শুক্রবার ১০ বৈশাখ ১৪২৮, ২৩ এপ্রিল ২০২১ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

ভাল ঘুমের জন্য

সম্প্রতি ক্লান্ত বোধ করছেন, ঘুমের ব্যাঘাত হচ্ছে, কাজ, সংসার আর সন্তানদের ঝামেলা; সব মিলিয়ে ঘুমকে কঠিন করে তুলছে। আবার অর্থনৈতিক কষ্ট, কাজ বন্ধ, বন্ধুত্বের ফাটল অথবা কোন কঠিন অসুখ ঘুমের নরম পেলবকে একেবারেই অসম্ভব করে তোলে।

হয়ত আপনি এই ফ্যাক্টরগুলো একেবারে হাতের মুঠোয় আনতে সক্ষম হবেন না। কিন্তু ঘুমের একটা পরিবেশ সৃষ্টি করুন এবং কিছু অভ্যাস গড়ে তুলুন যা কি-না আপনাকে একটা শান্ত-বিশ্রামময় ঘুম আনতে সহায়তা করবে।

ভাল ঘুমের জন্য নিচে কিছু উপায় প্রদান করা হলো-

০ প্রতিদিন একই সময় ঘুমাতে যান এবং একই সময় ঘুম থেকে উঠুন। ছুটির দিনগুলোতে ঘুমের একই রুটিন বজায় রাখুন।

০ তরল খাদ্য সন্ধ্যার পর থেকে কমিয়ে দিন। ঘুমের অন্তত ২ ঘণ্টা আগে ডিনার সেরে ফেলুন। তরল খাদ্যের আধিক্যে সারারাত আপনার ঘুম ভাঙবে এবং ঘুমের ব্যাঘাত ঘটবে।

নিকোটিন, কফি ও এ্যাকোহল সন্ধ্যা বেলাতে পরিহার করুন : এসব উত্তেজক আপনাকে জাগত রাখে। ধূমপায়ীদের প্রায়শ রাতে সিগারেট না খাওয়ার জন্য পার্শ্বপ্রক্রিয়ার জন্য ঘুমের ব্যাঘাত হয়।

০ কফি খেলেও ঘুমের ৮ ঘণ্টা আগে খেতে হবে। কারণ, কফি শরীর জমা করে রাখতে পারে না। খাওয়ার অনেকক্ষণ পর পর্যন্ত শরীর থেকে কফি নিঃসরণ হয় এবং এর প্রভাব থাকে।

প্রচলিতভাবে মনে হলেও এ্যালকোহল কিন্তু ঘুমের ব্যাঘাত ঘটায়।

প্রতিদিন অল্পবিস্তর ব্যায়াম করুন : প্রতিদিনের হাল্কা অ্যারোবিক ব্যায়াম আপনাকে একটা অচ্ছেদ্য ঘুম উপহার দিতে পারে।

সাধারণত রাতেই ঘুমান : দুপুরে ঘুম কিন্তু আপনার রাতের শান্ত বিশ্রামকে কেড়ে নিতে পারে। দুপুরের ভাতঘুম নিতে হয় তবে সেটি আধা ঘণ্টার বেশি নয়।

০ আপনি এক আরামদায়ক ম্যাট্রেস ও নরম বালিশ বেছে নিন।

যদি কেউ আপনার সাথে শোয় তবে দেখতে হবে দু’জনার জন্য পর্যাপ্ত জায়গা আছে কি-না।

*বাচ্চা বা পোষা প্রাণির জন্য একই বিছানায় ঘুম কখনওবা আপনার ঘুমের ব্যাঘাতের মূল কারণ হয়ে থাকে।

০ শুরু করুন একটা শিথিল ঘুমের রুটিন সময়। একই কথা প্রতি রাতে আপনার মনকে শোনান- এখন সব বন্ধ করে আমি ঘুমাব, এটার পূর্বপ্রস্তুতি হতে পারে একটা সুন্দর গোছল বা একটা বইপড়া বা কোন হাল্কা গান শোনা। আলোটাও হতে হবে বন্ধ কিংবা স্নিগ্ধ।

০ যখন আপনি ক্লান্ত এবং ঘুমে ভেঙে পড়ছেন তখনই আপনি আলো বন্ধ করুন এবং ঘুমাতে যান। যদি ১৫/২০ মিনিটের মধ্যে ঘুম না আসে তাহলে আবার কাজ করতে উঠে পড়ুন এবং ক্লান্ত হলে ঘুমাতে যান। ঘুম নিয়ে অযথা কোন দুশ্চিন্তা ঠিক না। ঘুমের দুশ্চিন্তা আপনাকে ঘুমাতে দেবে না।

০ ঘুমের ওষুধ শুধু শেষ অবলম্বন হিসেবে রাখুন। ডাক্তারের পরামর্শে শুধু ঘুমের ওষুধ খেতে পারেন। আস্তে আস্তে সেটাও কমিয়ে দিন। সারাদিন ঘুম ঘুম ভাব থাকলে ডাক্তারের শরণাপন্ন হোন।

ডাঃ এটিএম রফিক (উজ্জ্বল)

শিশু বিভাগ, হলি ফ্যামিলি

রেড ক্রিসেন্ট হাসপাতাল

শীর্ষ সংবাদ:
করোনা ভাইরাসে আরও ৮৮ জনের মৃত্যু, নতুন শনাক্ত ৩৬২৯         দোকান-শপিংমল খুলবে ২৫ এপ্রিল থেকে         হেফাজতের কিছু কিছু নেতা সন্ত্রাসী তাণ্ডবে বিশ্বাস করে না ॥ সেতুমন্ত্রী         আরমানিটোলার আগুনে দগ্ধ ২০ জনের শ্বাসনালী পুড়ে গেছে         কেমিক্যাল গুদামে আগুনের ঘটনায় তদন্ত কমিটি গঠন         এভারেস্টে যাওয়া পর্বতারোহীর দেহে কোভিড-১৯ শনাক্ত         ৫৪১ রানে বাংলাদেশের ইনিংস ঘোষণা         আরমানিটোলায় কেমিক্যাল গোডাউনে আগুন, মৃত্যুর সংখ্যা বেড়ে ৪         আরমানিটোলার কেমিক্যাল গোডাউনের অনুমোদন ছিল না         ভারতে গত ২৪ ঘন্টায় রেকর্ড ৩ লাখ ৩২ হাজার ৭৩০ করোনা রোগী শনাক্ত         ৮ দিনে ভার্চুয়াল আদালতে ১৫ হাজার আসামির জামিন         ভারতের একটি হাসপাতালে অগ্নিকাণ্ডে ১৩ করোনা রোগীর মৃত্যু         করোনাকালে দেশে খাদ্য সংকট হবে না ॥ কৃষিমন্ত্রী         সেই নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটকে বরিশালে বদলি         নারায়ণগঞ্জে গ্যাসের পাইপ বিস্ফোরিত হয়ে দুই পরিবারের ১১ জন দগ্ধ         রাতের আধাঁরে হালদায় অভিযান, ৫ হাজার মিটার জাল জব্দ         ঘুমধুম সীমান্তে বন্দুকযুদ্ধে মাদক কারবারি রোহিঙ্গা নিহত         টেকনাফে রোহিঙ্গার গুলিতে স্থানীয় যুবক নিহত         উখিয়ায় ইয়াবা ও জাল নোটসহ ৩ আর্মড পুলিশ আটক         দেশেই তৈরি হবে রাশিয়ার করোনার টিকা