ঢাকা, বাংলাদেশ   মঙ্গলবার ১৬ আগস্ট ২০২২, ৩১ শ্রাবণ ১৪২৯

পরীক্ষামূলক

লালদীঘি বা মুসলিম হলেও সমাবেশের অনুমতি পায়নি বিএনপি

প্রকাশিত: ০৫:৪৫, ৭ নভেম্বর ২০১৬

লালদীঘি বা মুসলিম হলেও সমাবেশের  অনুমতি পায়নি বিএনপি

স্টাফ রিপোর্টার, চট্টগ্রাম অফিস ॥ চট্টগ্রামেও জনসমাবেশের অনুমতি পায়নি বিএনপি। ৭ নবেম্বর ‘বিপ্লব ও সংহতি দিবস’ উপলক্ষে লালদীঘি মাঠ চেয়েছিল দলটি। সেখানে অনুমতি না মেলায় চাওয়া হয়েছিল মুসলিম হল। কিন্তু শেষ পর্যন্ত সিএমপির পক্ষ থেকে দলীয় কার্যালয় প্রাঙ্গণেই সভা করার জন্য বলা হয়েছে। অনুমতি না পাওয়ায় হতাশা এবং একইসঙ্গে ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করা হয়েছে দলটির পক্ষ থেকে। চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, তারা প্রথমেই লালদীঘি মাঠ চেয়েছিল। কিন্তু পুলিশ অনুমতি দেয়নি। এরপর মুসলিম হল চাওয়া হয় সমাবেশের জন্য, হলের ভাড়াও যথাযথ কর্তৃপক্ষকে পরিশোধ করা হয়েছিল। সিএমপি সেখানেও সমাবেশের অনুমোদন দেয়নি। পুলিশ প্রশাসনের পক্ষ থেকে নুর আহমদ সড়কের নাসিমন ভবনের দলীয় কার্যালয় প্রাঙ্গণেই সভা করতে বলা হয়েছে। সুতরাং ঐতিহাসিক এই দিবসটির সমাবেশ করতে হচ্ছে ক্ষুদ্র জায়গায়। সমাবেশের অনুমতি না মেলার প্রতিক্রিয়ায় চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির সভাপতি ডাঃ শাহাদাত হোসেন বলেন, সরকার যদি গণতন্ত্রের প্রতি শ্রদ্ধাশীল হতো তাহলে বিএনপিকে সমাবেশ করার অনুমতি দিত। এই সরকার আসলে জনগণকে ভয় পায়। সরকার জানে যে, বিএনপির সমাবেশে প্রচুর লোকসমাগম হয়। ভীত হয়েই বিএনপিকে সমাবেশের অনুমতি দেয়নি। এটি সম্পূর্ণ অগণতান্ত্রিক আচরণ। এতেই প্রমাণ হয় বর্তমান সরকার গণতন্ত্রে বিশ্বাস করে না। বিএনপির সমাবেশ সম্পূর্ণ শান্তিপূর্ণ হতো বলে দাবি করে তিনি বলেন, অনুমতি দিলে গণতন্ত্রেরই জয় হতো। প্রসঙ্গত, বিশেষ এ দিবসে ঢাকায়ও জনসভার অনুমতি পায়নি বিএনপি। চট্টগ্রামে বড় ধরনের সমাবেশের ঘোষণা দেয়া হয়েছিল দলটির পক্ষ থেকে। কিন্তু অনুমতি মিলবে কিনা তা নিয়ে সংশয় ছিল। তবে শেষ পর্যন্ত অনুমোদন মিললেও তা হতে যাচ্ছে ক্ষুদ্র পরিসরে।
ডিজিটাল বাংলাদেশ পুরস্কার ২০২২
ডিজিটাল বাংলাদেশ পুরস্কার ২০২২