ঢাকা, বাংলাদেশ   মঙ্গলবার ২৯ নভেম্বর ২০২২, ১৫ অগ্রাহায়ণ ১৪২৯

monarchmart
monarchmart

সালাহর শুরুটাও মসৃণ ছিল না...

প্রকাশিত: ১১:৫৬, ৩০ আগস্ট ২০১৯

সালাহর শুরুটাও মসৃণ ছিল না...

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ বর্তমান বিশ্ব ফুটবলের অন্যতম সেরা তারকা মোহাম্মদ সালাহ। মিসরীয় এই ফুটবলার ক্লাব ও জাতীয় দলে ধারাবাহিকভাবে সাফল্য পাচ্ছেন। বিশেষ করে ইংলিশ জায়ান্ট লিভারপুলে দুর্দান্ত ধারাবাহিকতা ধরে রেখেছেন। কিন্তু সফল এই ফরোয়ার্ডের ক্যারিয়ারের শুরুটা মসৃণ ছিল না। পেরোতে হয়েছে অনেক কঠিন পথ। পেশাদারী ফুটবলে যুব দলের পর ২০১০ সালে দেশের ক্লাব এল মোকাওয়ালুনে অভিষেক হয় সালাহর। দুই বছর পর ২০১২ সালে ইউরোপে পাড়ি জমান। চুক্তিবদ্ধ হন সুইজারল্যান্ড ভিত্তিক ক্লাব এফসি বাসেলে। পরবর্তীতে চেলসি, ফিওরেন্টিনা, এ এস রোমা ঘুরে ২০১৭ সালে লিভারপুলে এসেছেন। এ্যানফিল্ডে এসে দলটিকে আবারও চাঙ্গা করেছেন। নিয়ে এসেছেন লাইমলাইটে। কিন্তু বাসেলে প্রথমদিনের অনুশীলন সহজ ছিল না সালাহর জন্য। সেখানে কিছুদিন যেতে না যেতে ঘাতক হিসেবে প্রমাণিত হন। এমনটিই জানিয়েছেন বাসেলের তখনকার কোচ হেইকো ভোগেল। তখন সালাহকে এক সপ্তাহ’র ট্রায়ালে পাঠিয়েছিলেন ভোগেল। কিন্তু প্রত্যাশা অনুযায়ী শুরুটা করতে পারেননি। বর্তমানে জার্মান তৃতীয় বিভাগের ক্লাব কেএফসি ইউয়েরডিজেনের কোচ ভোগেল ভেবেছিলেন, সালাহর কোন যমজ ভাইকে চুক্তিবদ্ধ করেছিলেন। যে কিনা বাজে পারফর্মেন্সের ফুটবলার। এ প্রসঙ্গে ভোগেল বলেন, আমি তাকে বলেছিলাম, শোন তুমি তোমার মতো করে অনুশীলন কর। আমরা যেভাবেই হোক আমাদের সিদ্ধান্ত নিয়ে রেখেছি। ৪৩ বছর বয়সী এই কোচ আরও বলেন, পরে সালাহ প্রথমদিনের অনুশীলন করল। সবাই দেখল ও ভাবতে লাগল, আমরা কি তার যমজ ভাইকে দলে নিয়েছি। দ্বিতীয়দিন কিছুটা ভাল ছিল, তবে প্রত্যাশা অনুযায়ী না। এরপরই এলো তৃতীয়দিন, এটা সেইদিন যেদিন সে সবকিছু ধ্বংস করে দিল। তাকে থামানো ছিল অসম্ভব। ভোগেল বলেন, এটা ছিল সত্যিই অসাধারণ। সে ছিল বেশ চটপটে ও এক কথায় বিস্ফোরক। তার পায়ে বল গেলেই সেটা গোলে পরিণত হতো। এরপরেই সবাই বুঝতে পারল আমরা কেন তাকে দলে নিয়েছি। লিভারপুলের হয়ে এখন পর্যন্ত সবধরনের প্রতিযোগিতা মিলিয়ে ১০৯ ম্যাচে ৭৪ গোল করেছেন সালাহ। তার দুর্দান্ত পারফর্মেন্সে টানা দুই মৌসুমে চ্যাম্পিয়ন্স লীগের ফাইনাল খেলেছে দ্য রেডসরা। এর মধ্যে ২০১৮-১৯ মৌসুমে চ্যাম্পিয়ন হয়েছে। মিসরের হয়েও দুর্দান্ত খেলে চলেছেন লাজুক সালাহ। গত জানুয়ারিতে টানা দ্বিতীয়বার আফ্রিকার বর্ষসেরা ফুটবলারের খেতাব জিতেছেন। সেনেগালের রাজধানী ডাকারে জমকালো অনুষ্ঠানে ২০১৮ সালের সেরা খেলোয়াড় হিসেবে ২৭ বছর বয়সী সালাহর নাম ঘোষণা করে আফ্রিকান ফুটবলের নিয়ন্ত্রক সংস্থা সিএএফ। মিসরীয় তারকার হাতে বর্ষসেরার পুরস্কার তুলে দেন লাইবেরিয়ার প্রেসিডেন্ট ও সাবেক ফুটবল সুপারস্টার জর্জ উইয়াহ। এই পুরস্কারের দৌড়ে সালাহ পেছনে ফেলেন ক্লাব সতীর্থ সেনেগালের সাদিও মানে ও আর্সেনালের গ্যাবন স্ট্রাইকার পিয়েরি এমরিক অবামেয়াংকে। ৫৬ সদস্যের আফ্রিকান সংস্থার ভোটে এই দু’জনকে হারিয়েই গত বছরও (২০১৭ সালের জন্য) গৌরবময় পুরস্কার জিতেছিলেন লিভারপুল তারকা। এ নিয়ে তৃতীয়বার মিসরীয় কোন ফুটবলার এই সম্মানজনক পুরস্কার জিতলেন। সালাহ’র দুইবারের সঙ্গে ১৯৮৩ প্রথম জিতেছিলেন মাহমুদ আল খাতিব।
monarchmart
monarchmart