রবিবার ২৪ শ্রাবণ ১৪২৭, ০৯ আগস্ট ২০২০ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

সবার আইডল মেসি, মেসির আইডল যিনি

সবার আইডল মেসি, মেসির আইডল যিনি

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ তুমি এখনও অনেক ছোট। ফুটবল নয় পড়া লেখা মনোযোগ দাও, আর্জেন্টিনার রিও কুয়ার্তোয় বেড়ে ওঠা শিশুকে তার বাবা এমন কথাই বলেছিলেন। যদিও সেই শিশু এখন পর্যন্ত ফুটবলেই মেতে আছেন।

রিও কুয়ার্তোর স্থানীয় একটি ক্লাবের পর রিভার প্লেটের হয়ে ফুটবল ক্যারিয়ার শুরু। ছোট থেকেই খেলার মান এতটাই চমৎকার ছিল যে আর্জেন্টাইনরা তাকে ডিয়েগো ম্যারাডোনা জুনিয়র বলেও ডাকত। বর্তমান প্রজন্মের মহাতারকা লিওনেল মেসির আগে তাকেই দ্বিতীয় ম্যারাডোনা হিসেবে দেখা হতো। তার নাম পাবলো সিজার আইমার জিওডার্নো।

১৬ বছর বয়সে রিভারের সিনিয়র পর্যায়ে খেলতে নামেন। ১৯৯৬ থেকে ২০০০ সাল পর্যন্ত দলটির হয়ে পাঁচটি শিরোপা জিতেছেন পাবলো আইমার। ৮২ ম্যাচ খেলে গোল করেছেন ২১টি। করিয়েছেন ২৮টি।

অনূর্ধ্ব ১৭ ও ২০ দলের হয়ে খেলার পর ১৯৯৯ জাতীয় দলেও অভিষেক হয় আইমারের। ম্যারাডোনার মতো ছোট পায়ে দ্রুতগতির ফুটবল জাদু দেখিয়ে ২০০১ সালে ২৪ মিলিয়ন ইউরোতে যোগ দেন ভ্যালেন্সিয়ায়।

স্প্যানিশ ক্লাবটির হয়ে পাঁচ মৌসুমে ১৬২ ম্যাচে ২৭ গোল করেন এই অ্যাটাকিং মিডফিল্ডার। দুইবার লা লিগা ও সুপার কাপের ট্রফি তুলেন। ইউরোপা লিগেরও চ্যাম্পিয়ন হন। ২০০০/০১ চ্যাম্পিয়নস লিগের ফাইনালে পেনাল্টি শুট-আউটে হারতে হয় তার দলকে।

ভ্যালেন্সিয়ার ঘরের মাঠ স্তাডিও মাসেত্তালার সবচেয়ে নির্ভরযোগ্য খেলোয়াড় হয়ে যান। এই প্লেমেকারের হাত ধরেই দীর্ঘ ৩০ বছর পর স্প্যানিশ চ্যাম্পিয়ন হবার সৌভাগ্য অর্জন করে দলটি। দলের পক্ষ থেকে দ্য উইজার্ড নামে ডাকা হতো তাকে।

প্রতিভা দেখে আর্জেন্টাইন কিংবদন্তি ম্যারাডোনা নিজেই আইমারকে নিজের উত্তরসূরির খেতাব দেন।

২০০৬ সালে রিয়াল জারাগোজায় যোগ দেন। যদিও ইনজুরির কারণে কপাল পুড়েছে তার। হাঁটুর চোটে দুই মৌসুম বেশিরভাগ সময়ই থাকতে হয়েছে সাইডলাইনে।

২০০৮ সালে পর্তুগীজ লিগে পাড়ি জমান। ২০১৩ সাল পর্যন্ত বেনফিকার হয়ে খেলেছেন। দলটির জার্সিতে দ্বিতীয় মৌসুমেই তুলেছিলেন লিগ শিরোপা। আবারও ইনজুরির হানা। এর পর মালয়েশিয়ান লিগে জহুর দারুল তজিমের সঙ্গে চুক্তি করেন। ইনজুরির কারণে সুবিধা করতে পারেননি। স্বদেশ ফিরে ২০১৫ পুরাতন দল রিভার প্লেটেও একই অবস্থায় পড়তে হয়। শেষ পর্যন্ত বুট জোড়া তুলে রাখার সিদ্ধান্ত নেন।

২০০২ ও ২০০৬ বিশ্বকাপ খেলা আইমার জাতীয় দলে ৫২ ম্যাচে অংশ নিয়েছেন। গোল তুলেছেন ৫২টি। ২০০৯ সালে ৩০ বছর বয়সী আইমার আর্জেন্টিনার জার্সিতে সবশেষ ম্যাচ খেলেছিলেন।

আলবেসিলেস্তেদের বর্তমান অধিনায়ক ও ছয়বারের ব্যালন ডিঅর জয়ী লিওনেল মেসি বেশ কয়েকবার বলেছেন তার আইডলের নাম। তিনি হচ্ছেন আইমার।

অবসরের পর আইমারকে মাঠে জাদু দেখানো জন্য ধন্যবাদ জানিয়েছিলেন মেসি।

সকার ট্রেনিংকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে মেসি বলেন, পাবলো আইমার সব সময়ই আমার আইডল ছিলেন। রিভার প্লেটে যখন খেলেছেন তখন থেকে আমি তাকে অনুসরণ করতাম। তার খেলার ভক্ত ছিলাম আমি।

৪০ বছর বয়সী আইমার বর্তমানে আর্জেন্টিনা অনূর্ধ্ব ১৭ দলের কোচ। তার হাত ধরে ২০১৯ সালে সাউথ আমেরিকান চ্যাম্পিয়নশিপ জিতেছে দলটি। জাতীয় দলের বর্তমান কোচ লিওনেল স্কালোনির কোচিং স্টাফের অন্যতম সদস্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন তিনি।

করোনাভাইরাস আপডেট
বিশ্বব্যাপী
বাংলাদেশ
আক্রান্ত
১৯৫৬৪৫৮৪
আক্রান্ত
২৫৫১১৩
সুস্থ
১২৫৬০২৯৬
সুস্থ
১৪৬৬০৪
শীর্ষ সংবাদ:
প্রাণ ভিক্ষা চাননি ॥ খুনীদের কাছে         রাজধানী ও আশপাশের এলাকায় কমতে শুরু করেছে পানি         রাঘব বোয়ালরা অধরাই ॥ মানব পাচার         গ্যাসক্ষেত্র কিনে নেয়ার সাহসী সিদ্ধান্ত বঙ্গবন্ধুই নিয়েছিলেন         প্রদীপের প্রাইভেট বাহিনীর তাণ্ডব ওপেন-সিক্রেট         রুশ ভ্যাকসিন আসছে আর মাত্র ৩ দিন পর         বার বার আহ্বান সত্ত্বেও করোনা টেস্টে মানুষের সাড়া মিলছে না         করোনায় আরও ৩২ জনের মৃত্যু         কাল লন্ডন-সিলেট রুটে বিমানের ফ্লাইট চালু হচ্ছে         কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের কারিকুলাম আধুনিক করতে হবে         চুয়াডাঙ্গা ও ময়মনসিংহে বাসের চাকায় পিষ্ট হয়ে ঝরল ১৩ প্রাণ         স্রোতে শিমুলিয়ার দুটি ঘাট বিলীন ॥ ফেরি চলাচলে অচলাবস্থা, দুর্ভোগ         কাঁচা চামড়া রফতানি নিয়ে দোটানায় বাণিজ্য মন্ত্রণালয়         ময়মনসিংহের মুক্তাগাছায় সড়ক দুর্ঘটনায় ৭ জনের মৃত্যু         মুজিববর্ষে বঙ্গবন্ধুর খুনীর একজনকে দেশে আনার প্রক্রিয়া চলছে ॥ পররাষ্ট্রমন্ত্রী         দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ২৬১১ জনের করোনা শনাক্ত, নতুন মৃত্যু ৩২         মির্জাপুরে দুই মোটরসাইকেল আরোহীর গলাকাটা লাশ উদ্ধার         কাল থেকে শুরু হচ্ছে একাদশে ভর্তি আবেদন         বঙ্গমাতা ছিলেন জাতির পিতার যোগ্য ও বিশ্বস্ত সহচর ॥ প্রধানমন্ত্রী         বঙ্গমাতা ছিলেন বঙ্গবন্ধুর সার্বক্ষণিক রাজনৈতিক সহযোদ্ধা॥ সেতুমন্ত্রী        
//--BID Records