শনিবার ২৩ শ্রাবণ ১৪২৭, ০৮ আগস্ট ২০২০ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

যুক্তরাষ্ট্রের ১১৭ বিলিয়ন ডলারের বন্ড সৌদি আরবের হাতে

যুক্তরাষ্ট্রের ১১৭ বিলিয়ন ডলারের বন্ড সৌদি আরবের হাতে

অনলাইন ডেস্ক॥ যুক্তরাষ্ট্রের কতো ডলারের ট্রেজারি বন্ড সৌদি আরবের হাতে আছে, সেই তথ্য ওয়াশিংটন প্রকাশ করেছে চার দশ গোপন রাখার পর।

সিএনএন মানির এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ১১৬ দশমিক ৮ বিলিয়ন ডলারের ট্রেজারি বন্ড রয়েছে সৌদি আরবের হাতে। এ দিক দিয়ে মধ্যপ্রাচ্যের তেলসমৃদ্ধ দেশটি যুক্তরাষ্ট্রের সরকারি বন্ড ক্রেতাদের মধ্যে ত্রয়োদশ অবস্থানে রয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্রের ট্রেজারি বন্ডে এক ট্রিলিয়নের বেশি বিনিয়োগ রয়েছে চীন ও জাপানের।

সিএনএন মানি বলছে, যুক্তরাষ্ট্র তাদের বন্ডের বড় ক্রেতাদের অধিকাংশের তথ্য নিয়মিত প্রকাশ করলেও সত্তরের দশক থেকে সৌদি আরবের কেনা বন্ডের পরিমাণ আলাদাভাবে প্রকাশ করা হতো না।

ভেনেজুয়েলা ও ইরাকসহ তেল রপ্তানিকারক ১৪টি দেশের একটি গ্রুপে সম্মিলিতভাবে তাদের ওই বিনিয়োগ দেখানো হত।

যুক্তরাষ্ট্রের ট্রেজারি ডিপার্টমেন্ট গত সোমবার দেশগুলোর বিনিয়োগের পরিমাণ আলাদাভাবে প্রকাশ করলে সেই গোপনীয়তার সমাপ্তি ঘটে।

অবশ্য যুক্তরাষ্ট্রে সৌদি আরবের রাষ্ট্রীয় বিনিয়োগের পরিমাণ আরও বেশি হয়ে থাকতে পারে বলে সিএনএন মানি ধারণা দিয়েছে। তাদের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, সৌদি আরবের কেন্দ্রীয় ব্যাংক মার্চ মাসে যে হিসাব প্রকাশ করেছে তাতে ৫৮৭ বিলিয়ন ডলারের বিদেশি মুদ্রার রিজার্ভ থাকার কথা বলা হয়েছে। অনেক দেশের কেন্দ্রীয় ব্যাংকই যুক্তরাষ্ট্রের ফেডারেল রিজার্ভে তাদের রিজার্ভ সঞ্চিত রাখে। এমনও হতে পারে সেই টাকার হিসাব বন্ডের সঙ্গে যোগ করা হয়নি।

তেলের দাম কমার ধাক্কা সামালাতে সৌদি আরবকে ২০১৪ সালের শেষ থেকে তাদের রিজার্ভের ১৩০ বিলিয়ন ডলার খরচ করতে হয়েছে। ট্রেজারি ডিপার্টমেন্ট বলছে,যুক্তরাষ্ট্রের বন্ডে সৌদি আরবের বিনিয়োগের পরিমাণ ১২৩ দশমিক ৬ বিলিয়ন ডলার থেকে গত জানুয়ারিতে ১১৬ দশমিক ৮ বিলিয়নে নেমে আসে।

নতুন ট্রেজারি প্রতিবেদনে আরেক বিস্ময় হয়ে এসেছে ৬০ হাজারেরও কম জনসংখ্যার দেশ কেম্যান আইল্যান্ডস। ২৬৫ বিলিয়ন ডলারের মার্কিন ট্রেজারি বন্ড নিয়ে তারা আছে শীর্ষ ট্রেজারি বন্ড মালিক দেশের তালিকার তিন নম্বরে।

বিশ্বের অন্যতম ‘করস্বর্গ’ হিসেবে পরিচিত এই দেশে ব্যবসা করতে করপোরেট ট্যাক্স দিতে হয় না। বহুজাতিক কোম্পানিগুলোকে সেখানে প্রায় বিনা করে বিনিয়োগ করার সুযোগ দেওয়া হয় বলে সিএনএন মানির তথ্য।

কেম্যান আইল্যান্ডসের মতো আরেক ‘করস্বর্গ’ বারমুডার হাতেও ৬৩ বিলিয়ন ডলারের মার্কি ট্রেজারি বন্ড রয়েছে।

এ দুটো দেশের বিনিয়োগের পরিমাণও আগে ক্যারিবীয় দেশগুলোর সঙ্গে যৌথভাবে দেখানো হতো।

শীর্ষ সংবাদ:
হাওড়ে মরণ ফাঁদ ॥ অরক্ষিত নৌ পরিবহন ব্যবস্থা         বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন্নেছা মুজিবের জন্মবার্ষিকী আজ         অশুভ চক্র গুজব রটনা ও অপপ্রচারে লিপ্ত ॥ কাদের         সিনহা হত্যায় জড়িত কেউই ছাড় পাবে না ॥ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী         দেশে করোনা আক্রান্ত আড়াই লাখ ছাড়িয়েছে         যুক্তরাষ্ট্রে ফের রেকর্ড মৃত্যুর ঘটনা         সিনহাকে হত্যার কারণ এখনও অনুদ্ঘাটিত         রাজধানীতে গাড়ির ধাক্কায় পর্বতারোহী রেশমার মৃত্যু         বৃষ্টি ও জোয়ারে বন্যা পরিস্থিতির অবনতি         করোনায় চবি শিক্ষকের মৃত্যু ॥ নতুন আক্রান্ত ১২৮         কাঁঠালবাড়ি-শিমুলিয়া নৌপথে ঝুঁকি নিয়ে পদ্মা পাড়ি         ই-কমার্স কর্মসংস্থান ও অর্থনৈতিক কর্মকান্ড গতিশীল করেছে         মুজিব-বর্ষে বঙ্গবন্ধুর খুনীদের আরও একজনকে দেশে ফিরিয়ে এনে বিচারের সম্মুখীন করব : পররাষ্ট্রমন্ত্রী         সিনহা নিহতের ঘটনায় কাউকেই ছাড় নয় ॥ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী         বন্যা পরিস্থিতির উন্নতি হচ্ছে দ্রুত         চার নাইজেরিয়ানসহ প্রতারক চক্রের ৫ সদস্য আটক         রাজধানীতে প্রাইভেটকার চাপায় পর্বতারোহী রেশমা নিহত         করোনা ভাইরাসে আরও ২৭ জনের মৃত্যু, শনাক্ত আড়াই লাখ ছাড়াল         শেখ হাসিনার সরকারের বিরুদ্ধে গুজব রটিয়ে লাভ হবে না ॥ কাদের         জেকেজিকে সহায়তা করেও আসামি নন সাবেক স্বাস্থ্য ডিজি !        
//--BID Records