ঢাকা, বাংলাদেশ   মঙ্গলবার ১৬ আগস্ট ২০২২, ১ ভাদ্র ১৪২৯

পরীক্ষামূলক

অফিসে অনুপস্থিতি ঠেকাতে বায়োমেট্রিক মেশিনে ফিঙ্গার প্রিন্ট অবশ্যই দিতে হবে ॥ স্বাস্থ্য অধিদফতরের নির্দেশ

প্রকাশিত: ০৫:৫৬, ১৫ মার্চ ২০১৮

অফিসে অনুপস্থিতি ঠেকাতে বায়োমেট্রিক মেশিনে ফিঙ্গার প্রিন্ট অবশ্যই দিতে হবে ॥ স্বাস্থ্য অধিদফতরের নির্দেশ

স্টাফ রিপোর্টার ॥ অফিসে আগমন ও প্রস্থানের সময় বায়োমেট্রিক মেশিনে ফিঙ্গার প্রিন্ট প্রদানে বিরত থাকলে অনুপস্থিত হিসেবে গণ্য হবে এবং তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। নিজেদের অধীন সকল প্রতিষ্ঠানে কর্মরত কর্মকর্তা-কর্মচারীদের উদ্দেশে এমন নির্দেশনা জারি করেছে স্বাস্থ্য অধিদফতর। মঙ্গলবার স্বাস্থ্য অধিদফতরের পরিচালক (প্রশাসন) ডাঃ এ বি এম মুজহারুল ইসলাম স্বাক্ষরিত বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে। সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, কর্মস্থলে স্বাস্থ্য সেক্টরের চিকিৎসক, নার্স, কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের উপস্থিতি নিশ্চিত করতে সর্বশেষ ব্যবস্থা হিসেবে এই পদ্ধতি চালু করে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়। কিন্তু স্বাস্থ্য সেক্টরের অধিকাংশ প্রতিষ্ঠানে এই পদ্ধতি চালু করা হয়নি। এই মেশিন স্থাপন করা হয়েছে এমন অনেক প্রতিষ্ঠান থেকেও নিয়মিত উপস্থিতি তথ্য পাঠানো হচ্ছে না। ফলে অনেক চিকিৎসক, নার্স, কর্মচারী ও কর্মকর্তার কর্মস্থলে উপস্থিতি সম্পর্কে নিশ্চিত হওয়া যাচ্ছে না বলে অভিযোগ উঠেছে। এর আগে নিয়মিত উপস্থিতি নিশ্চিত করতে সিভিল সার্জনদের আরও কঠোর হওয়ার নির্দেশ দেয় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়। সম্প্রতি স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম বলেছেন, কর্মস্থলে অনুপস্থিত থাকার কোন অভিযোগ পেলে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেয়া হবে। সাধারণ মানুষের চিকিৎসা ব্যাহত হতে পারে এমন কোন পরিস্থিতি বরদাশত করা হবে না। যে সিভিল সার্জন তার অধীন চিকিৎসকদের গাফিলাতির বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে পারবেন না তাকেও জবাবদিহির আওতায় আনা হবে। বর্তমান সরকারের সময়ে দেশের স্বাস্থ্যসেবা যেভাবে এগিয়ে যাচ্ছে, আন্তর্জাতিক ক্ষেত্রে প্রশংসা কুড়াচ্ছে তাকে আরও উর্ধে তুলে ধরতে সকলকে কাজ করতে হবে বলে জানিয়ে দেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী। এর আগে দেয়া স্বাস্থ্য অধিদফতরের একটি পরিপত্রে বলা হয়েছে, কর্মস্থলে চিকিৎসকদের ইলেক্ট্রনিক হাজিরা মনিটরিং করতে স্বাস্থ্য অধিদফতরের অধীন বিভিন্ন হাসপাতাল ও স্বাস্থ্য কেন্দ্রে বায়োমেট্রিক মেশিন স্থাপন করা হয়েছে।
ডিজিটাল বাংলাদেশ পুরস্কার ২০২২
ডিজিটাল বাংলাদেশ পুরস্কার ২০২২