বুধবার ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ২৫ মে ২০২২ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

গ্রামীণ ব্যাংকের পরিচালনা পর্ষদের সভা নিয়ে এ্যাটর্নি জেনারেলকে চিঠি

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ গ্রামীণ ব্যাংকের পরিচালক নির্বাচন নিয়ে উচ্চ আদালতে মামলচলমান থাকায় পরিচালনপর্ষদের সভা করা যাবে কি-না সে বিষয়ে মতামত চেয়ে এ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলমকে চিঠি পাঠিয়েছেন ব্যাংকটির চেয়ারম্যান।

অর্থ মন্ত্রণালয়ের আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগ গ্রামীণ ব্যাংকের পরিচালনা পর্ষদের সভা আহ্বান বা অনুষ্ঠানে ‘গ্রামীণ ব্যাংক আইন ২০১৩’ যথাযথভাবে অনুসরণের নির্দেশনা দেয়ার পর ব্যাংকের চেয়ারম্যান অধ্যাপক খন্দকার মোজাম্মেল হক এ চিঠি পাঠিয়েছেন। এর আগে গ্রামীণ ব্যাংক নিয়ে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিতের সরকারী বাসভবনে চেয়ারম্যানসহ সরকার নিযুক্ত তিনজন পরিচালকের সমন্বয়ে পর্ষদ সভা আহ্বানের বিষয়ে এ্যাটর্নি জেনারেলের মতামত গ্রহণের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।

গ্রামীণ ব্যাংক চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতির অধ্যাপক ড. মুহাম্মদ ইউনূসের ‘গ্রামের দরিদ্র মানুষকে ব্যাংকিং সেবা প্রদান’ প্রকল্পের ফল। ১৯৭৬ সালে তিনি এ বিষয়ে গবেষণা প্রকল্প চালু করেন। তার আলোকে ১৯৮৩ সালে আইনের মাধ্যমে যাত্রা শুরু করে গ্রামীণ ব্যাংক।

গ্রামীণ ব্যাংক আইন ২০১৩ এর ১১(১) উপধারা অনুসারে নির্বাচিত পরিচালকদের মেয়াদ সর্বোচ্চ তিন বছর। ২০১২ সালের ১২ জানুয়ারি নির্বাচনের মাধ্যমে ঋণগ্রহীতা ও শেয়ারহোল্ডারদের মধ্য থেকে নির্বাচিত নয়জন পরিচালক দায়িত্ব নেন ৮ ফেব্রুয়ারি। ওই পরিচালকদের মেয়াদ শেষ হয় ২০১৫ সালের ৭ ফেব্রুয়ারি। নয়জন পরিচালক হলেনÑ ঋণগ্রহীতাদের পক্ষে সিলেট অঞ্চলের মোছাম্মাৎ সুলতানা, চট্টগ্রামের মোছাম্মাৎ সাজেদা, কুমিল্লার রেহেনা আক্তার ও ময়মনসিংহ অঞ্চলের তাহসীনা খাতুন এবং শেয়ারহোল্ডারদের পক্ষে গাজীপুর অঞ্চলের সালেহা খাতুন, দিনাজপুরের পারুল বেগম, বগুড়ার মোছাম্মাৎ মেরিনা, যশোরের শাহিদা বেগম ও পটুয়াখালীর মোমেলা বেগম।

নির্বাচনী তফসিল ঘোষণা না হওয়ায় পরিচালক নির্বাচন বিধিমালা-২০১৪-এর ৫(১) উপবিধি অনুসারে বিদ্যমান পরিচালকরা পরিচালনা পর্ষদে তাদের সদস্যপদ বহাল আছে- দাবি করে ২০১৫ সালে নয়জন পরিচালকের পক্ষে হাইকোর্টে রিট (৩২৪৫-২০১৫) করেন ময়মনসিংহের দাপুনিয়ার তাহসীনা খাতুন। মামলাটি এখনও বিচারাধীন। গ্রামীণ ব্যাংকে ব্যবস্থাপনা পরিচালক ছাড়াও বতর্মানে সরকার নিযুক্ত দুজন পরিচালক আছেন। তারা হলেন অধ্যাপক খন্দকার মোজাম্মেল হক ও প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের মুখ্য সচিব সুরাইয়া বেগম।

গ্রামীণ ব্যাংক আইনের ১৭(৩) ধারা অনুসারে নির্বাচিত পরিচালকদের মেয়াদ শেষ হলে বিধি নির্ধারিত পদ্ধতিতে নতুনভাবে পরিচালক নির্বাচন না হওয়া পর্যন্ত সরকার নিযুক্ত চেয়ারম্যান ও অন্য দুজন পরিচালকের উপস্থিতিতে কোরাম পূরণসহ সভা অনুষ্ঠানের বিধান রয়েছে।

শীর্ষ সংবাদ:
মিরপুর টেস্ট ॥ বৃষ্টির পর আবার খেলা শুরু         মাঙ্গিপক্স ভাইরাসের বিস্তার ঠেকানো সম্ভব ॥ বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা         ধামরাইয়ে অগ্নিকাণ্ডে ১২টি ঘর পুড়ে ছাই         পদ্মা সেতু হওয়ায় বিএনপির বুকে বড় জ্বালা ॥ কাদের         সাড়ে তিন কোটি টাকা আত্মসাত করেন চক্রটি         শাহরাস্তিতে ট্রাক নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে হোটেলে, নিহত ১         নিত্যপণ্যের দাম বাড়ছে কিন্তু আমার আয় বাড়েনি         সংযুক্ত আরব আমিরাতেও প্রথম মাঙ্কিপক্স আক্রান্ত রোগী শনাক্ত         জো বাইডেন এশিয়া ছাড়তেই তিনটি ক্ষেপণাস্ত্র ছুড়েছে উত্তর কোরিয়া         বাগেরহাটে ট্রলির ধাক্কায় নারীসহ নিহত ৩         যুক্তরাষ্ট্রের টেক্সাসের স্কুলে বন্দুকধারীদের গুলিতে ১৯ শিশুসহ ২১ জন নিহত         ঢাকায় সার্বিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী         মানবতা-সাম্য-দ্রোহের কবি নজরুল ॥ প্রধানমন্ত্রী         কাজী নজরুলের সমাধিতে সংস্কৃতি মন্ত্রণালয়ের শ্রদ্ধা         হালদায় আবারো মৃত ডলফিন         ইভিএম বিশেষজ্ঞদের সঙ্গে বৈঠকে ইসি