ঢাকা, বাংলাদেশ   শুক্রবার ০৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ২১ মাঘ ১৪২৯

monarchmart
monarchmart

জাতীয় ক্রিকেট লীগে নাইমের ৮, গাজীর ৫ উইকেট

প্রকাশিত: ০৭:১৬, ২৩ অক্টোবর ২০১৮

জাতীয় ক্রিকেট লীগে নাইমের ৮, গাজীর ৫ উইকেট

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ ওয়ালটন জাতীয় ক্রিকেট লীগের (এনসিএল) চতুর্থ রাউন্ডে বল হাতে দুই ভেন্যুতে ভেল্কি দেখিয়েছেন দুই অফস্পিনার। ঢাকা বিভাগের প্রথম ইনিংস ২৮৮ রানেই গুটিয়ে দিয়েছেন ৮ উইকেট নিয়ে চট্টগ্রাম বিভাগের ডানহাতি অফস্পিনার নাইম হাসান। অপরদিকে, অভিজ্ঞ ডানহাতি অফস্পিনার সোহাগ গাজী বরিশাল বিভাগের হয়ে ৫ উইকেট নিয়ে ধসিয়ে দিয়েছেন রংপুর বিভাগের ইনিংস ১৪৭ রানে। দিনশেষে বরিশাল ২ উইকেটে ৩৫ রান তুলেছে। অপর দুটি ম্যাচে, রাজশাহী বিভাগের বিপক্ষে প্রথম দিনশেষে খুলনা বিভাগ ৭ উইকেটে ২৮১ এবং ঢাকা মেট্রোপলিসের বিপক্ষে সিলেট বিভাগ ৯ উইকেটে ২৯২ রান তুলেছে। প্রথম স্তর ॥ রংপুর ক্রিকেট গার্ডেনে আগে ব্যাটিংয়ে নেমে স্বাগতিক রংপুর সোহাগ গাজীর ঘূর্ণিতে বেসামাল হয়ে পড়ে মাত্র ১৪৭ রানেই গুটিয়ে যায় প্রথম ইনিংসে। গাজী ৪০ রানে নেন ৫ উইকেট, মনির হোসেন পান ২টি। রাকিন আহমেদ ৪৬ ও নাঈম ইসলাম ৩৯ রান করেন। দিনশেষে অবশ্য ৩৫ রান তুলতেই ২ উইকেট হারিয়েছে বরিশাল। শুভাশিষ নিয়েছেন উইকেট দুটি। শেখ আবু নাসের স্টেডিয়ামে আবারও তুষার ইমরানের ব্যাটে রান। তিনি ৭১ রানে সাজঘরে ফিরলেও দিনটা খারাপ যায়নি খুলনার। এনামুল হক বিজয় ৫৬ এবং দারুণ ধারাবাহিকতা দেখিয়ে সৌম্য সরকার করেন ৯৬ বলে ৯ চার, ১ ছক্কায় ৬৬। এটি তার চলমান এনসিএলে টানা তৃতীয় অর্ধশতক। ৭ উইকেটে দিনশেষে খুলনার রান ২৮১, জিয়াউর রহমান ৩৭ রানে ব্যাট করছেন। রাজশাহীর হয়ে সানজামুল ইসলাম ৩টি ও ফরহাদ রেজা ২টি উইকেট নিয়েছেন। দ্বিতীয় স্তর ॥ কক্সবাজারে ৮২ রানের উদ্বোধনী জুটিতে শুরুটা ভালই হয়েছিল ঢাকার। এরপর সাইফ হাসান ৪১ রানে সাজঘরে ফেরার পর থেকেই আর বড় কোন জুটি হয়নি গত মার্চে টেস্ট দলে ডাক পাওয়া নাইমের ঘূর্ণি দাপটে। আগের ম্যাচে ৬ উইকেট শিকার করা এ তরুণ এবার করেছেন ক্যারিয়ারসেরা বোলিং, নিয়েছেন ১০৬ রানে ৮ উইকেট। এটি প্রথম শ্রেণীর ক্রিকেটে দেশের কোন অফস্পিনারের তৃতীয় সেরা বোলিং নৈপুণ্য। ২০০৫ সালে বরিশালের বিপক্ষে অফস্পিনে ৬৭ রানে ৮ উইকেট নিয়েছিলেন খুলনার জামাল বাবু। সেটাই এখন পর্যন্ত সেরা অফস্পিন বোলিং। দুই বছর পর বরিশালের তরিকুল খুলনার বিপক্ষে ৮ উইকেট নিয়েছিলেন ৮৮ রানে। পরে আব্দুল মজিদের ৭২, শুভাগত হোম ৫৭, নাজমুল মিলন ৩৫ ও শাহাদাত হোসেন ৩৪ রান করলে দিনশেষে ২৮৮ রানে থেমে গেছে ঢাকার ইনিংস। অপর ম্যাচে সিলেট শানাজ আহমেদের ৬০, জাকির হাসানের ৫০ ও শাহানুর রহমানের ৫৪ রানের পরও দিনশেষ করেছে ৯ উইকেটে ২৯২ রানে। ঢাকা মেট্রোর হয়ে ২টি করে উইকেট নিয়েছেন আরাফাত সানি, কাজী অনিক ও মোহাম্মদ আশরাফুল।
monarchmart
monarchmart