মঙ্গলবার ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ০৭ ডিসেম্বর ২০২১ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

প্রতিযোগিতার মুখে রুহিতপুরী তাঁত শিল্প

  • টিকে থাকতে প্রয়োজন সরকারী সহযোগিতা

সালাহ্উদ্দিন মিয়া, কেরানীগঞ্জ ॥ রুহিতপুরী লুঙ্গি ঐতিহ্যের আদিকাল থেকে গ্রামবাংলার অবসর সময়ের আরামদায়ক পোশাক। রুহিতপুরী লুঙ্গির শুরুর কথা বলতে গেলেই কেরানীগঞ্জের রামেরকান্দা ও রুহিতপুর এলাকা থেকেই উৎপত্তি হয়েছে। ধীরে ধীরে এই লুঙ্গি এখান থেকেই ছেয়ে গেছে দোহর-নবাবগঞ্জ, নরসিংদী, বাবুর হাট, পাবনাসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে। সরকারী সুযোগ-সুবিধা তেমন না থাকায় উদ্যোক্তারাও এ তাঁত শিল্প থেকে সরে দাঁড়াচ্ছে। ফলে কেরানীগঞ্জের রুহিতপুরী লুঙ্গির তাঁত শিল্পগুলো বিলুপ্তির পথে। কেরানীগঞ্জের রামেরকান্দা-রুহিতপুর গ্রামের রুহিতপুরী লুঙ্গির তাঁতগুলোর খট খট শব্দ এক সময় আশপাশের কয়েক গ্রামে শোনা যেত। এক সময় এই অঞ্চলে প্রায় সাড়ে তিন হাজার তাঁত শিল্প ছিল। প্রায় অর্ধলক্ষাধিক নারী-পুরুষের কর্মসংস্থান ছিল। কিন্তু কালের বিবর্তনে এখানকার রুহিতপুরী লুঙ্গির তাঁত শিল্প মৃতপ্রায়। মেশিন নয়, রুহিতপুরী তাঁতের লুঙ্গি সম্পূর্ণ নিখুঁত হস্তশিল্প। প্রতিটা মানুষের নিখুঁত শ্রম, সুনিপুণ কাজ ও নানান কষ্টসহ কত ধরনের উপকরণ, সময় ও রীতিনীতি মেনেই তৈরি হচ্ছে একেকটা বাহারি, টেকসই ও মজবুত লুঙ্গি। প্রতি দেড় দিনে তৈরি হয় এক থান লুঙ্গি অর্থাৎ চারটি, যার পারিশ্রমিক আসে পাঁচশত টাকা।

বংশ পরম্পরায় পাওয়া এ তাঁত শিল্পকে কেন্দ্র করেই এই অঞ্চলে অন্য কাজ না জানা মানুষ ও কর্মহীন মানুষের বেকার সমস্যা সমাধানসহ জীবিকা নির্বাহ ও আয়ের উৎসের সুযোগ সৃষ্টির ব্যাপক সম্ভাবনা আছে। মহিলারাও সংসারের কাজের অবসরে এই তাঁতগুলোতে কাজ করে বাড়তি আয়ের সুযোগ পাবে। স্বল্পমূল্যে মানসম্মত রুহিতপুরী লুঙ্গি পাওয়া যায় বলেই দেশের সর্বত্র এর ব্যাপক চাহিদা রয়েছে। রুহিতপুরী লুঙ্গির তাঁত শিল্পের উদ্যোক্তারা এমনটাই আশা করছে, সরকার তাঁতিদের প্রয়োজনীয় পুঁজি ও সংশ্লিষ্ট জিনিসপত্র সহজ লভ্যে দিলে কেরানীগঞ্জের ঐতিহ্যবাহী রুহিতপুরী লুঙ্গির তাঁতশিল্পকে বিলুপ্তির পথ থেকে ফিরিয়ে দিতে পারে তার আদি গৌরব।

কেরানীগঞ্জের রুহিতপুর রামেকান্দা এলাকায় তাঁতি আবুল কালামের সঙ্গে এমনটাই জানা গেল, ২০-২৫ বছর যাবত তাঁত দিয়ে লুঙ্গি তৈরির কাজ করছি, মাঝে বেশ কয়েক বছর বন্ধ ছিল। তখন একেকজন একেক ধরনের কাজে চলে যাই। এখন আবার তাঁত শুরু হওয়াতে ভালই আছি। চারটা লুঙ্গিতে ২০০ টাকার মতো লাভ থাকে। এক থান লুঙ্গি বুনতে দেড় দিন লাগে। আগে ছিলাম বেকার এখন তাঁতে কাজ করে ছেলে-মেয়ের পড়ালেখার খরচ চালাচ্ছি। এক বছরে ৪০ হাজার টাকা আয় হচ্ছে।

মোঃ শরীফ বেপারী (শরীফ লুঙ্গি ও রামেরকান্দা-রুহিতপুর তাঁত শিল্পের পরিচালক) বলেন, আমরা জাতিগতভাবেই তাঁতি। পূর্ব পুরুষ থেকেই রুহিতপুরী লুঙ্গির সঙ্গে সম্পৃক্ত। এলাকার গরিব তাঁতি ও বেকারদের নিয়ে নিজ উদ্যোগে একটি কারখানা করি। রুহিতপুরী লুঙ্গির ব্যাপক চাহিদা রয়েছে। সরকার যদি তাঁতিদের সকল প্রকার সুযোগ-সুবিধা দেয় তাহলে তাঁতও বাড়বে এবং ব্যবসাও ব্যাপক আকারে করা যাবে।

মোঃ ফখরুল আশরাফ (কেরানীগঞ্জ উপজেলা সমাজ সেবা অফিসার) জনকণ্ঠকে জানান, ২০-২৫ বছর আগে থেকেই রুহিতপুর ইউনিয়নকে সারা বাংলাদেশ চেনে কারণ এখানে একটি প্রসিদ্ধ শিল্প গড়ে উঠেছে রুহিতপুরের প্লাকার্ড লুঙ্গি। এখানে যে তাঁতি সমাজটা আছে তার দীর্ঘ পরিশ্রমের মাধ্যমে খুব ভাল লুঙ্গি তৈরি করত। বাংলাদেশসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশে রফতানি করত। আজকে তাঁতিদের পুঁজির অভাবে এবং সংশ্লিষ্ট জিনিসপত্রর দাম বেড়ে যাওয়ায় অনেকেই এ শিল্প থেকে সরে গেছে। সমাজসেবা অধিদফতরের ম্যাধমেও কিছু গ্রাম কমিটি গঠন করে তাঁতিদের উজ্জীবিত করা হচ্ছে।

শীর্ষ সংবাদ:
পুষ্টিকর খাবার নিশ্চিতে প্রধানমন্ত্রীর ৫ প্রস্তাব         মুরাদ হাসানের পদত্যাগপত্র প্রধানমন্ত্রীর কাছে         ডা. মুরাদ হাসানকে জেলা কমিটির পদ থেকে বহিষ্কার         একনেক সভায় ১০ প্রকল্পের অনুমোদন         গ্রিন ফ্যাক্টরি অ্যাওয়ার্ড পাবে ৩০ শিল্প প্রতিষ্ঠান         ‘ডা. মুরাদকে জিজ্ঞাসাবাদ করবে ডিবি’         করোনা : ২৪ ঘন্টায় মৃত্যু ৫, শনাক্ত ২৯১         বাংলাদেশের সাথে বহুমুখী ‘কানেকটিভিটি’ বাড়াতে চাই         শ্যাডো ইকোনমিক সেক্রেটারি হলেন টিউলিপ সিদ্দিক         প্যান্ডোরা পেপার্সে ৮ বাংলাদেশির নাম         প্রধানমন্ত্রীর সাথে দেখা করতে চাইলেন মাহিয়া মাহি         ‘বেগম রোকেয়া পদক ২০২১’ পাচ্ছেন পাঁচ বিশিষ্ট নারী         চট্টগ্রামে নালায় পড়ে শিশু নিখোঁজ         ওমিক্রন ॥ যুক্তরাষ্ট্রের ১৬ অঙ্গরাজ্যে শনাক্ত         জবির তিন ইউনিটের মেধাতালিকা প্রকাশ         ডেঙ্গু : আরও ২ জনের মৃত্যু, হাসপাতালে ভর্তি ১১৯         প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে অপ্রতিরোধ্য গতিতে এগিয়ে চলেছে দেশ ॥ লিটন         চরফ্যাশনে দুই দিনেও উদ্ধার হয়নি ডুবে যাওয়া ট্রলাসহ ২০ জেলে         টেকনাফ-সেন্টমার্টিন রুটে জাহাজ চলাচল পুনরায় শুরু         খুলনায় বীর মুক্তিযোদ্ধার বাড়িতে ডাকাতি ॥ মামলা দয়ের