ঢাকা, বাংলাদেশ   রোববার ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১০ আশ্বিন ১৪২৯

ইনজুরিতে দু’জনেরই তৃতীয় ওয়ানডে খেলা অনিশ্চিত

মুশফিক-মিঠুনের বিকল্প হিসেবে ডানেডিনে মুমিনুল

প্রকাশিত: ১২:১৩, ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৯

মুশফিক-মিঠুনের বিকল্প হিসেবে ডানেডিনে মুমিনুল

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ ২০১৬-১৭ সালে নিউজিল্যান্ড সফরে গিয়ে বিভীষিকাময় পরিস্থিতিতে পড়েছিল বাংলাদেশ ক্রিকেট দল। ইনজুরির মিছিল শুরু হয়েছিল। এবারও সফরে যাওয়ার আগেই ইনজুরির কারণে ছিটকে গেছেন সাকিব আল হাসান ও তাসকিন আহমেদ। এবার সেই তালিকায় যোগ হয়েছেন মিডলঅর্ডারের ভরসা মুশফিকুর রহীম ও টানা দুটি অর্ধশতক হাঁকানো মোহাম্মদ মিঠুন। প্রস্তুতি ম্যাচে পাঁজরে আঘাত পাওয়া মুশফিক দ্বিতীয় ওয়ানডের পর থেকেই ব্যথায় ভুগছেন। আর মিঠুন দ্বিতীয় ওয়ানডেতে ব্যাটিংয়ের সময়ই হ্যামস্ট্রিংয়ের ইনজুরিতে পড়েন। ফলে মুশফিক-মিঠুনের বুধবার তৃতীয় ও শেষ ওয়ানডেতে খেলার সম্ভাবনা ক্ষীণ। তাই টেস্ট দলের অপরিহার্য সদস্য মুমিনুল হক সৌরভকে ক্রাইস্টচার্চ থেকে ডানেডিনে আনা হয়েছে। তৃতীয় ওয়ানডেতে তাই খেলতে পারেন এ বাঁহাতি টপঅর্ডার। নিউজিল্যান্ড সফরের শুরুতে একটি প্রস্তুতি ম্যাচ খেলেছিল বাংলাদেশ দল। ৫০ ওভারের সেই ম্যাচে ওয়ানডে দলের অনেকেই যেতে পারেননি বলে মুমিনুল ও সাদমান ইসলাম অনিককে আগেভাগে পাঠিয়ে দেয়া হয়েছিল। সেই প্রস্তুতি ম্যাচে মুশফিক ৬২ রানের দুর্দান্ত একটি ইনিংস খেলেছিলেন। কিন্তু বড় সমস্যা হয়েছিল পাঁজরে পাওয়া ব্যথা। সেটি একটু করে খোঁচালেও তিনি দুই ওয়ানডে খেলেছেন। তবে ক্রাইস্টচার্চে দ্বিতীয় ওয়ানডে চলার সময় আবার ব্যথায় ভুগেছেন। এ কারণেই নির্ভরযোগ্য এ ব্যাটসম্যান গত দুই ওয়ানডেতে ব্যাট হাতে সুবিধা করতে পারেননি। মাত্র ৫ ও ২৪ রান করেছে দুই ম্যাচে। বাংলাদেশ দলের অবস্থাও হয়েছে শোচনীয়। দ্বিতীয় ম্যাচেও ৫৭ রানের দুর্দান্ত ইনিংস উপহার দেন মিঠুন। প্রথম ম্যাচে ৬২ রান করেছিলেন তিনি। তিনি টানা দুই অর্ধশতক হাঁকালেও বাংলাদেশের অন্য কেউ সুবিধা করতে পারেননি। সেই মিঠুনও দ্বিতীয় ম্যাচে হ্যামস্ট্রিংয়ে টান লেগেছিল। তাই মিঠুনের না খেলাটা প্রায় নিশ্চিত। কারণ দলের ফিজিও প্রাথমিক যে ধারণা দিয়েছেন, তাতে মিঠুনের হ্যামস্ট্রিংয়ের চোটটা গ্রেড ওয়ান পর্যায়ের হতে পারে। এটি সত্য হলে মিঠুনকে কমপক্ষে ৭ দিন মাঠের বাইরে থাকতে হবে। তাই মুমিনুলকে হয়তো তার জায়গায় হলেও দেখা যেতে পারে তৃতীয় ওয়ানডেতে। আর মুশফিক সোমবার সকালে অনুশীলনে এসেছিলেন। পরে পাঁজরের ব্যথায় তা আর চালিয়ে যেতে পারেননি। তার খেলার সম্ভাবনাটাও ক্ষীণ। তবে দু’দিন সময় আছে, এর মধ্যে তিনি সুস্থ হতে পারলে খেলবেন। আর এজন্যই জরুরী তলবে মুমিনুলকে ক্রাইস্টচার্চ থেকে আনা হয়েছে ডানেডিনে। তিনি গত ৬ ফেব্রুয়ারিই গিয়েছিলেন দলের সঙ্গে। দ্বিতীয় ওয়ানডে পর্যন্ত ছিলেন দলের সঙ্গে। এরপর ক্রাইস্টচার্চেই অনুশীলন করছিলেন মারিও ভিল্লাভারায়নের সঙ্গে। এখন আবার বদলি হিসেবে ওয়ানডে খেলার প্রস্তুতি নেবেন তিনি। বিসিএল ফুটবলে ফরাশগঞ্জের বড় জয় স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ বাংলাদেশ চ্যাম্পিয়নশিপ লীগে সোমবার দুটি খেলা অনুষ্ঠিত হয়। ঢাকার কমলাপুর স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত প্রথম খেলায় ফরাশগঞ্জ স্পোর্টিং ক্লাব ৪-০ গোলে স্বাধীনতা ক্রীড়া সংঘকে হারায়। জয়ী দলের সাইফ সামশুদ হ্যাটট্রিক করেন। অপর গোলটি করেন জিল্লুর। অপর ম্যাচে ভিক্টোরিয়া স্পোর্টিং ক্লাব গোলশূন্য ড্র করে অগ্রণী ব্যাংক লিমিটেড এসসির সঙ্গে।