ঢাকা, বাংলাদেশ   বৃহস্পতিবার ৩০ মে ২০২৪, ১৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

মুন্সীগঞ্জে কালীপূজায় হাজারো পুণ্যার্থীর ঢল

স্টাফ রিপোর্টার, মুন্সীগঞ্জ

প্রকাশিত: ০১:১০, ২২ মার্চ ২০২৩

মুন্সীগঞ্জে কালীপূজায় হাজারো পুণ্যার্থীর ঢল

ইছামতি তীরে কালী পূজায় লাখো মানুষের ঢল নেমেছে

মুন্সীগঞ্জের সিরাজদিখান উপজেলার ইছামতি তীরের শেখরনগর কালীপূজা ঘিরে দেশ-বিদেশের হাজারো পুণ্যার্থীর ঢল নেমেছে। ৫০০ বছরের পুরনো এই মেলা মঙ্গলবার শুরু হয়। শেখরনগর ঋষি সমিতির উদ্যোগে এই মেলায় বাংলাদেশের বিভিন্ন প্রান্ত ছাড়াও  ভারত, শ্রীলংকা ও  নেপাল থেকে এ পূজায় অসংখ্য মানুষ এবং সাধু-সন্ন্যাসীরা আসেন। তারা পাঁঠা আর কবুতরসহ নানা কিছু নিয়ে যাচ্ছেন দেবীর কাছে। আর পুরো এলাকায় জুড়ে বসেছে বিশাল গ্রামীণ মেলা।

মেলার ৩ হাজার স্টলে ঘিরে বেচাকেনার ধুম। মঙ্গলবার ভোর থেকেই মুন্সীগঞ্জের সিরাজদিখানের শেখরনগর ঘিরে পুণ্যার্থীর ঢল নামে। তারা দলে দলে আসেন দেশের সর্ববৃহৎ কালীপূজাতে। দেশ-বিদেশের পুণ্যার্থীর পদচারণায় মুখরিত হয়ে ওঠে পুরো এলাকা। প্রত্যন্ত অঞ্চলের জনপদটিতে শুরু হয় উৎসব আমেজ। চৈত্রের ভোর থেকে পূজারীরা প্রার্থনা করছেন। চলবে রাত অবধি। 
এ পূজার প্রধান আকর্ষণ হচ্ছে পাঁঠাবলি। আর পাঁঠাবলি দেখতে সেখানে মিলন ঘটবে সকল ধর্মালম্বীদের। আজ বুধবার ভোর থেকে পাঁঠাবলি দেওয়া শুরু হবে। এবার ৪ হাজারের বেশি পাঁঠা বলি দেওয়া হবে। ৯০১ বাংলা সন থেকে এখানে কালীপূজা হয়ে আসছে।

প্রায় ৩ হাজার দোকান ঘিরে বেচা-কেনার ধুম। সহকারী পুলিশ সুপার (সিরাজদিখান সার্কেল) মোস্তাফিজুর রহমান রিফাত বলেন পুণ্যার্থীর নিরাপত্তায় পুরো এলাকা সিসি ক্যামেরার আওতায় রাখা হয়েছে। চারদিকে নিরাপত্তায় বলয় তৈরি করা হয়েছে। পুলিশসহ ৪০০ কর্মী নিরাপত্তার কাজে নিয়োজিত রয়েছে। শেখরনগর কালী মন্দিরের পূজা উদযাপন কমিটির সভাপতি রতন চন্দ্র দাস বলেন, কালীপূজা ও মেলায় লাখো মানুষের সমাগম ঘটে থাকে।

বুধবার ভোর ৫টা থেকে কালী মন্দিরে পাঁঠাবলি শুরু হবে। ৫০০ বছরের পুরনো এ মেলা এ অঞ্চলের ঐতিহ্য বহন করে আসছে। ৯০১ বঙ্গাব্দ থেকে স্থানীয় ঋষি সম্প্রদায় এই পূজা এবং মেলার প্রচলন শুরু করে। ইছামতি তীরের ৫২৯ বছরের প্রচীন এই মন্দির ঘিরে হাজারো মানুষের ঢল। তারা পাঁঠা ও পায়রাসহ নানা কিছু দান করছেন এখানে।

×