শনিবার ৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ২১ মে ২০২২ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা

ভাঙ্গায় ক্রিকেট খেলা নিয়ে সংঘর্ষ ॥ বাড়ি ভাংচুর

নিজস্ব সংবাদদাতা, ফরিদপুর, ১৮ জানুয়ারি ॥ ক্রিকেট খেলাকে কেন্দ্র করে ভাঙ্গায় দুই দল গ্রামবাসীর মধ্যে দুই ঘণ্টাব্যাপী সংঘর্ষে নারীসহ ২০ জন আহত হয়েছে। সংঘর্ষ চলাকালে ৫/৬টি বাড়ি-ঘর ভাংচুর ও লুটপাটের ঘটনা ঘটে। পুলিশ ১৮টি রাবার বুলেট ছুড়ে ও লাঠিপেটা করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। বুধবার বেলা ১০টা থেকে দুপর ১২টা পর্যন্ত সংঘর্ষের এ ঘটনা ঘটে উপজেলার তুজারপুর ইউনিয়নের জান্দী গ্রামে। আহতদের মধ্যে ৯ জনকে ভাঙ্গা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। এর মধ্যে আশঙ্কাজনক অবস্থায় দুই জনকে ফরিদপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়েছে। জানা যায়, আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে আগে থেকেই জান্দী গ্রামে দুটি দল রয়েছে। এক দলের নেতৃত্বে রয়েছেন তুজারপুর ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক ইউপি সদস্য ছাত্তার মাতুব্বর এবং অপরপক্ষের নেতৃত্বে রয়েছেন জান্দী গ্রামের হারেজ মাতুব্বর। মঙ্গলবার গ্রামের রথখোলা নামক মাঠে গ্রামের ছেলেরা ক্রিকেট খেলছিল। এসময় খেলা নিয়ে ছাত্তার মাতুব্বরের দলের চান খাঁর ছেলে সাগর খাঁর (২০) সঙ্গে হারেজ মাতুব্বরের দলের বিলাল মাতুব্বরের ছেলে সুমন মাতুব্বরের (২০) সঙ্গে হাতাহাতি হয়। এ নিয়ে উত্তেজনা দেখা দিলে পুলিশ মঙ্গলবার সন্ধ্যায় গিয়ে দুই দলকে শান্ত করেন। বুধবার সকাল হতেই দুই দল ঢাল, সড়কিসহ দেশীয় অস্ত্র নিয়ে প্রস্তুত হয়। সকাল ১০টার দিকে তারা সংঘর্ষে লিপ্ত হয়। এ সংঘর্ষ প্রায় ১২টা পর্যন্ত চলে। পরে পুলিশ গিয়ে লাঠিপেটা ও গুলি ছুড়ে সংঘর্ষ নিয়ন্ত্রণে আনে।

উখিয়ায় ১৪ দোকান ১১ বাড়ি ভস্মীভূত ॥ প্রতিবন্ধীর মৃত্যু

স্টাফ রিপোর্টার, কক্সবাজার ॥ উখিয়ায় অগ্নিকা-ে ১৪ দোকান, ১১ বাড়ি ছাই হয়ে গেছে। এ সময় অগ্নিদগ্ধ হয়ে মারা গেছে ঘুমে অচেতন নুরুল আলমের স্ত্রী বাক প্রতিবন্ধী জোবেদা খাতুন (৩৫)। বুধবার ভোরে রতœাপালং টেকপাড়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। কক্সবাজার ফায়ার সার্ভিসের অগ্নি নির্বাপক দল পৌঁছার আগেই কোটি টাকার সম্পদ ধ্বংস হয়ে গেছে বলে জানিয়েছেন ক্ষতিগ্রস্তরা।

স্থানীয় মেম্বার আবদুল গফুর জানান, প্রবাসীর মালিকানাধীন হাজী কলোনির কেয়ারটেকার ছিদ্দিক শীত নিবারণের জন্য স’মিলের তুষ দিয়ে আগুন জ্বালায়। এতে অগ্নিকা-ের সূত্রপাত হয়ে গ্রিল ওয়ার্কশপ, ব্যাটারি সামগ্রী, ফার্নিচার মাঠ, মাইক সরঞ্জামাদি, লন্ড্রিসহ প্রায় ১৪ দোকান ও ১১ বাড়ি পুড়ে যায়।

শীর্ষ সংবাদ: