শনিবার ৪ আশ্বিন ১৪২৭, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২০ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

জমজমাট বিপণিবিতান উৎসবমুখর পরিবেশে কেনাকাটা

জমজমাট বিপণিবিতান উৎসবমুখর পরিবেশে কেনাকাটা
  • মুখর রাজধানী

জনকণ্ঠ ফিচার ॥ ঈদের এখনও বাকি। অনেক বাকি। তবে কেনাকাটা দেখে সেটি বোঝার কোন উপায় নেই। ঢাকার সব শপিংমল বিপণিবিতান বিয়ে বাড়ির মতো করে সাজানো। সন্ধ্যা হতেই জ্বলে উঠছে নানা রঙের মরিচবাতি। ক্রেতাকে আকর্ষণ করতে আরও কত শত আয়োজন! অবশ্য ক্রেতার নিজেরও কম নয় আগ্রহ। নাওয়া খাওয়া ভুলে ছুটছেন। কেউ কেউ সকালে ঘর থেকে বের হয়ে যাচ্ছেন। তার পর এই মার্কেট। ওই শপিংমল। অসহনীয় গরম এড়াতে কেউ কেউ আবার বিকেলে বা সন্ধ্যায় বের হচ্ছেন। এভাবে সকাল থেকে গভীর রাত পর্যন্ত চলছে কেনাকাটা। ঈদের অনেক আগেই উৎসবের একটা আবহ তৈরি হয়ে গেছে।

প্রতি বছরের মতো এবারও আগেভাগে নতুন জামা কাপড়ের পসরা সাজিয়েছিলেন দোকানিরা। রোজার একেবারে শুরুর দিনটি থেকেই বাহারি রং ও ডিজাইনের পোশাকে ভরে উঠেছিল শোরুমগুলো। ক্রেতা পেতেও সময় লাগেনি। প্রথম দফা কেনাকাটা ইতোমধ্যে শেষ হয়েছে। যারা আগেভাগে ঢাকা ছেড়ে গেছেন তারা ছিলেন ওই মুহূর্তের ক্রেতা। আর এখন তো মূল সময়। প্রায় সবাই ব্যস্ত পোশাক কেনাকাটায়। ঈদে ছেলেদের পাঞ্জাবি চাই। মেয়েদের চাই শাড়ি। থ্রিপিস। এগুলো দিয়েই শুরু হয়েছে শপিং। বসুন্ধরা শপিংমল, যমুনা ফিউচার পার্ক, গুলশানের শপার্স ওয়ার্ল্ড, এলিফ্যান্ট রোড, বেইলী রোড, নিউ মার্কেট, গাউছিয়া থেকে শুরু করে অলি গলি ফুটপাথে চলছে উৎসবমুখর কেনাকাটা। তবে ঈদের কেনাকাটায় বিশেষভাবে আলোচিত বসুন্ধরা সিটি শপিংমল। রবিবার দুপুরে সেখানে গিয়ে দেখা যায়, সব বয়সী মানুষের সরব উপস্থিতি। অনেকগুলো প্রবেশ পথ। তবু লম্বা লাইনে দাঁড়িয়ে শপিংমলে প্রবেশ করছিলেন ক্রেতা। লিফট এবং চলন্ত সিঁড়িতেও গায়ে গা লাগা অবস্থা। মূল শ্রোতটি চলে যাচ্ছিল পোশাকের বিখ্যাত শোরুমগুলোর দিকে। আড়ংয়ের প্রতি বরাবরই আকর্ষণ। দেশীয় ব্র্যান্ডের নতুন আউটলেট এরই মাঝে ক্রেতাদের প্রিয় ঠিকানা হয়ে উঠেছে। আলাদা আলাদা ফ্লোরে সাজানো হয়েছে পাঞ্জাবি ও থ্রিপিস। দুটো ফ্লোরে দাঁড়ানোর জায়গা করে নেয়া মুস্কিল হয়ে যাচ্ছিল। এত ভিড়!

বিদেশী ব্র্যান্ডের শোরুমগুলোতে উপচে পড়া ভিড় নেই। তবে বিক্রি ভাল। প্রতিটিতেই ওয়েস্টার্ন ঢংয়ে তৈরি পোশাক সাজিয়ে রাখা হয়েছে। ইনফিনিটি, ক্যাটস আই, ফ্রিল্যান্ড, এক্সট্যাসি, ম্যানজক্লাবসহ কয়েকটি ব্র্যান্ডের শোরুমে ক্রেতাদের নিয়মিত যাতায়াত। ঈদেও অভিন্ন দৃশ্য দেখা গেল। বিশালায়তন শোরুমগুলোতে পোশাকের বিপুল সম্ভার। নারী-পুরুষ এবং শিশুদের পোশাক পাওয়া যাচ্ছে।

চড়া দাম। তবে এ জন্য বিক্রি থেমে নেই। বরং ক্যাশ কাউন্টারের হুড়োহুড়ি অবস্থা। পাঞ্জাবির ক্রেতারা বিশেষ ভিড় করেছিলেন লুবনানের শোরুমে। ভারত থেকে আমদানি করা গর্জিয়াস পাঞ্জাবি এখানে। অধিকাংশই শেরওয়ানির মতো দেখতে। তরুণরা খুব আগ্রহ নিয়ে দেখছিলেন। কিনছিলেন। লুবনানের ম্যানেজার রাজু জানালেন, অনেকগুলো ডিজাইন এরই মাঝে শেষ হয়ে গেছে। এখন কোন পাঞ্জাবি পছন্দ হলে কেউ আর রেখে যাচ্ছেন না। কারণ তারা জানেন, দ্বিতীয়বার এসে পাওয়ার সম্ভাবনা ক্ষীণ।

আলাদা করে বলতে হয় ‘দেশী দশ’-এর কথা। দেশীয় দশটি ফ্যাশন হাউস এখানে একত্রে পোশাক প্রদর্শন করছে। ঐতিহ্য ও আধুনিক রুচির সুন্দর সমন্বয় ঘটিয়েছেন উদ্যোক্তারা। শৌখিন ক্রেতারা তাই এখান থেকে ঈদের কেনাকাটা করতে স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করেন। ফ্যাশন হাউস দেশাল-এর শোরুমের দায়িত্বে থাকা রোজারিও বলেন, আমরা দেশী কাপড়ে কাজ করি। রুচিশীল ডিজাইন ক্রেতাদের উপহার দিতে চাই। সবক’টি ফ্যাশন হাউসের কাজের এটি প্রথম শর্ত। এ কারণেই দেশী দশের পোশাকের বিক্রি ভাল বলে জানান তিনি।

করোনাভাইরাস আপডেট
বিশ্বব্যাপী
বাংলাদেশ
আক্রান্ত
৩০৩৭৯০৩১
আক্রান্ত
৩৪৫৮০৫
সুস্থ
২২০৬২০৯৫
সুস্থ
২৫২৩৩৫
শীর্ষ সংবাদ:
নির্দিষ্ট এলাকার বাইরে কল কারখানা নয়         তিন বন্দর দিয়ে ভারতে আটকে থাকা পেঁয়াজ আসা শুরু         দুর্নীতির বিরুদ্ধে শুদ্ধি অভিযান অব্যাহত রয়েছে ॥ কাদের         কওমি বড় হুজুর আল্লামা শফীকে চিরবিদায়         ওষুধ খাতের ব্যবসা রমরমা         করোনার নমুনা পরীক্ষা ১৮ লাখ ছাড়িয়েছে         করোনা সংক্রমণ বাড়ছে ॥ ফের লকডাউনে যাচ্ছে ইউরোপ         বিশেষ মহলের ইন্ধন-ভাসানচরে যাবে না রোহিঙ্গারা         তুলা উৎপাদনে গুরুত্ব দিচ্ছে সরকার         দগ্ধ আরও দুজনের মৃত্যু, তিতাসের গ্রেফতার ৮ জন দুদিনের রিমান্ডে         শিক্ষার ক্ষতি পোষাতে বিশেষ প্রকল্প আগামী মাস থেকেই ॥ করোনায় সব লণ্ডভণ্ড         আর কোন জিকে শামীম নয় ॥ গণপূর্তের দৃশ্যপট পাল্টেছে         ব্যক্তিগত ও পারিবারিক দ্বন্দ্বই অধিকাংশ খুনের কারণ         এ্যাটর্নি জেনারেলের অবস্থার উন্নতি         বর্তমান সরকারের আমলে রেলপথে ব্যাপক উন্নয়ন হয়েছে : রেলপথমন্ত্রী         ইউএনও ওয়াহিদা জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ে বদলী, স্বামী স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ে         সোহরাওয়ার্দী হাসপাতাল পরিচালকের রুম ঘেরাও         চিরনিদ্রায় শায়িত হেফাজত আমির আল্লামা আহমদ শফী         সবচেয়ে কঠিন সময় পার করছি ॥ মির্জা ফখরুল         করোনা ভাইরাস ॥ ভারতে একদিনে ১২৪৭ জনের মৃত্যু