মঙ্গলবার ৭ আশ্বিন ১৪২৭, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২০ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

খেলাপী ঋণ কিনে নেবে সরকার

  • এজন্য ‘সরকারী সম্পদ ব্যবস্থাপনা কোম্পানি’ আইন হবে

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ দেশের ব্যাংকিং খাতকে স্বচ্ছ রাখতে আগামী অর্থবছর থেকে খেলাপী ঋণ কিনে নেবে সরকার। পরিকল্পনা অনুযায়ী, সরকার খেলাপী ঋণ কিনতে ২০২০-২১ অর্থবছরের বাজট অধিবেশনে ‘সরকারী সম্পদ ব্যবস্থাপনা কোম্পানি’ আইন প্রণয়ন করবে। এটি পাস হলে সম্পদ ব্যবস্থাপনা কোম্পানি খেলাপী ঋণ কেনার ক্ষমতা পাবে ও পরে আদালতের নির্দেশনা পাশ কাটিয়ে ব্যক্তি বা বেসরকারী বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠানের কাছে সে ঋণ বিক্রি করতে পারবে।

জানা যায়, সরকারী সম্পদ ব্যবস্থাপনা কোম্পানি ব্যাংকগুলোর সঙ্গে আলোচনার মাধ্যমে খেলাপী ঋণ অধিগ্রহণ করবে। কোম্পানি দুর্বল প্রতিষ্ঠানগুলোর ঋণ নিষ্পত্তি ও পুনর্গঠন করতে সহায়তা করবে। পরে, পুনর্গঠন করা সম্পদ ভাল দামে বিক্রি করা হবে। এতে কোন ধরনের আইনী জটিলতা ছাড়াই ব্যাংকগুলো খেলাপী ঋণ আদায় করতে পারবে ও লাভবান হবে।

অর্থ মন্ত্রণালয়ের আর্থিক বিভাগের সিনিয়র সচিব আসাদুল ইসলাম বলেন, সরকারী সম্পদ ব্যবস্থাপনা কমিটি গঠনের সম্ভাব্যতা যাচাই করে এখন আইনের খসড়া তৈরির কাজ চলছে। অনেক সময় লাগবে। আইনটি পাসের জন্য আগামী অর্থবছরের বাজেট অধিবেশনে জাতীয় সংসদে তোলা হবে।

সরকারী সম্পদ ব্যবস্থাপনা কোম্পানি গঠনের জন্য সরকার বাংলাদেশ ব্যাংক ও অর্থ মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তাদের নিয়ে পাঁচ সদস্যের একটি কমিটি গঠন করেছে। অভিজ্ঞতা অর্জন ও আরও তথ্য সংগ্রহ করতে কমিটির সদস্যরা চলতি মাসের শেষদিকে দক্ষিণ কোরিয়ার সিউলে সাতটি দেশের সরকারী সম্পদ ব্যবস্থাপনা কোম্পানির সংগঠন ইন্টারন্যাশনাল পাবলিক এমএমসি ফোরাম আয়োজিত সম্মেলনে যোগ দেবেন। ইন্টারন্যাশনাল পাবলিক এমএমসি ফোরামের সদস্যরা বাংলাদেশের সরকারী সম্পদ ব্যবস্থাপনা কমিটির সঙ্গে যৌথভাবে খেলাপী ঋণ কিনতে পারবে। এতে দেশে সরাসরি বিদেশী বিনিয়োগ বৃদ্ধি পাবে বলে আশা করছেন সংশ্লিষ্টরা।

এদিকে, চলতি বছরের আগস্টে অর্থমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠকে এশীয় উন্নয়ন ব্যাংকের প্রতিনিধিরা সম্পদ ব্যবস্থাপনা কোম্পানি গঠনে আর্থিক ও কারিগরি সহায়তা দিতে আগ্রহ দেখিয়েছেন। সংশ্লিষ্টরা জানিয়েছেন, ম্যানিলাভিত্তিক বহুমুখী ঋণদানকারী প্রতিষ্ঠান তাদের খেলাপী ঋণ আদায় পদ্ধতি বিশ্বের অনেক দেশে সম্প্রসারণ করেছে। এই পদ্ধতি ওই সব দেশের খেলাপী ঋণ আদায়ে সহায়তাও করেছে।

দেশে সরকারী সম্পদ ব্যবস্থাপনা কোম্পানি গঠনে সম্ভাব্যতা যাচাইয়ে বাংলাদেশ ব্যাংকের প্রতিবেদনের পর কমিটি গঠনের কাজ দ্রুত এগিয়ে চলেছে। এর আগে, ক্রমবর্ধমান খেলাপী ঋণ কমিয়ে আনতে চলতি বছরের ফেব্রুয়ারিতে ছয় সদস্যের একটি কমিটি গঠন করেছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক।

দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার সাতটি দেশ আর্থিক সঙ্কটের সময় হিসেবে পরিচিত ১৯৯৭ সাল থেকে ১৯৯৯ সাল পর্যন্ত কীভাবে খেলাপী ঋণ কমিয়ে এনেছিল, তা বিশ্লেষণ করে ওই কমিটি একটি সুত্র খুঁজে পেয়েছিল। ওই সাতটি দেশ হলো ভিয়েতনাম, দক্ষিণ কোরিয়া, ইন্দোনেশিয়া, মালয়েশিয়া, থাইল্যান্ড, তাইওয়ান ও ফিলিপাইন।

উদাহরণ হিসেবে বলা হয়েছে, আর্থিক সঙ্কটের সময় ইন্দোনেশিয়ার খেলাপী ঋণ ৫০ শতাংশের ওপর চলে গিয়েছিল। কিন্তু, ২০১৭ সালে দেশটির খেলাপী ঋণের পরিমাণ দাঁড়ায় ৩ শতাংশেরও নিচে।

চলতি বছরের জুন শেষে দেশের ব্যাংকিং খাতে খেলাপী ঋণের পরিমাণ দাঁড়িয়েছে ১ লাখ ১২ হাজার ৪২৫ কোটি টাকা। ছয় মাসের ব্যবধানে খেলাপী ঋণ বেড়েছে ২০ শতাংশের বেশি।

এ বিষয়ে বাংলাদেশ ব্যাংকের সাবেক ডেপুটি গবর্নর খোন্দকার ইব্রাহিম খালেদ বলেন, খেলাপী ঋণ আদায়ে সম্পদ ব্যবস্থাপনা কোম্পানি গঠনের পাশাপাশি নতুন ঋণ বিতরণের আগে পর্ষদকে আরও বেশি কঠোর হতে হবে। ঋণ বিতরণের আগে যাচাই-বাছাই না করলে কোম্পানি গঠন করেও খেলাপী ঋণ কমানো যাবে না।

সম্প্রতি অর্থমন্ত্রী বলেছেন, সরকার রাষ্ট্রীয় বাণিজ্যিক ব্যাংকগুলোতে আর মূলধন জোগান দেবে না। এখন থেকে খেলাপী ঋণ আদায় করে আর্থিক স্বাস্থ্য ভাল করতে সম্পদ ব্যবস্থাপনা কোম্পানি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে। সরকারী সম্পদ ব্যবস্থাপনা কমিটি কার্যকরভাবে কাজ করতে পারলে দেশে সেকেন্ডারি বন্ড মার্কেটের প্রয়োজন হবে।

এ বিষয়ে বাংলাদেশ ব্যাংকের নির্বাহী পরিচালক ও মুখপাত্র সিরাজুল ইসলাম বলেন, খেলাপী ঋণ আদায়ে সরকার বিভিন্ন উদ্যোগ নিয়েছে। কেন্দ্রীয় ব্যাংক ও অর্থ মন্ত্রণালয় এ বিষয়ে যৌথভাবে কাজ করছে।

করোনাভাইরাস আপডেট
বিশ্বব্যাপী
বাংলাদেশ
আক্রান্ত
৩১২৬১৮৭৩
আক্রান্ত
৩৫০৬২১
সুস্থ
২২৮৪৫৮১৬
সুস্থ
২৫৮৭১৭
শীর্ষ সংবাদ:
বাড়ছে প্রাইভেট গাড়ি ॥ যানজট নিরসনে গণপরিবহন বাড়ানোর তাগিদ         সাধারণ পরিষদের ভার্চুয়াল উদ্বোধনী অনুষ্ঠান         রাজধানী হবে যানজটমুক্ত সচল         পেঁয়াজের ভাণ্ডার ৪ জেলার ওপর বিশেষ নজর         ওয়াসায় বছরে মূল বেতন ৭০ কোটি টাকা, ওভারটাইম ৯৫ কোটি         ডিজির গাড়িচালক হয়ে স্বাস্থ্যে মালেকের পারিবারিক রাজত্ব         ধ্বংসপ্রায় কর্ণফুলী, রক্ষার উদ্যোগ নেই         দেশে করোনায় শনাক্ত সাড়ে তিন লাখ ছাড়িয়েছে         চরে বিদ্যুতের আলো         হাটহাজারী মাদ্রাসায় ছাত্র আন্দোলন দীর্ঘদিনের ক্ষোভের ফসল         বিস্ফোরণের বিষয়ে আগাম সতর্কতা জারি         নৃত্যের আড়ালে নারী পাচার করে দুবাইয়ে নির্যাতন চালানো হতো         প্রধানমন্ত্রীর ১০ বিশেষ উদ্যোগ জানবে সারাদেশ         ভিপি নুর গ্রেফতার         ‘শেখ মুজিব এ নেশন’স ফাদার’ শীর্ষক বইয়ের মোড়ক উন্মোচন         ধর্ষণ মামলার প্রতিবাদে শাহবাগে ভিপি নুরদের বিক্ষোভ         স্বাস্থ্যের সেই গাড়িচালক আব্দুল মালেক বরখাস্ত         করোনা ভাইরাস নিয়ন্ত্রণে প্রধানমন্ত্রীর দুই অনুশাসন         ডাকসু ভিপি নুরের বিরুদ্ধে ঢাবি ছাত্রীর ধর্ষণ মামলা         বিজিবির ১৯১ জনের মুক্তিযোদ্ধা গেজেট বাতিল স্থগিত