ঢাকা, বাংলাদেশ   রোববার ১৬ জুন ২০২৪, ২ আষাঢ় ১৪৩১

যশোরে ৫০ গৃহহীন পরিবারের স্বপ্ন পূরণ

স্টাফ রিপোর্টার, যশোর অফিস

প্রকাশিত: ০০:৫৮, ৫ মার্চ ২০২৩

যশোরে ৫০ গৃহহীন পরিবারের স্বপ্ন পূরণ

গৃহহীন ৫০ পরিবারকে ঘর দিচ্ছে জেলা পরিষদ

পিতার জমি-বাড়ি নেই। ভাড়া বাড়িতে বড় হয়েছেন। বিয়ে করে থাকেন শ্বশুরবাড়িতে। কঠোর পরিশ্রম করে তিন বছর আগে সাড়ে তিন শতক জমি কেনেন। সেই জমিতে জেলা পরিষদ তার দুই রুমের ঘর নির্মাণ করে দিয়েছে। দ্রুত সেই ঘর তাকে হস্তান্তর করা হবে। গৃহহীনের বঞ্চনা চিরতরে ঘুচে যাওয়ায় তার চোখে মুখে আনন্দের ঝিলিক। যশোর সদরের মানিকদিহি গ্রামের দেলোয়ার হোসেনের ছেলে জহুরুল ইসলাম তাই প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানান।

তিনি বলেন, আমার মতো গরিব মানুষের কথা প্রধানমন্ত্রী মনে করে ঘর দিয়েছেন, এজন্য মানবতার মা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ধন্যবাদ জানাই। গৃহহীনদের স্বপ্ন পূরণের সারথি হয়েছে যশোর জেলা পরিষদ। প্রধানমন্ত্রী ঘোষিত সবার জন্য বাসস্থান নিশ্চিতের অংশ হিসেবে জেলার ৫০টি গৃহহীন পরিবারকে বাসগৃহের ব্যবস্থা করেছে এ প্রতিষ্ঠানটি। নিজস্ব ফান্ড থেকে দেড় কোটির বেশি ব্যয়ে নির্মাণ করা হয়েছে গৃহগুলো। কোনো কোনো গৃহ ইতোমধ্যে হস্তান্তর করা হয়েছে। গৃহহীনের বঞ্চনামুক্ত হয়েছেন তারা।

জেলা পরিষদের সহকারী প্রকৌশলী মো. ওহিদুজ্জামান জানান, মুজিব শতবর্ষ উপলক্ষে ২০২২-২৩ অর্থবছরে জেলা পরিষদ নিজস্ব অর্থে ৮ উপজেলার ৫০ গৃহহীনকে ঘর নির্মাণ করে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেয়। প্রতিটি ঘর নির্মাণে ব্যয় হয়েছে তিন লাখ ছয় হাজার চারশত ২২ টাকা। এ হিসেবে ৫০টি ঘর নির্মাণে মোট ব্যয় হয়েছে এক কোটি ৫৩ লাখ ২১ হাজার একশ’ টাকা। 
যশোর জেলা পরিষদের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা আছাদুজ্জামান বলেন, বেশিরভাগ গৃহনির্মাণ শেষ হয়েছে। নির্মাণ শেষে অনেক ঘর হস্তান্তর করা হয়েছে। তবে আনুষ্ঠানিকভাবে সব উদ্বোধন করা হবে। জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান সাইফুজ্জামান পিকুল বলেন, গৃহহীনদের গৃহ নির্মাণ করে দেওয়ার জন্য প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশ রয়েছে। নির্দেশ বাস্তবায়নের মধ্যে দিয়ে দরিদ্র মানুষের মুখে হাসি ফোটাতে পেরে আনন্দিত। অনেকে পরিবার-পরিজন নিয়ে জীর্ণ-শীর্ণ বাড়িতে থাকতেন। ঝড়-বৃষ্টির দিনে মানবেতর জীবনযাপন করতেন। তাদের সেই কষ্টের দিন ঘুচে যাচ্ছে।

×