রবিবার ২ কার্তিক ১৪২৮, ১৭ অক্টোবর ২০২১ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

ধেয়ে আসছে ঘূর্ণিঝড় ‘ফণি’

শাহীন রহমান ॥ দক্ষিণ বঙ্গোপসাগরে অবস্থানরত গভীর নিম্নচাপটি অবশেষে ঘূর্ণিঝড় ‘ফণিতে’ রূপ নিয়েছে। শনিবার বেলা তিনটায় এটি ঘূর্ণিঝড়ে রূপ নিয়ে উত্তরে বাংলাদেশ ও ভারতের উপকূল বরাবর অগ্রসর হচ্ছে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া অফিস। তারা জানায়, এটি বিভিন্ন উপকূল হয়ে আগামী মাসের ৫ কিংবা ৬ তারিখ ভোরে বাংলাদেশের উপকূলে আঘাত হানতে পারে। শক্তি বিচারে এটি একটি শক্তিশালী ঘূর্ণিঝড়। এ কারণে দেশের সমুদ্রবন্দরসমূহকে ২ নম্বর দূরবর্তী হুঁশিয়ারি সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে। উত্তর বঙ্গোপসাগর ও গভীর সাগরে অবস্থানরত সকল মাছ ধরার নৌকা ও ট্রলারকে পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত সাবধানে চলাচল করতে বলা হয়েছে। এদিকে আবহাওয়া অফিস জানিয়েছে ঘূর্ণিঝড় ‘ফণি’ আসছে বাংলাদেশের দেয়া নাম নিয়ে। এশিয়া প্রশান্তমহাসাগরের উপকূলীয় ৮টি দ্বীপরাষ্ট্র নিয়ে গঠিত প্যানেল এই ঘূর্ণিঝড়ের নাম ঠিক করে। সাপের ফণার নাম অনুকরণে এই ঘূর্ণিঝড়ের নাম ‘ফণি’ দেয়া হয়েছে। পরবর্তীতে যে ঘূর্ণিঝড় সৃষ্টি হবে সেটার নাম ‘ভাউ’। যা ভারতের দেয়া নাম।

আবহাওয়াবিদ আবুল কালাম মল্লিক জনকণ্ঠকে বলেন, বহু উপকূল ঘুরে এই ঘূর্ণিঝড় দেশের উপকূলে আসবে। আসার পথে মাঝখানে সময় সময় অবস্থান পরিবর্তন করতে পারে। সে সময় এটি আরও শক্তি সঞ্চয় করতে পারে। তবে তিনি জানান, সম্ভাব্য তিনটি উপকূলে এটি আঘাত হানতে পারে। এর মধ্যে রয়েছে ভারতের অন্ধ্র প্রদেশ, তামিলনাড়ু ও উড়িষ্যা উপকূল। দ্বিতীয় সম্ভাব্য আঘাত হানতে পারে বাংলাদেশের উপকূলে। এছাড়া তৃতীয় সম্ভাব্য গতিপথ আরও উত্তর-পূর্ব দিকে সরে গিয়ে মিয়ানমার উপকূলে এটি আঘাত হানতে পারে। অবশ্য এর মেজর গতিপথ বাংলাদেশের উপকূলের দিকে। তবে শ্রীলঙ্কার উপকূলে এর প্রভাবে ঝড়োহাওয়া সৃষ্টি হলেও শ্রীলঙ্কায় আঘাত হানছে না।

তিনি বলেন, শনিবার বেলা তিনটায় ঘূর্ণিঝড়ে রূপ নিয়েছে গভীর নিম্নচাপটি। এটি এখন উত্তরে অগ্রসর হচ্ছে। এটি আরও সামনে অগ্রসর হয়ে শ্রীলঙ্কার উত্তর- পূর্বাঞ্চল হয়ে তামিলনাড়ু ও অন্ধ্র প্রদেশের উপকূলে অবস্থান করবে। এরপর সেখান থেকে তার গতিপথ হবে ভারতের উড়িষ্যা উপকূল হয়ে বাংলাদেশের উপকূলের দিকে। তিনি জানান, শ্রীলঙ্কার উত্তর-পূর্ব উপকূল দিয়ে আসার সময় দেশটিতে ঝড়োহাওয়া বয়ে যেতে পারে। তবে ওই উপকূলে এটি আঘাত হানবে না। শক্তি বিচারে এটি শক্তিশালী ঘূর্ণিঝড় মনে হচ্ছে।

আবহাওয়া অফিস জানায়, ঘূর্ণিঝড়টি দীর্ঘসময় ধরে সমুদ্রে অবস্থান করবে। এই অবস্থানকালে আরও শক্তি সঞ্চয় করতে পারে। এ কারণে দেশের উপকূলে আগামী ৫ অথবা ৬ তারিখ ভোরে আঘাত হানতে পারে। আবার দেশের উপকূল অতিক্রম করে মিয়ানমারে চলে যেতে পারে। তবে গতিপথ যেদিকই হোক না কেন বাংলাদেশের উপকূলে এর প্রভাব পড়ছে, এটা নিশ্চিত।

শীর্ষ সংবাদ:
দাঙ্গা বাঁধানোই ছিল কুমিল্লার ঘটনার উদ্দেশ্য ॥ স্থানীয় সরকারমন্ত্রী         ‘কুমিল্লার ঘটনায় জড়িতদের শিগগিরই গ্রেফতার করা হবে’         মধুর ক্যান্টিনে মুখোমুখি ছাত্রলীগ-ছাত্রদল, ক্যাম্পাসে উত্তেজনা         রাশিয়ার ইয়েকাতেরিনবুর্গে ভেজাল মদের বিষক্রিয়ায় ১৮ জনের মৃত্যু         কাকরাইলে সংঘর্ষের ঘটনায় দুই মামলা ॥ আসামি ৪ হাজার         আইয়ুব বাচ্চু স্মরণে ‘আসা যাওয়া’ প্রকাশ পাচ্ছে আগামীকাল         প্রায় দুই বছর পর খুললো রাবির হল         বরিশালে তিনটি মন্দিরে ভাঙচুরের ঘটনায় মামলা         বৃষ্টি হলেও কাটেনি ভ্যাপসা গরমের অস্বস্তি         চট্রগ্রামের বায়েজিদ বোস্তামী এলাকায় বিস্ফোরণ, নিহত ১, আহত ২         প্রতীক্ষা শেষ, শ্রেণিকক্ষে ফিরলেন ঢাবি শিক্ষার্থীরা         বিশ্বব্যাপী পুরুষরা বেশি আত্মহত্যাপ্রবণ         গুচ্ছভুক্ত ২০ বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষা শুরু হয়েছে আজ         ‘করোনা মহামারী প্রেক্ষাপটে উন্নত স্যানিটেশনের গুরুত্ব বেড়েছে’         ‘বাঙালীর মুক্তিযুদ্ধের গৌরবময় ইতিহাস বিশ্ববাসীকে জানাতে হবে’         পর্যটক প্রিয় হয়ে উঠেছে সাতছড়ি জাতীয় উদ্যান         ‘দেশের ৯৯ শতাংশ মানুষ স্বাস্থ্যসম্মত স্যানিটেশনের আওতায়’         মুহিবুল্লাহ হত্যাকাণ্ডে জড়িত আত্মগোপনে থাকা রোহিঙ্গা ক্যাডার গ্রেফতার         নাসার মাহকাশযান সৌরজগৎ তৈরির রহস্য উম্মোচনে পরীক্ষা চালাচ্ছে         রাঙ্গামাটিতে আওয়ামী লীগ নেতা ও চেয়ারম্যান প্রার্থীকে গুলি করে হত্যা