ঢাকা, বাংলাদেশ   শুক্রবার ০৯ ডিসেম্বর ২০২২, ২৫ অগ্রাহায়ণ ১৪২৯

monarchmart
monarchmart

নির্দেশ অমান্য করে যশোরে পুলিশের মার্কেট নির্মাণ অব্যাহত

প্রকাশিত: ০৬:৫৬, ৩১ আগস্ট ২০১৭

নির্দেশ অমান্য করে যশোরে পুলিশের মার্কেট নির্মাণ অব্যাহত

স্টাফ রিপোর্টার, যশোর অফিস ॥ স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের নির্দেশ অমান্য করে মহাসড়কের পাশে মার্কেট নির্মাণ করছে যশোর পুলিশ। তাও আবার অন্যের মালিকানাধীন জায়গায়! এ নিয়ে সংশ্লিষ্ট দফতর পত্র দিলেও অগ্রাহ্য করে মার্কেট নির্মাণের কাজ অব্যাহত রয়েছে বলে সূত্র জানিয়েছে। নিরাপদে যাতে যানবাহন চলাচল করতে পারে এ জন্যে মহাসড়কের পাশে দোকান ঘর, মার্কেট, হাটবাজার কিংবা বাণিজ্যিক কোন স্থাপনা নির্মাণ বন্ধ করতে ২০১১ সালে হাইকোর্টে রিট পিটিশন দায়ের হয়। এই রিটের প্রেক্ষিতে হাইকোর্ট ২০১৫ সালের ৭ ডিসেম্বর মহাসড়কে যান চলাচল সংক্রান্ত ২৫ দফা নির্দেশনা জারি করে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়কে বাস্তবায়নের নির্দেশ দেয়। যার তৃতীয় ও চতুর্থ নির্দেশনা ছিল, ‘কর্তৃপক্ষের অনুমতি ছাড়া মহাসড়ক বা স্লোপে বা কোন অংশে অস্থায়ী বা স্থায়ীভাবে নির্মিত হাটবাজার বা দোকান উচ্ছেদ করতে হবে।’ ও ‘মহাসড়কের ১০ মিটারের মধ্যে কোন হাট বাজার ও বাণিজ্যিক স্থাপনা তৈরির অনুমতি দেয়া যাবে না।’ হাইকোর্টের নির্দেশনা বাস্তবায়নের জন্যে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগ থেকে জেলা প্রশাসকদের কাছে গত ১৯ জুন পত্র দেয়া হয়। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের উপ-সচিব মমতাজ উদ্দিন স্বাক্ষরিত পত্র পাওয়ার তিনদিনের মধ্যে অবৈধ হাটবাজার, দোকানের হালনাগাদ তালিকা পাঠানোর কথা উল্লেখ রয়েছে। পত্র পাওয়ার পরপরই যশোরের জেলা প্রশাসকের পক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্যে জেলা পরিষদ কর্তৃপক্ষকে অনুরোধ জানান সহকারী কমিশনার জহির ইমাম। একাধিক সূত্র জানিয়েছে, এই পত্র পাওয়ার আগেই জেলা পরিষদের মালিকানাধীন যশোর-ঝিনাইদহ মহাসড়কের দড়াটানা হতে পালবাড়ি অংশের পুলিশ লাইনের প্রাচীর ঘেঁষে পাকা মার্কেট নির্মাণ কাজ শুরু হয়। জেলা পুলিশ জেলা পরিষদের জায়গায় কোনরকম অনুমতি না নিয়ে মার্কেট নির্মাণ শুরু করে বলে জেলা পরিষদের কয়েকজন কর্মকর্তা জানান। এ অবস্থায় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের নির্দেশ মোতাবেক মার্কেট নির্মাণ বন্ধ করতে গত ২১ আগস্ট জেলা পরিষদের পক্ষ থেকে পুলিশ সুপারকে পত্র দেয়া হয়। এই পত্রে জেলা পরিষদ যশোরের সিনিয়র সহকারী প্রকৌশলী এস.এম নুরুল ইসলামের স্বাক্ষর রয়েছে। জেলা পরিষদ সূত্র জানিয়েছে, পত্র দেয়ার পরও পুলিশ লাইন প্রাচীরের সঙ্গে মার্কেট নির্মাণের কাজ বন্ধ হয়নি। মঙ্গলবার পুলিশ লাইন এলাকায় গিয়ে মার্কেট নির্মাণ কাজ করতে দেখা গেছে।
monarchmart
monarchmart