ঢাকা, বাংলাদেশ   শুক্রবার ০২ ডিসেম্বর ২০২২, ১৮ অগ্রাহায়ণ ১৪২৯

monarchmart
monarchmart

শক্তিশালী অভিনেত্রী হতে চান নাইরুজ সিফাত

প্রকাশিত: ০৭:২২, ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৬

শক্তিশালী অভিনেত্রী হতে চান নাইরুজ সিফাত

সাজু আহমেদ ॥ দেশের অন্যতম সম্ভাবনাময় মডেল ও অভিনেত্রী নাইরুজ সিফাত। এ নামে হয়ত বা অনেকেই চেনেন না। তবে ‘অপরাজিতা’র মন্দিরা হিসেবে কম-বেশি সবাই চেনেন। ‘অপরাজিতা’র কারণে বন্ধুবান্ধব বা দর্শকদের কাছে মন্দিরা নামেই এখন বেশ পরিচিত। দীপ্ত টিভির এই ধারাবাহিকের কারণে নাইরুজ সিফাত নামটি অনেকটা ঢাকা পড়েছে। তবে ‘অপরাজিতা’র মন্দিরা হিসেবে পরিচিতি পেলেও নাইরুজ সিফাত এর আগে বেশকিছু কাজ করেছেন। ছোটবেলা থেকে অভিনয় বা মিডিয়ার কাজের প্রতি আগ্রহ ছিল না। বেড়ে উঠেছেন ঢাকায়। বাবা একেএম নুরুল আলম তালুকদার ছিলেন বিটিভির ‘এ’ গ্রেডের তালিকাভুক্ত শিল্পী। তাই তার রক্তেও শিল্পীর ঐতিহ্য ছিল। বাবার কাজ দেখতে দেখতে বেড়ে ওঠেন। ছোট বেলায় নৃত্যশিল্পী হয়ে ওঠার স্বপ্ন থাকলেও নাইরুজ এখন পুরোদস্তুর অভিনয়শিল্পী। দীপ্ত টিভির ‘অপরাজিতা’ ধারাবাহিকের কেন্দ্রীয় চরিত্রে অভিনয় করছেন তিনি। একটি ধারাবাহিকে নিয়মিত কাজ করেই রীতিমতো দেশের টিভি মিডিয়ার পরিচিত মুখ হয়ে উঠেছেন। নাইরুজ মিডিয়াতে কাজ শুরু করেন ২০১০ সালের শেষের দিকে। তবে পুরোদস্তুরভাবে মডেলিং শুরু করেন ২০১২ সালে। সেই ধারাবাহিকতায় এ পর্যন্ত প্রায় দেড় ডজন টিভিসিতে কাজ করেছেন এ মডেল ও অভিনেত্রী। নাইরুজের বিজ্ঞাপনগুলোর মধ্যে রয়েছে প্যারাস্যুট এ্যাডভান্স, পোলার আইসক্রিম, প্রাণের টমেটো সস প্রভৃতি। মিডিয়ার কাজগুলো এখন নেশা থেকে অনেকটা পেশায় পরিণত হয়েছে বলে জানান তিনি। বিশেষ করে দীপ্ত টিভির ‘অপরাজিতা’ ধারাবাহিকের কাজ নিয়েই বেশিরভাগ সময় ব্যস্ত থাকতে হয় তাকে। এ ধারাবাহিকের দুই শ’তম পর্ব প্রচার হয়েছে। এখানে কাজ করতে করতে এই ধারাবাহিকের সঙ্গে সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে পারিবারিক একটা সম্পর্কও হয়ে গেছে। নাইরুজ বলেন, এটাও আমার একটা পরিবার। কারণ এই কাজটাকে ভালবেসে ফেলেছেন নাইরুজ। তাই আজীবন এই কাজটা করে যেতে চান। তবে মজার বিষয় হচ্ছে ‘অপরাজিতা’ ধারাবাহিকের মন্দিরা হিসেবে নাইরুজ যেমন সহজ-সরল এবং ধীরস্থির স্বভাবের বা সমাজের একটি আদর্শবাদী আইডল চরিত্রে রূপদান করছেন। বাস্তবে তিনি তার বিপরীতধর্মী অনেকটা চঞ্চল স্বভাবের একটি মেয়ে। সব সময় সবকিছুকে এনজয় করা তার স্বভাব। সেই মেয়ে তার বিপরীত চরিত্রে অভিনয় করছেন। তবে ধীরে ধীরে তিনি বাস্তবেও মন্দিরা হওয়ার চেষ্টা করছেন। বর্তমানে তিনি নিজেকে অর্ধেকটা মন্দিরা মনে করেন। কারণ যেটা অভিনয়ে করেন, যে চরিত্রটা মানুষের স্বপ্নের মতো সেটা আসলে বাস্তবে না হতে পারলে অভিনয়ওটাও সেভাবে ফুটিয়ে তুলতে পারবেন না। তাই পর্দার মন্দিরা বাস্তবেও মন্দিরা হওয়ার চেষ্টা করছেন। নাইরুজ বলেন, আমার সৌভাগ্য যে আমাদের সমাজে যে সব চরিত্র আইডল হিসেবে আমরা মনে করি আমি সেই ধরনের একটি চরিত্রে অভিনয় করতে পারছি। ভবিষ্যতে নিজেকে শক্তিশালী অভিনেত্রী হিসেবে দেখতে চান সিফাত। তবে ভাল ভাল গল্প ভাল ডিরেক্টরের ভাল কাজ হতে হবে। অনেকটা বেছে বেছে কাজ করতে চান। কাজের সংখ্যা নয়, মানের দিকে তার নজর বেশি বলে জানান তিনি। দর্শকদের ভালবাসা নিয়ে অভিনেত্রী হিসেবে তিনি এগিয়ে যেতে চান বহুদূর। একজন শক্তিশালী অভিনেত্রী হিসেবে বৈচিত্র্যময় চরিত্রে অভিনয়েই ব্যস্ত থাকতে চান। টিভি নাটক, বিজ্ঞাপন কিংবা চলচ্চিত্র যে কোন মাধ্যমে তিনি কাজ করতে চান। দর্শকদের চাহিদা অনুযায়ী দেশের মিডিয়ায় নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করতে চান। নাইরুজ এগিয়ে যাবেন তার কাক্সিক্ষত লক্ষ্যে সেই প্রত্যাশা। তার জন্য শুভ কামনা।
monarchmart
monarchmart