সোমবার ১১ আশ্বিন ১৪২৮, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

বিচারপতি জয়নুলের আগাম জামিন টিকলো না

বিচারপতি জয়নুলের আগাম জামিন টিকলো না

অনলাইন রিপোর্টার ॥ অবৈধ সম্পদ অর্জন ও দুর্নীতির অভিযোগে দুদকের অনুসন্ধানের মধ্যে আপিল বিভাগের সাবেক বিচারপতি মো. জয়নুল আবেদীনকে আগাম জামিন দিয়ে জারি করা রুল খারিজ করে দিয়েছে হাইকোর্ট।

বিচারপতি মো. নজরুল ইসলাম তালুকদার ও বিচারপতি কে এম হাফিজুল আলমের হাইকোর্ট বেঞ্চ মঙ্গলবার এ রায় দেয়।

এর ফলে বিচারপতি জয়নুল আবেদীনের আগাম জামিন বাতিল হয়েছে বলে জানিয়েছেন আইনজীবীরা।

আদালতে দুদকের পক্ষে শুনানিতে ছিলেন আইনজীবী খুরশীদ আলম খান। বিচারপতি জয়নুল আবেদীনের আইনজীবী মইনুল হোসেন। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল রোনা নাহরীন ও এ কে এম আমিন উদ্দিন মানিক। গত বছরের ১০ জুলাই রুলের উপর শুনানি শেষ হয়েছিল।

মঙ্গলবার রায়ের পর আমিন উদ্দিন মানিক সাংবাদিকদের বলেন, “নিয়মিত জামিন প্রশ্নে জারি করা রুল আদালত খারিজ করে দিয়েছেন। ফলে বিচারপতি জয়নুল আবেদীনকে দেওয়া আগাম জামিন আর থাকছে না।”

জ্ঞাত আয় বহির্ভূত সম্পদ অর্জনের অভিযোগে ২০১০ সালের ১৮ জুলাই সম্পদের হিসাব চেয়ে আপিল বিভাগের সাবেক বিচারপতি মো. জয়নুল আবেদীনকে নোটিস দেয় দুদক।

পরে দুদকের দেওয়া নোটিসের বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে ২০১০ সালের ২৫ জুলাই তিনি হাইকোর্টে একটি রিট আবেদন করেন।

রিটের ওপর শুনানি নিয়ে সে সময় বিচারপতি মো. আবদুল ওয়াহাব মিঞা ও বিচারপতি কাজী রেজা-উল হকের হাইকোর্ট বেঞ্চ বিষয়টি উত্থাপিত হয়নি বিবেচনায় খারিজ করে দেয়।

পরে ওই বছর ২৫ অক্টোবর দুদক তাকে আরও একটি নোটিস দেয়। প্রয়োজনীয় তথ্যসহ ৩ নবেম্বর তিনি ওই নোটিসের জবাব দেন।

এর সাত বছর পর গত বছরের জানুয়ারিতে সাবেক এ বিচারপতির বিরুদ্ধে বিদেশে অর্থ পাচারের অভিযোগ তুলে তার বিরুদ্ধে অনুসন্ধানে নামে দুদক। এ বিষয়ে দুদক তার ব্যাখ্যা চাইলে বিচারপতি জয়নুল ব্যাখ্যাও দেন ।

এরই মধ্যে অনুসন্ধানের কথা বলে সুপ্রিমকোর্টের কাছে সাবেক এই বিচারকের বিষয়ে কাগজপত্র চেয়ে গত বছরের ২ মার্চ চিঠি দেয় দুদক।

এর জবাবে ওই বছরের ২৮ এপ্রিল আপিল বিভাগের তখনকার অতিরিক্ত রেজিস্ট্রার অরুনাভ চক্রবর্তী স্বাক্ষরিত এক চিঠিতে বলা হয়, “সাবেক বিচারপতি জয়নুল আবেদীনের বিরুদ্ধে দুদকের কোনো ধরনের ব্যবস্থা গ্রহণ সমীচীন হবে না বলে সুপ্রিম কোর্ট মনে করে।”

কোনো বিচার বিভাগীয় কর্মকর্তার বিরুদ্ধে অসদাচরণ, দুর্নীতি বা অন্য কোনো অভিযোগ উত্থাপিত হলে, সুপ্রিমকোর্টের পরামর্শ ছাড়া তার প্রাথমিক তদন্ত বা অনুসন্ধান না করার জন্য আইন মন্ত্রণালয়সহ সংশ্লিষ্ট সকলকে নির্দেশ দেওয়া হয় সুপ্রিমকোর্টের ওই চিঠিতে।

সুপ্রিমকোর্টের এ ধরনের চিঠি নিয়ে সংসদ অধিবেশনে কড়া সমালোচনা হয়। পরে জুনে একটি দৈনিক পত্রিকায় এ বিচারপতির জ্ঞাতআয় বহির্ভূত সম্পদ অর্জনের অভিযোগ ও দুদকের অনুসন্ধান নিয়ে একটি প্রতিবেদন প্রকাশিত হলে ‘গ্রেফতার ও হয়রানির’ আশঙ্কার কথা জানিয়ে তিনি হাই কোর্টে জামিন আবেদন করেন।

গত বছরের ১০ জুলাই হাইকোর্ট তাকে এ অভিযোগের তদন্ত শেষ না হওয়া পর্যন্ত জামিন দেয় এবং নিয়মিত জামিন কেন দেওয়া হবে না তা জানতে চেয়ে রুল জারি করে। সে রুলই মঙ্গলবার খারিজ করে দিয়েছে আদালত।

শীর্ষ সংবাদ:
শেখ হাসিনা বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন বাস্তবে রূপদান করে চলেছেন         স্বাধীনতাবিরোধী শক্তি এখনও নানা ষড়যন্ত্র করছে ॥ কৃষিমন্ত্রী         সিরিজ বৈঠকের নামে ‘সিরিজ ষড়যন্ত্র’ করছে বিএনপি ॥ কাদের         কাল থেকে শাহজালালে যাত্রীদের করোনা টেস্ট শুরু         সাবেক চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে অস্তিত্বহীন প্রতিষ্ঠানে ঋণ দেয়ার অভিযোগ         খালি চোখে গ্রহাণু দেখবে ২০০ কোটি মানুষ         আফগান জঙ্গীদের বিরুদ্ধে হামলা চালাবে যুক্তরাষ্ট্র         দেড় বছর পর খুলল ঢাবি গ্রন্থাগার         পাঠ্যবইয়ে বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে তথ্যবিভ্রাট, হাইকোর্টের রুল         পর্যটক আকর্ষণে ভিসা প্রক্রিয়া সহজ করার উদ্যোগ         করোনা : গত ২৪ ঘন্টায় মৃত্যু ২১         সোমবার এসএসসি পরীক্ষার রুটিন প্রকাশ         প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিনে আবারও টিকা ক্যাম্পেইন শুরু         দূষিত সমাজ ব্যবস্থার কারণে নদী দখল হয়েছে : নৌ প্রতিমন্ত্রী         ৫ দিনে পণ্য না পেলে অভিযোগ করা যাবে ভোক্তা অধিকারে         ফাইজারের আরও ২৫ লাখ টিকা আসছে সোমবার         ২৪ ঘণ্টায় হাসপাতালে আরও ২৪২ ডেঙ্গুরোগী         ‘ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সকে ঢেলে সাজানোয় সক্ষমতা বেড়েছে’         সব ই-কমার্স বন্ধ করে দেওয়া ঠিক হবে না : বাণিজ্যমন্ত্রী         বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে ভুল তথ্য॥ এনসিটিবির চেয়ারম্যানকে হাইকোর্টে তলব