শনিবার ৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ২১ মে ২০২২ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা

ব্রিটেনের বিদায়ে মৃত্যুঘণ্টা বাজতে পারে ইইউর

  • হ্যাঁ-এর পক্ষে ভোট দিতে উদাত্ত আহ্বান ইউরোপীয় নেতাদের

ইউরোপীয় ইউনিয়নেই (ইইউ) থেকে যেতে ব্রিটেনের প্রতি উদাত্ত আহ্বান জানিয়েছেন ইউরোপীয় নেতারা। যখন ইইউ’র অস্তিত্বই সঙ্কটের মুখে পড়েছে, তখন ব্রিটেনের এ জোট ত্যাগ বিপর্যয়কর ঘটনা পরম্পরার পথ খুলে দিতে পারে বলে তারা আশঙ্কাবোধ করছেন। খবর টেলিগ্রাফ অনলাইনের।

ফরাসী প্রধানমন্ত্রী ম্যানুয়েল ভালস বলেন, সমগ্র ইউরোপীয় সভ্যতাই গুরুতর হুমকির মুখে এবং এ অঞ্চলকে অবশ্যই নিজের আত্মরক্ষার্থে এক থাকতে হবে। যুক্তরাজ্যের বিদায় এক গুরুতর আঘাতই হবে বলে তিনি সতর্ক করেছেন। তিনি বলেন, এটি হবে এক বেদনাদায়ক ঘটনা। ডালস সাবধান করে দেন যে, ইউরোপীয় ব্যবস্থা আশঙ্কাজনকভাবেই ভঙ্গুর। ইউরোপ-এর ঐতিহাসিক ভিত্তি হারাতে পারে এবং দ্রুতই জোটের মৃত্যু ঘটতে পারে। কয়েক মাসের মধ্যেই পরিস্থিতির অবনতি ঘটতে পারে। তিনি ডাভোসে ওয়ার্ল্ড ইকনোমিক ফোরামের ভাষণ দিচ্ছিলেন। তিনি বলেন, আমরা সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে এক বিশ্বযুদ্ধে লিপ্ত রয়েছি। আমাদের বছরের পর বছর ধরে এ হুমকির সামনে বাঁচতে হবে। তিনি জোর দিয়ে বলেন, ইউরোপকে লিবিয়া, আফ্রিকান সাহেল ও সিরিয়ায় ইসলামিক স্টেট ও জিহাদী বাহিনীকে পরাজিত করতে অবশ্যই অভিযান চালাতে হবে।

জার্মান অর্থমন্ত্রী ভুলফগ্যাং সোবল চলতি বছরের গণভোটে ইউরোপের পক্ষে ‘হ্যাঁ’ ভোট দিতে ব্রিটিশ জনগণের প্রতি আবেদন জানান। অন্যথায় বিপর্যয় ঘটবে বলে তিনি মন্তব্য করেন। বার্লিনের রাজনৈতিক নেতারা গভীরভাবে উদ্বিগ্ন যে, ব্রিটেন সরে গেলে ক্ষমতা ভারসাম্য ও ইইউর অভ্যন্তরীণ সম্পর্কই বদলে যেতে পারে।

এতে জার্মানির অবাঞ্ছিত আধিপত্য ফরাসী-জার্মান অংশীদারিত্বে চিড় ধরিয়ে একে ভাঙ্গনের পর্যায়ে নিয়ে যেতে পারে। ডাচ্ প্রধানমন্ত্রী এবং ইউরোপীয় কাউন্সিলের বর্তমান প্রেসিডেন্ট মার্ক রাট ইইউ ব্রিটেনের ওপর হুকুমদারির চেষ্টা করছে, বা ব্রিটেনের উদ্বেগের যুক্তিসঙ্গত কারণ বুঝতে চাচ্ছে না- এমন আশঙ্কা দূর করার চেষ্টা করেন। তিনি বলেন, ডেভিড ক্যামেরনের খুবই বিশ্বাসযোগ্যতা ও প্রভাব রয়েছে। আমরা ফেব্রুয়ারিতে এক ইতিবাচক ফল পাব বলে আমি যথেষ্ট আশাবাদী।

শীর্ষ সংবাদ: