। দেখা থেকে শেখা এভাবেই গফরগাঁও উপজেলার টাঙ্গাব ইউনিয়নের ভরপুর গ্রামের দুই সহোদর অন্তর চন্দ্র বর্মণ ও সুজন চন্দ্র বর্মণ শুরু করেন হাঁস পালন। ময়মনসিংহের ধোবাউড়া উপজেলা থেকে ২৮ টাকা দরে এক দিনের হাজার খানেক হাঁসের বাচ্চা কিনে নিয়ে আসেন এই দুই ভাই। তা থেকে বেঁচে থাকে ৯ শতাধিক হাঁসের বাচ্চা। এর মধ্যে তিন শতাধিক পুরুষ হাঁস শনাক্ত করেন দুই সহোদর। পরে সেই তিন শতাধিক পুরুষ হাঁস প্রায় দেড় লাখ টাকা বিক্রি করেন। এখন তাদের খামারে রয়েছে ৬ শতাধিক হাঁস। এ হাঁসগুলো বড় করে তুলতে খরচ হয়েছে প্রায় সাড়ে তিন লাখ টাকা। এখন খামারে ওই ৬ শতাধিক হাসের অধিকাংশই ডিম দেয়া শুরু করেছে। আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে সকল হাঁসেই ডিম দেয়া শুরু করবে। এবার অন্তত ৮ লাখ টাকার ডিম বিক্রি করতে পারবেন বলে আশা এই দুই সহোদরের।

টাঙ্গাব ইউনিয়নের ভরপুর গ্রামের ওই দুই সহোদরের হাঁসের কোলাহল দেখে টাঙ্গাব ইউনিয়নের অনেকেই উৎসাহী হয়ে শুরু করেন হাঁস পালন।

খামারি অন্তর চন্দ্র বর্মণ জানান, একটি হাঁস সাড়ে চার মাস বয়স থেকেই ডিম দেয়। একটি হাঁসী ১ বছরে ২৯০ থেকে ৩০০টি ডিম দেয়। প্রতি হালি ডিম এখন বাজারে ৪৮ থেকে ৫০ টাকায় বিক্রি হয়। তেমন নেই খাবার খরচ কিংবা রোগবালাই। তবে ডায়রিয়া বা কলেরা হাঁসের জীবননাশের অন্যতম কারণ। এ জন্য খামারিরা স্বল্প মূল্যের পশুর কলেরা নিরাময়ী ওষুধ রাখেন হাতের কাছেই। সহজেই খাবারের সঙ্গে মিশিয়ে দেয়া যায়। ফলে প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর অনেকেই আজ হাঁস পালন করে স্বাবলম্বী। উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা ডাঃ আরিফুল ইসলাম বলেন, ‘বিনা খরচে এমন উদ্যোগ মানুষের ভাগ্য বদলে সহায়ক হবে বলে আমাদের বিশ্বাস।’

শেখ আব্দুল আওয়াল

গফরগাঁও, ময়মনসিংহ

শীর্ষ সংবাদ:
প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্য নিয়ে বিভ্রান্তি ছড়াচ্ছেন বিএনপি নেতৃবৃন্দ ॥ কাদের         বৃহস্পতিবার দেশে আসবে গাফ্ফার চৌধুরীর মরদেহ         কিডনিতে ২০৬ পাথর !         কৃষক ও যুবকসহ বজ্রপাতে তিনজনের মৃত্যু         বৃত্তির ফল নিয়ে ভোগান্তিতে জবি শিক্ষার্থীরা         যে অপরাধ করবে তাকেই শাস্তি পেতে হবে ॥ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী         নিজস্ব অর্থায়নে পদ্মা সেতু নির্মাণ একটি মাইলফলক : সেতুমন্ত্রী         ইভিএম পদ্ধতির ভুল প্রমান করতে পারলে পুরস্কৃত করা হবে ॥ ইসি আহসান হাবিব         অভিবাসীদের জীবন বাঁচাতে প্রচেষ্টা বাড়াতে হবে         অস্ত্র মামলায় ছাত্রলীগ নেতা সাঈদী রিমান্ডে ॥ জোবায়েরের জামিন         ইসলাম বিদ্বেষ, নারী বিদ্বেষকে ঘুষি মেরে বক্সিং-এ বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন জারিন         স্ত্রীর কবরের পাশে চিরশায়িত হবেন আবদুল গাফ্ফার চৌধুরী         শিগগিরই সব দলের সঙ্গে সংলাপ : সিইসি         চাঁদপুরে ট্রাক-অটোরিকশা মুখোমুখি সংঘর্ষে প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগের দুই পরীক্ষার্থী নিহত         তীব্র জ্বালানি সংকটে শ্রীলঙ্কায় স্কুল ও অফিস বন্ধ         মঠবাড়িয়ায় যাত্রীবাহী বাস চাপায় মোটরসাইকেল আরোহী নিহত, আহত ২         নগর ভবনে দরপত্র জমা দেওয়ার চেষ্টা         রাজধানীর বাজারে প্রায় সব পণ্যের দাম বৃদ্ধি         শনিবার গ্যাস থাকবে না রাজধানীর যেসব এলাকায়