শুক্রবার ১৬ আশ্বিন ১৪২৭, ০২ অক্টোবর ২০২০ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

বিদেশে ১৩৭৭ বাংলাদেশীর করোনায় মৃত্যু হয়েছে

  • মধ্যপ্রাচ্যে বেশি

জনকণ্ঠ ডেস্ক ॥ প্রবাসী বাংলাদেশী বিশ্বের প্রায় ১৬৮ দেশে অবস্থান করছেন। এসব দেশের প্রায় সবই এখন কম-বেশি করোনা আক্রান্ত। এরইমধ্যে অনেকেই আক্রান্ত হয়েছেন। সবচেয়ে বেশি সিঙ্গাপুরে। মৃত্যুও হয়েছে প্রায় এক হাজার ৩৭৭ জনের। এরমধ্যে আবার সবচেয়ে বেশি মধ্যপ্রাচ্যে। খবর বাংলানিউজের।

ব্র্যাকের তথ্য অনুযায়ী, করোনার কারণে বিদেশের মাটিতে মোট ১৯ দেশে অন্তত এক হাজার ৩৭৭ জন বাংলাদেশী প্রাণ হারিয়েছেন। এছাড়া বিভিন্ন দেশে আক্রান্ত হয়েছেন প্রায় ৭০ হাজার। জার্মান ডয়েচে ভেলে জানিয়েছে, বাংলাদেশের অধিকাংশ প্রবাসী রয়েছেন মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলোতে। সেখানকার ছয় দেশেই অন্তত ৭৫৩ বাংলাদেশীর মৃত্যু হয়েছে। এরমধ্যে আবার সৌদি আরবে মোট মৃত্যুর ২৫ ভাগই বাংলাদেশীদের। মধ্যপ্রাচ্যের এই দেশটিতে মোট সোয়া দুই লাখ মানুষ করোনায় আক্রান্ত। গত রবিবার পর্যন্ত মারা গেছেন দুই হাজার এক শ’ জন। এরমধ্যে ৫২১ জনই বাংলাদেশী। অর্থাৎ সৌদি আরবে করোনায় মৃতদের এক চতুর্থাংশই প্রবাসী বাংলাদেশী।

ব্র্যাকের তথ্য অনুযায়ী, সৌদি আরবের পর করোনায় সবচেয়ে বেশি প্রবাসী বাংলাদেশীর মৃত্যু হয়েছে সংযুক্ত আরব আমিরাতে। উপসাগরীয় দেশটিতে করোনায় মৃত্যুবরণকারী ৩২৮ জনের ১২২ জনই বাংলাদেশী নাগরিক। কুয়েতে চার হাজার বাংলাদেশী আক্রান্ত হয়েছেন। এ পর্যন্ত ৬০ জন প্রাণ হারিয়েছেন। দেশটিতে বৃহস্পতিবার পর্যন্ত মোট ৫২ হাজার ৮০০ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। মারা গেছেন ৩৮২ জন। ওমানে করোনায় এ পর্যন্ত ২০ বাংলাদেশী মারা গেছেন। কাতারে মারা গেছেন ১৮ জন। বাহরাইনে আক্রান্ত হয়েছেন এক হাজার বাংলাদেশী। এরমধ্যে মারা গেছেন নয়জন। ব্রিটেনে এ পর্যন্ত ৩০৫ জন বাংলাদেশীর মৃত্যু হয়েছে। এখন পর্যন্ত প্রবাসে সবচেয়ে বেশি ২৩ হাজার বাংলাদেশী আক্রান্ত হয়েছেন সিঙ্গাপুরে। তবে সেখানে তারা সর্বোচ্চ স্বাস্থ্যসেবা পেয়েছেন। দেশটিতে বাংলাদেশের দুইজনের প্রাণহানির খবর পাওয়া গেছে। তবে প্রায় এক হাজার আক্রান্ত হলেও মালদ্বীপে কোন বাংলাদেশীর মৃত্যু হয়নি। এ পর্যন্ত সবচেয়ে বেশি করোনা আক্রান্ত দেশ যুক্তরাষ্ট্র। সেখানে বাংলাদেশীরাও ব্যাপকভাবে আক্রান্ত হয়েছেন। মারা গেছেন ২৭২ জন। যুক্তরাষ্ট্রে ১৫ হাজারের বেশি বাংলাদেশী করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন।

করোনাভাইরাসে ইউরোপের মধ্যে প্রথম দিকে সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে ইতালি। এরমধ্যে দেশটিতে প্রায় ৩০০ বাংলাদেশী আক্রান্ত হয়েছেন। মৃত্যু হয়েছে ১৪ জনের। এছাড়া গত বুধবার পর্যন্ত কানাডায় নয়জন, সুইডেনে আটজন, ফ্রান্সে সাতজন, স্পেনে পাঁচজন বাংলাদেশীর মৃত্যু হয়েছে করোনায়। পাশাপাশি ভারত, মালদ্বীপ, পর্তুগাল, কেনিয়া, লিবিয়া, দক্ষিণ আফ্রিকা ও গাম্বিয়ায় একজন করে বাংলাদেশী মারা গেছেন বলে খবর রয়েছে। তবে করোনার আঁতুড়ঘর চীনে প্রবাসী বাংলাদেশীরা রক্ষা পেয়েছেন।

করোনাভাইরাস আপডেট
বিশ্বব্যাপী
বাংলাদেশ
আক্রান্ত
৩৪১৮৭১৫৪
আক্রান্ত
৩৬৪৯৮৭
সুস্থ
২৫৪৪৮৩৩৬
সুস্থ
২৭৭০৭৮
শীর্ষ সংবাদ:
প্রাচ্যের সঙ্গে সংযোগের আদর্শ স্থান হতে পারে দেশ         থামছেই না ধর্ষণ ॥ সামাজিক ব্যাধিতে রূপ নিয়েছে         শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ছুটি ৩১ অক্টোবর পর্যন্ত বাড়ল         দলিত তরুণীর বাড়িতে যাওয়ার পথে রাহুল-প্রিয়াঙ্কা আটক         টিআইবির প্রতিবেদন তথ্যভিত্তিক ও সঠিক নয় ॥ কাদের         ঢাকায় গৃহকর্মীকে ধর্ষণ, ছাত্রলীগ নেতা রিমান্ডে         সরবরাহ বাড়লেও পেঁয়াজের দাম কমছে না         দেশে করোনায় মৃত্যু কমেছে         এক বছরের মধ্যে সব ঝুলন্ত তার অপসারণ         মহামারীর মধ্যেই হবে একুশে গ্রন্থমেলা         বিচার বিভাগীয় তদন্ত দলের ঘটনাস্থল পরিদর্শন         ৪ অক্টোবর থেকে ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাম্পেন         মাদকাসক্ত পুলিশ ও কারবারিদের তালিকা হচ্ছে ৬৪ জেলায়         ফ্লাইটে সর্বোচ্চ ২৬০ ও মাঝারি এয়ারক্রাফটে ১৪০ যাত্রী নেয়া যাবে         এমসি কলেজে ধর্ষণ : জড়িতদের ছাড় দেয়া হবে না : পররাষ্ট্রমন্ত্রী         চিনিশিল্পকে নতুন করে সাজানোর উদ্যোগ নিয়েছে এই সরকার : শিল্পমন্ত্রী         করোনায় প্রাণ গেল বিএসএমএমইউ অধ্যাপকের         করোনায় কেউ না খেয়ে মারা না গেলেও থালায় ভাতের পরিমাণ কমে যাচ্ছে ॥ মেনন         নতুন জলাধার সৃষ্টি ও বিদ্যমানগুলোর ধারণক্ষমতা বাড়ানোর তাগিদ প্রধানমন্ত্রীর         করোনা ভাইরাসে আরও ২১ জনের মৃত্যু, নতুন শনাক্ত ১৫০৮