৩ এপ্রিল ২০২০, ২০ চৈত্র ১৪২৬, শুক্রবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
 
সর্বশেষ

সংসদে রাষ্ট্রপতির ভাষণের ওপর ধন্যবাদ প্রস্তাব গ্রহণ

প্রকাশিত : ১৯ ফেব্রুয়ারী ২০২০

সংসদ রিপোর্টার ॥ একাদশ জাতীয় সংসদের দ্বিতীয় বছরের প্রথম অধিবেশনে রাষ্ট্রপতির দেয়া ভাষণের ওপর আনীত ধন্যবাদ প্রস্তাব নিয়ে দীর্ঘ আলোচনা শেষে তা সর্বসম্মতক্রমে গ্রহণ করা হয়েছে। মঙ্গলবার রাতে ওই প্রস্তাব গ্রহণের পর সংসদ অধিবেশন সমাপ্তি সংক্রান্ত রাষ্ট্রপতির আদেশ পড়ে শোনান স্পীকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী।

সংবিধানের ৭৩ অনুচ্ছেদের ২ উপধারা অনুযায়ী ‘সংসদ সদস্যদের প্রত্যেক সাধারণ নির্বাচনের পর প্রথম অধিবেশনের সূচনায় এবং প্রত্যেক বৎসরের প্রথম অধিবেশনের সূচনায় রাষ্ট্রপতি সংসদে ভাষণ দান করিবেন’। উপধারা (৩) এ বলা হয়েছে, ‘রাষ্ট্রপতি কর্তৃক প্রদত্ত ভাষণ শ্রবণ বা প্রেরিত বাণী প্রাপ্তির পর সংসদ উক্ত ভাষণ বা বাণী সম্পর্কে আলোচনা করিবেন’। আর রাষ্ট্রপতির ভাষণ সম্পর্কে কার্যপ্রণালী বিধির ৭ম অধ্যায়ে ৩৪ অনুচ্ছেদের (১) অনুযায়ী স্পীকার সংসদ নেতার সঙ্গে পরামর্শক্রমে সংবিধানের ৭৩ অনুচ্ছেদের অধীন রাষ্ট্রপতি কর্তৃক সংসদে প্রদত্ত ভাষণে উল্লেখিত বিষয়সমূহের আলোচনার জন্য সময় বরাদ্দ করবেন। এরপর সংসদে কোন সদস্যের মাধ্যমে উত্থাপিত এবং অপর একজন সদস্যের সমর্থিত একটি ধন্যবাদ প্রস্তাবের মাধ্যমে সংসদ উক্ত ভাষণে উল্লেখিত বিষয়সমূহ আলোচনা করবেন।

মূলতবি প্রস্তাব নাকচ

সংসদের চলতি এই অধিবেশনে সাধারণ আলোচনার জন্য দুইটি প্রস্তাব পাওয়া যায়। প্রস্তাব দু’টি উত্থাপন করেন বিরোধী দল জাতীয় পার্টির সংসদ সদস্য ডাঃ রুস্তম আলী ফরাজী। প্রস্তাব দু’টি ছিল ‘করোনাভাইরাস নিয়ে আশু করণীয়’ ও ‘ঢাকার বায়ুদূষণ রোধ’ প্রসঙ্গে। ওই বিষয় দু’টি নিয়ে ইতোমধ্যে সরকার পদক্ষেপ গ্রহণ করায় প্রস্তাব দু’টি নাকচ করেন স্পীকার।

প্রকাশিত : ১৯ ফেব্রুয়ারী ২০২০

১৯/০২/২০২০ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

শেষের পাতা



শীর্ষ সংবাদ: