ঢাকা, বাংলাদেশ   মঙ্গলবার ০৯ আগস্ট ২০২২, ২৫ শ্রাবণ ১৪২৯

পরীক্ষামূলক

জুভেন্টাসের ঘাড়ে নিশ্বাস ফেলছে রোমা

প্রকাশিত: ০৬:২৩, ৬ ডিসেম্বর ২০১৬

জুভেন্টাসের ঘাড়ে নিশ্বাস ফেলছে রোমা

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ ইতালিয়ান সিরি’এ লীগে এবার দুর্দান্ত গতিতে ছুটছে এস রোমা। রবিবার ডার্বি ম্যাচও নিজেদের করে নিয়েছে তারা। রোমা এদিন ২-০ গোলে হারিয়েছে ১০ জনের দলে পরিণত হওয়া ল্যাযিওকে। রোমা ছাড়াও সিরি’এ লীগে এদিন জয়ের স্বাদ নিয়ে মাঠ ছেড়েছে এসি মিলান, সাম্পদোরিয়া, সাসৌওলো এবং ফিওরেন্টিনা। তবে ঘরের মাঠে ক্যালিয়ারির সঙ্গে ১-১ ব্যবধানে ড্র করেছে পেসকারা। নিজেদের মাঠে ল্যাযিও এদিন রোমাকে আতিথ্য দেয়। কিন্তু ম্যাচটি হয় কড়া নিরাপত্তার মধ্য দিয়ে। যে কারণে অর্ধেক গ্যালারি ছিল ফাঁকা। তবে দুইদলই নিজেদের সেরাটা দিয়ে খেলতে থাকে। এর ফলে প্রথমার্ধে কোন দলই গোলের দেখা পায়নি। তবে ম্যাচের দ্বিতীয়ার্ধেই জ্বলে ওঠে সফরকারী রোমা। ৬৪ মিনিটে গোল করে দলকে এগিয়ে দেন কেভিন স্ট্রোটম্যান। এরপরই সতীর্থদের নিয়ে গোল উৎসবে মেতে ওঠেন স্ট্রোটম্যান। কিন্তু বাদ সাধেন ড্যানিলো কাতালদি। উদযাপনে ব্যস্ত থাকা স্ট্রোটম্যানের জার্সি টেনে ধরেন তিনি। যার মাশুলও দিতে হয় তাকে। ৬৬ মিনিটে তাকে লালকার্ড দেখিয়ে মাঠ থেকে বের করে দেন ম্যাচ রেফারি। ফলে ১০ জনের দলে পরিণত হয় ল্যাযিও। সেই সুযোগটা কাজে লাগাতে মোটেও ভুল করেনি সফরকারীরা। ম্যাচের বয়স যখন ৭৭ মিনিট তখন ল্যাযিও’র জালে দ্বিতীয় গোল করেন রাদজা নাইনগোলান। এরপর আর কোন গোল না হলে ২-০ গোলের জয় নিয়েই মাঠ ছাড়ে রোমা। চলতি মৌসুমে এটা রোমার দশম জয়। আর ডার্বিতে টানা আট ম্যাচে অপরাজিত। এই জয়ের ফলে শীর্ষে থাকা জুভেন্টাসের সঙ্গেও পয়েন্ট ব্যবধান কমিয়ে নিয়ে এসেছে লুসিয়ানো স্পেলেত্তির শিষ্যরা। মৌসুমের প্রথম ১৫ ম্যাচ থেকে ৩৬ পয়েন্ট নিয়ে সবার ওপরে অবস্থান করছে জুভেন্টাস। যারা গত কয়েক মৌসুম ধরেই সিরি’এ লীগে এককভাবে রাজত্ব করছে। সমান সংখ্যক ম্যাচ থেকে রোমার সংগ্রহ ৩২ পয়েন্ট। ডার্বি জয়ের ফলে রোমার শিবিরে এখন বইছে উচ্ছ্বাসের জোয়ার। শিষ্যদের পারফর্মেন্সে দারুণ সন্তুষ্ট ক্লাবটির কোচও। এ বিষয়ে ম্যাচ শেষে সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, ‘ধন্যবাদ জানাই মিডফিল্ডের যোদ্ধাদের। যেখানে আমাদেরই দাপট ছিল। প্রথমার্ধে ছেলেরা কিছুটা নিষ্প্র্রভ থাকলেও ম্যাচের দ্বিতীয়ার্ধে ঠিকই তারা নিজেদের খেলার জায়গা করে নিয়েছে।’ শুধু এখানেই শেষ নয়, রোমার কোচ জানালেন তাদের উৎসব-উদযাপন চলবে আরও দুইদিন। কেননা ডার্বি ম্যাচ বলে কথা। রহমতগঞ্জকে রুখে দিল ফেনী সকার স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ কারোর লক্ষ্য সেরা তিনে থাকা। আবার কারোর লক্ষ্য অবনমনের কবল থেকে নিজেদের রক্ষা করা। গোপালগঞ্জের শেখ ফজলুল হক মণি স্টেডিয়ামে সোমবার এমনই একটি ম্যাচ অনুষ্ঠিত হয়। এতে প্রতিদ্বন্দ্বী দল দুটোর পুরোপুরি না হলেও আংশিক লক্ষ্য পূরণ হয়েছে। ‘জেবি বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লীগ’ ফুটবলে রহমতগঞ্জ মুসলিম ফ্রেন্ডস সোসাইটিকে রুখে দিয়েছে ফেনী সকার ক্লাব। খেলার স্কোরলাইন ছিল ১-১। মজার ব্যাপার, এরআগে লীগের প্রথম লেগেও দু’দলের পারস্পরিক মোকাবেলার ফল একই ছিল। ৫৫ মিনিটে ডানপ্রান্ত থেকে সতীর্থর স্কয়ার পাস বক্সের খুব কাছে পেয়ে বাঁপায়ে দারুণ গোল করে রহমতগঞ্জকে এগিয়ে দেন দিদারুল (১-০)। এর কিছুক্ষণ পরই সকারের দুই ডিফেন্ডারকে কাটিয়ে বক্সে ঢুকে তীব্র শট নেন দিদারুল। বক্স পোস্টের কোণায় লেগে লক্ষ্যভ্রষ্ট হয়। সেই বল ফিস্ট করে নিশ্চিত গোল হজমের হাত থেকে দলকে রক্ষা করেন ফেনীর গোলরক্ষক। ৬৪ মিনিটে সমতায় ফেরে ফেনী সকার। উচে ফেলিক্স করেন সমতাসূচক গোলটি (১-০)। ৮১ মিনিটে গোলরক্ষককে সামনা সামনি পেয়ে কৌণিক শট নেন সকার ক্লাবের মিডফিল্ডার মাহবুবুল ইসলাম হিমু। সেই বল ফিস্ট করেন প্রতিপক্ষ গোলরক্ষক। ৮৯ মিনিটে ফ্রি কিক পায় ফেনী সকার। শট নেন ফেলিক্স। তবে বক্সে বলে-মাথায় সংযোগ ঘটাতে পারেননি ঘানার ফরোয়ার্ড টুয়াম ফ্রাংক। শেষ পর্যন্ত ১-১ গোলের ড্র নিয়ে মাঠ ছাড়ে দু’দল।
ডিজিটাল বাংলাদেশ পুরস্কার ২০২২
ডিজিটাল বাংলাদেশ পুরস্কার ২০২২