ঢাকা, বাংলাদেশ   বুধবার ০৭ ডিসেম্বর ২০২২, ২৩ অগ্রাহায়ণ ১৪২৯

monarchmart
monarchmart

ক্লাস ও পরীক্ষা চালুর দাবিতে হাবিপ্রবির সব ভবনে তালা

প্রকাশিত: ০৯:১৮, ৩০ জানুয়ারি ২০১৯

ক্লাস ও পরীক্ষা চালুর দাবিতে হাবিপ্রবির সব ভবনে তালা

স্টাফ রিপোর্টার, দিনাজপুর ॥ ক্লাস ও পরীক্ষা চালুর দাবিতে দিনাজপুর হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক, একাডেমিকসহ সব কার্যালয়ে তালা দিয়েছে শিক্ষার্থীরা। এতে করে বিশ্ববিদ্যালয়ের সব ধরনের কার্যক্রম বন্ধ হয়ে যাওয়ায় মুখ থুবড়ে পড়েছে। মঙ্গলবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে হাবিপ্রবি’র প্রশাসনিক ভবনে তালা দেয় শিক্ষার্থীরা। পরে তারা বিশ্ববিদ্যালয়ের একাডেমিক কার্যালয়, লাইব্রেরি, টিএসসিসহ অন্যান্য কার্যালয়েও তালা দেয়। এসময় শিক্ষার্থীরা প্রশাসনিক ভবনের সামনে বসে বিক্ষোভ করে। পরে তারা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের বাসভবনের সামনে বসে পড়েছে। তারা জানিয়েছে, দাবি আদায়ের লক্ষে তাদের শান্তিপূর্ণ কর্মসূচী চালিয়ে যাবেন। ক্লাস-পরীক্ষা বন্ধ থাকায় প্রশাসনিক কার্যক্রম বন্ধ করে দিয়েছেন এবং ক্লাস-পরীক্ষা চালু না হলে তাদের এই আন্দোলন কর্মসূচী চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন শিক্ষার্থীরা। শিক্ষার্থীরা জানায়, প্রায় আড়াই মাস ধরে শিক্ষকরা ক্লাস-পরীক্ষা বন্ধ রেখে আন্দোলন করছে। এতে করে তারা সেশনজটের মধ্যে পড়েছেন। কবে নাগাদ সঙ্কটের সমাধান হবে সেটাও অনিশ্চিত। এরই মধ্যে ২৭ জানুয়ারি থেকে ক্লাস-পরীক্ষা চালুর আশ্বাস দিলেও প্রশাসন তা করতে পারেনি। তাই সোমবার থেকে শিক্ষার্থীরা আন্দোলনে নেমেছে। এদিকে সোমবার রাত থেকে প্রায় ৪ ঘণ্টা বিশ্ববিদ্যালয়ের ১২ শিক্ষককে অবরোধ করে রেখেছিল শিক্ষার্থীরা। এর আগে ক্লাস-পরীক্ষা চালুর জন্য রবিবার রাতে উপচার্যের বাসভবনে শিক্ষকসহ উপাচার্যকে অবরুদ্ধ করে শিক্ষার্থীরা। পরে তাদের আশ্বাস দেয়া হয় সোমবার সকালের মধ্যে ক্লাস-পরীক্ষা চালু হবে। কিন্তু সোমবার সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত শিক্ষকদের সঙ্গে আলোচনা করেও সঙ্কট নিরসনে কোন সুরাহা করতে পারেনি প্রশাসন। তাই উপাচার্যের বাসভবন থেকে বিক্ষোভ মিছিল বের করে প্রশাসনিক ভবনের সামনে এসে তালা দিয়ে অবস্থান গ্রহণ করেছে শিক্ষার্থীরা। এদিকে সঙ্কট নিরসনের লক্ষে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকদের সঙ্গে দু’দফায় আলোচনা করেছে প্রশাসনের কর্মকর্তারা। তবে শেষ অবধি ক্লাস-পরীক্ষা চালুর বিষয়ে কোন সুরাহা হয়নি। জানা যায়, ১৪ নবেম্বর থেকে বেতন বৈষম্য দূরীকরণ, সহকারী অধ্যাপকদের লাঞ্ছিত ও নারী শিক্ষিকাদের শ্লীলতাহানিকারীদের বিচার, বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর, রেজিস্ট্রার ও ছাত্র উপদেষ্টার বহিষ্কার ও দুই সহকারী অধ্যাপকের বহিষ্কারাদেশ প্রত্যাহারের দাবিতে ক্লাস-পরীক্ষা বর্জন করে আন্দোলন করছেন নতুন পদোন্নতিপ্রাপ্ত সহকারী অধ্যাপকরা। তাদের সঙ্গে একাত্মতা প্রকাশ করে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রগতিশীল শিক্ষক ফোরামও। এতে করে আড়াই মাস ধরে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকরা আন্দোলনে থাকায় হাবিপ্রবি’র অধিকাংশ ক্লাস-পরীক্ষা বন্ধ রয়েছে।
monarchmart
monarchmart