সোমবার ২২ আষাঢ় ১৪২৭, ০৬ জুলাই ২০২০ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

বৃদ্ধ ও বয়স্ক লোকদের প্রতি অবহেলা দূর করুন

যাদের লালন-পালনে আজ আমরা এই পৃথিবী দেখতে পারছি তারাই আজ তাদের পিতা-মাতা বা অভিভাবকদের প্রতি চরম অবহেলা প্রদর্শন করছে এটা বড়ই দুঃখজনক এবং বেদনাদায়ক। যেটা আমাদের সমাজে পূর্বে ছিল না তা এখন আমাদের সমাজে শুরু হয়েছে। তা হচ্ছে পিতা-মাতা যখন বয়স্ক হয়ে পড়ে তখন ছেলেমেয়েরা তাদেরকে বোঝা হিসেবে মনে করে। অনেক সন্তান প্রতিষ্ঠিত হলে তার পিতা-মাতাকে সমাজে পরিচয় দিতে দ্বিধাবোধ করে। এতে পিতা-মাতারা যে কষ্ট পান তা ভাষায় প্রকাশ করা সম্ভব নয়। অনেক সন্তান নিজের কাছে পিতা-মাতাকে না রেখে দেশের বাড়ি অথবা কোন প্রাইভেট নিবাসে বা বৃদ্ধাশ্রমে রেখে দেয়। যখন পিতা-মাতাকে সেবা করা প্রয়োজন, যখন বয়স্ক ভারে পিতা-মাতারা কোন কাজ করতে পারে না তখন তাদের ছেলেমেয়েরা সাধারণত আর মূল্যায়ন করে না। আমাদের সমাজে এ ধরনের প্রচলন আগে ছিল না। যে সকল ছেলেমেয়েকে পিতা-মাতারা উচ্চ শিক্ষায় শিক্ষিত করেছেন, তারাই বিদেশে চাকরি করার সুযোগের কারণে দেশে অবস্থিত পিতা-মাতাকে দেখাশোনা করতে পারে না বিধায় অনেক ক্ষেত্রে সে সকল ছেলেমেয়ের পিতা-মাতাকে বিদেশের মতো নিবাসস্থলে রেখে দেয়। মাসে প্রয়োজনীয় খরচ পাঠায় বা নাও পাঠায়। তবে ইদানীং দেশে অনেকে পরিবারের শান্তি বজায় রক্ষার্থে স্ত্রী-ছেলেমেয়েদের চাপে গৃহকর্তা তার বাবা মাকে নিজের কাছে রাখার সুযোগ পায় না। এটাও ঠিক নয়। পিতা-মাতার যদি সম্পদ-সম্পত্তি থেকে থাকে তাও অনেক ক্ষেত্রে ছেলেমেয়ে লিখে নিয়ে বাবা-মাকে তাঁর মর্যাদা দিতে ভুলে যায়। আল্লাহ যেন শক্তি ও সুযোগ দেয় কোন পরিবারে বৃদ্ধ বয়সে পিতা-মাতাকে কেউ যেন অবহেলা না করে তাতে তাদের কষ্ট কখনও বৃথা যায় না। সে জিনিসটা ছেলেমেয়ে, স্ত্রী, নাতি-নাতনি সবাইকে আজ অনুধাবন করতে হবে। পিতা-মাতা থেকে বড় কিছু নেই। তারা বহু কষ্ট করে আমাদের বড় করেছেন তাই কোনভাবেই তাঁদের মনে কষ্ট দেয়া উচিত হবে না। আসুন যাদের পিতা-মাতা বেঁচে আছেন তাদের একটু হলেও সেবা-শুশ্রƒষা করার চেষ্টা করি। কারণ এ পৃথিবীতে পিতা-মাতার চেয়ে বড় কিছু নেই। নিজের সামর্থ্য থাকলে কোনভাবেই পিতা-মাতাকে বৃদ্ধ বয়সে নিবাসস্থলে না পাঠানোই ভাল। তাই বৃদ্ধ ও বয়স্ক লোকদের কেউ যেন কখনও অবহেলা বা অশ্রদ্ধা না করে সে দিকটা দেখার জন্য সমাজের প্রতি অনুরোধ জানাচ্ছি।

শীর্ষ সংবাদ:
রাজধানীতে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ২ ছিনতাইকারী নিহত         সমুদ্রে ৩ নম্বর সতর্ক সংকেত         পারমাণবিক কেন্দ্রে দুর্ঘটনায় ক্ষয়ক্ষতির কথা জানাল ইরান         অসম-মেঘালয়ে ভারি বৃষ্টি ও ঢলের তীব্রতা বৃদ্ধি, বন্যার অবনতি হতে পারে         লকডাউনে সাড়া নেই ওয়ারীবাসীর         চ্যালেঞ্জে কর্মসংস্থান ॥ করোনায় ব্যবসা বাণিজ্য স্থবির         খাদ্যের মাধ্যমে করোনা ছড়ায় না         মিটার না দেখে আর বিল করবে না বিদ্যুত বিতরণ কোম্পানি         বিশ্বে পর পর দুদিন দুই লাখ করে করোনা রোগী শনাক্ত         বিদেশী সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম করের আওতায় আনা হবে         জঙ্গী নির্মূলে বিশ্বে রোল মডেল বাংলাদেশ         ফের আলোচনায় গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের উদ্ভাবিত কিট         বেনাপোল-পেট্রাপোল সচল ॥ অবশেষে ভারতে পণ্য রফতানি শুরু         কম শিল্পী, স্পর্শহীন অভিনয়- তবুও চ্যালেঞ্জ গ্রহণ         ভার্চুয়াল আদালত পরিচালনায় প্রশিক্ষণ দেয়া হবে ॥ আইনমন্ত্রী         করোনা আতঙ্কে রামেক হাসপাতালে দুই লাশ ফেলে লাপাত্তা স্বজনেরা         এন্ড্র্রু কিশোর ফের গুরুতর অসুস্থ         করোনায় স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সাবেক মহাপরিচালকের মৃত্যু         পাটকল শ্রমিকদের বকেয়া পরিশোধে ৫৮ কোটি টাকা বরাদ্দ         বয়স্ক, শিশু এবং অসুস্থ মানুষদের পশুর হাটে না যাওয়ার আহ্বান ডিএনসিসি মেয়রের        
//--BID Records