মঙ্গলবার ৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ১৭ মে ২০২২ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা

আক্রান্ত হওয়ার এক বছর পরও ভুগতে হয় করোনার উপসর্গে : আইইডিসিআর

আক্রান্ত হওয়ার এক বছর পরও ভুগতে হয় করোনার উপসর্গে : আইইডিসিআর

স্টাফ রিপোর্টার ॥ আক্রান্ত হয়ে সুস্থ হয়ে গেলেই করোনার ভোগান্তি শেষ হয়ে গেলো তা ভাবার কোনো কারণ নেই। সুস্থ হয়ে উঠার পরও অনেক মানুষই বিভিন্ন উপসর্গের অভিযোগ করে আসছিলেন দীর্ঘদিন যাবত। এবার গবেষণায় এর প্রমাণ দিলো সরকারের রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা ইনস্টিটিউট (আইইডিসিআর)।

প্রতিষ্ঠানটি বলছে, করোনাভাইরাসে সংক্রমণের ছয়মাস পরও ৭০ শতাংশ মানুষের শরীরে করোনা পরবর্তী নানা উপসর্গ বিদ্যমান থাকছে। যা তিন মাস পর ৭৮ শতাংশ এবং এক বছর পরও থেকে যায় ৪৫ শতাংশ মানুষের মধ্যে। আর উচ্চ রক্তচাপ ও ডায়াবেটিসসহ অসংক্রামক ব্যাধিতে আক্রান্তদের করোনা পরবর্তী উপসর্গের আশঙ্কা আরও দুই থেকে তিন গুণ পর্যন্ত বেশি থাকে।

বৃহস্পতিবার আইইডিসিআরের ওয়েবাসইটে প্রকাশিত এক গবেষণা প্রতিবেদনে বলা হয়, অনেক কোভিড-১৯ রোগী সংক্রমণ পরবর্তী সময়ে বিভিন্ন উপসর্গে ভুগে থাকেন যা বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা কর্তৃক কোভিড-১৯ পরবর্তী উপসর্গ (পোস্ট কোভিড কন্ডিশন) নামে অভিহিত করেছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়, উচ্চ রক্তচাপে আক্রান্ত রোগীদের মধ্যে নিয়মিত ওষুধ সেবনকারীদের কোভিড-১৯ পরবর্তী উপসর্গে আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কা অনিয়মিত ওষুধ সেবনকারী তুলনায় প্রায় ৯ ভাগ পর্যন্ত কমে যায়। একইভাই ডায়াবেডিস রোগীদের মধ্যে নিয়মিত ওষুধ সেবনকারী কোভিড-১৯ পরবর্তী উপসর্গে আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কায় নিয়মিত ওষুধ সেবন করেন না তাদের তুলনায় প্রায় ৭ শতাংশ পর্যন্ত কমে যায়।

গবেষণার প্রাথমিক তথ্য পর্যালোচনায় দেখা যায়, উপসর্গযুক্ত কোভিড-১৯ রোগডিদের উপসর্গ দেখা দেওয়ার ৩ মাস, ৬ মাস, ৯ মাস ও ১২ মাস অতিক্রান্ত হওয়ার পর যথাক্রমে ৭৮ শতাংশ, ৭০ শতাংশ, ৬৮ শতাংশ ও ৪৫ শতাংশের দেহে কোভিড-১৯ পরবর্তী উপসর্গ দেখা গেছে। তা যে উচ্চ রক্তচাপ ও ডায়াবেটিস রোগীদের কোভিড-১৯ পরবর্তী উপসর্গে আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কা কমাতে রেজিস্ট্রার্ড চিকিৎসকের প্রেসক্রিপশন মোতাবেক নিয়মিত ওষুধ সেবন করা জরুরি।

প্রতিবেদনে বলা হয়, চলমান গবেষণার মাধ্যমে ভবিষ্যতে কোভিড-১৯ পরবর্তী উপসর্গের ব্যাপারে আরও হালনাগাদ তথ্য পাওয়া যাবে। তবে, এটি প্রতিরোধে আইইডিসিআর সবাইকে প্রয়োজনীয় স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার পাশাপাশি পূর্ণ ডোজ কোভিড-১৯ টিকা নেওয়ার আহ্বান জানায়।

শীর্ষ সংবাদ: