ঢাকা, বাংলাদেশ   শুক্রবার ০২ ডিসেম্বর ২০২২, ১৮ অগ্রাহায়ণ ১৪২৯

monarchmart
monarchmart

শেষকৃত্য সম্পন্ন

ব্যবসায়ী দেবেশ চন্দ্র হত্যার দায় স্বীকার আইএসের

প্রকাশিত: ০৬:২০, ২৭ মে ২০১৬

ব্যবসায়ী দেবেশ চন্দ্র হত্যার দায় স্বীকার আইএসের

নিজস্ব সংবাদদাতা, গাইবান্ধা, ২৬ মে ॥ গোবিন্দগঞ্জের বিশিষ্ট ব্যবসায়ী দেবেশ চন্দ্র প্রামাণিকের (৬৮) শেষকৃত্য মহিমাগঞ্জের দেওয়ানতলা মহাশ্মশানে বুধবার রাত ১০টায় সম্পন্ন হয়েছে। এদিকে ব্যবসায়ী দেবেশ চন্দ্র হত্যাকা-ের দায় স্বীকার করেছে ইসলামিক স্টেট (আইএস)। বুধবার সকাল ছয়টায় মহিমাগঞ্জ বাজারে বিশিষ্ট জুতা ব্যবসায়ী দেবেশ চন্দ্র প্রামাণিককে তার দোকানে জবাই করে পালিয়ে যায় দুর্বৃত্তরা। পুলিশের তদন্তের অপেক্ষায় লাশ সকাল ১০টা পর্যন্ত দোকানেই পড়ে থাকে। পরে গোবিন্দগঞ্জ থানা পুলিশ লাশ পোস্টমর্টেমের জন্য গাইবান্ধা মর্গে নিয়ে যায়। রাত আটটায় পোস্টমর্টেম শেষে লাশ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়। এসময় দেবেশ চন্দ্রের স্ত্রী আনন্দ রানী, ছেলেমেয়ে ও পরিবারের লোকজন কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন। তাদের শুধু একটি প্রশ্ন- অজাতশত্রু, সাদাসিধে নিরহংকারী, তদুপরি শারীরিক প্রতিবন্ধীকে (ডান পায়ের পাতা না থাকায় খুঁড়িয়ে খুঁড়িয়ে চলাফেরা করতেন) কেন নির্মমভাবে জবাই করে হত্যা করা হলোÑ এর উত্তর তারা কিছুতেই খুঁজে পাচ্ছেন না। তবে স্থানীয় লোকজন জানান, হত্যাকা-টি পরিকল্পিত। কারণ দেবেশ চন্দ্র দোকান খোলার আগে থেকেই দুটি মোটরসাইকেল সেখানে স্ট্যান্ড করা ছিল। এ দুটি মোটরসাইকেলেই খুনীরা কিলিং মিশন সম্পন্ন করে পালিয়ে যায়। এছাড়া গোবিন্দগঞ্জে তরুণ দত্তকে যেভাবে ধারালো চাপাতি দিয়ে কুপিয়ে জবাই করা হয়েছে, একই ধরনের চাপাতি দিয়ে কুপিয়ে দেবেশ চন্দ্রকেও জবাই করা হয়। এ থেকে অনুমান করা হচ্ছে, দুটি কিলিং মিশন একই সূত্রে গাঁথা। এদিকে তার হত্যার দায় স্বীকার করেছে মধ্যপ্রাচ্যভিত্তিক জঙ্গী সংগঠন ইসলামিক স্টেট (আইএস)। আইএসের সহযোগী সংবাদ সংস্থা ‘আমাক’ এক বিবৃতিতে এ তথ্য জানিয়েছে বলে গাইবান্ধায় জোর গুজব রটেছে। ওয়েবসাইটের মেসেজে উল্লেখ করা হয়েছে যে, ‘বাংলাদেশের উত্তরাঞ্চলের গাইবান্ধায় এক হিন্দু ব্যবসায়ীকে ছুরিকাঘাতে হত্যা করেছে ইসলামিক স্টেটের যোদ্ধারা’। তবে তাদের কথিত ওয়েবসাইট (ংরঃবরহঃবষষরমবহপব মৎড়ঁঢ়) চেক করে এই মেসেজের সন্ধান পাওয়া যায়নি। এ ব্যাপারে জেলা প্রশাসক মোঃ আব্দুস সামাদ ও পুলিশ সুপার মোঃ আশরাফুল ইসলাম ঘটনাস্থল পরিদর্শন ও তদন্ত করেন। এছাড়া নিহত দেবেশ চন্দ্রের পরিবারকে প্রয়োজনীয় নিরাপত্তার আশ্বাস দেন। এ খবর লেখা পর্যন্ত খুনের ৩০ ঘণ্টা অতিক্রান্ত হলেও এখন পর্যন্ত পুলিশ খুনের রহস্য কিংবা খুনীদের সম্পর্কে প্রকৃত তথ্য উদ্ঘাটনে সক্ষম হয়নি। পুলিশ সুপার মোঃ আশরাফুল ইসলাম জানান, খুনের বিষয়টি অত্যন্ত গুরুত্বের সঙ্গে বিবেচনা করা হচ্ছে। তবে স্বল্পতম সময়ের মধ্যে খুনের রহস্য উদ্ঘাটনসহ খুনীদের গ্রেফতারে সক্ষম হবে বলে পুলিশ আশাবাদী। পুলিশ সূত্র জানায়, খুনের ঘটনায় সন্দেহজনকভাবে আটক নৃপেন চন্দ্রের এই খুনের সঙ্গে কোন সংশ্লিষ্টতা পাওয়া যায়নি। সে মূলত ছিচকে চোর এবং মাদকাসক্ত। টাকা পয়সা সংক্রান্ত বিষয় নিয়ে একবার দেবেশ চন্দ্রের সঙ্গে তার গোলমাল বেঁধেছিল। এ থেকেই নিহত দেবেশের স্ত্রী আনন্দ রানী প্রাথমিকভাবে সন্দেহ করেছিলেন হয়ত এই শত্রুতাবশত সে খুন করে থাকতে পারে। পুলিশ এটা স্বীকার করে যে, খুনীরা পেশাদার কিলার এবং তারা দেবেশ চন্দ্রকে মাটিতে শুইয়ে এক কোপে অত্যন্ত দক্ষতার সঙ্গে হত্যাকা-টি ঘটায়।
monarchmart
monarchmart

শীর্ষ সংবাদ:

রাশিয়ার যুদ্ধে ইউক্রেনের ১৩ হাজার সৈন্য নিহত
খালেদা জিয়া তো মুক্ত, তাকে আবার কীভাবে জামিন দিব?
নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে হোটেলে কাভার্ডভ্যান, বাবা-ছেলেসহ নিহত ৫
বঙ্গোপসাগরে সৃষ্টি হতে পারে লঘুচাপ, কমতে পারে তাপমাত্রা
শান্তি চুক্তির ২৫ বছর: সমস্যা ও উত্তরণের উপায়
চেয়ারম্যান পদে স্বামী-স্ত্রীর মনোনয়নপত্র দাখিল
উত্তর কোরিয়ার ওপর তিন দেশের নিষেধাজ্ঞা
বাঙ্গালি নিধনে পাকিস্তানিদের বিশ্বাসঘাতকতার উপাখ্যান
শিগগিরই মানব মস্তিষ্কে চিপ বসাবে নিউরালিংক
তিন মাসের মধ্যে নভেম্বরে সর্বোচ্চ রেমিট্যান্স ১৫৯ কোটি ডলার
১৫ ডিসেম্বর পর্যন্ত সারাদেশে বিশেষ অভিযান চালাবে পুলিশ
রংপুর সিটি নির্বাচন: ১০ প্রার্থীর মনোনয়ন বৈধ
যাচাই-বাছাই করে গ্রাহক পর্যায়ে বিদ্যুতের দামের বিষয়ে সিদ্ধান্ত
শিশু আয়াতের মাথা উদ্ধার করেছে পিবিআই
মহান বিজয়ের মাস শুরু
পাকিস্তানের কয়লাখনিতে বিস্ফোরণে নিহত ৯