২৭ জানুয়ারী ২০২০, ১৪ মাঘ ১৪২৬, সোমবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
 
সর্বশেষ

কোয়ালাকে বাঁচাতে-

প্রকাশিত : ২৩ নভেম্বর ২০১৯
কোয়ালাকে বাঁচাতে-

অস্ট্রেলিয়ার সিডনি শহরের একাংশের জনবসতি ও প্রাণীদের আবাসস্থল ভয়াবহ দাবানলে পুড়ে ছাই হয়ে যাচ্ছে। সবচেয়ে বেশি ক্ষতির মুখে পড়েছে বনাঞ্চলের জীব-জন্তু। দাবানলের গ্রাসে রেহাই পাচ্ছে না কোয়ালা বিয়ারের মতো বিলুপ্তপ্রায় প্রাণীও। তবে কিছু সহৃদয় মানুষের জন্য আগুনের ছোবল থেকে প্রাণেও বেঁচে যাচ্ছে অনেক প্রাণী। সম্প্রতি দাবানলের আগুনের গ্রাসের মুখে পড়ে একটি লোমশ কোয়ালা বিয়ার। আগুনের মধ্যে পড়লেও তাকে পরম স্নেহে কোলে তুলে নেন এক সামারিটান। উপস্থিত একজনের ভিডিওতে দেখা যায়, আগুনে জ্বলছে চারপাশ। এর মধ্যেই একটি ছোট্ট কোয়ালা আগুন এড়িযে রাস্তা পার হচ্ছে। এক সময় আগুন থেকে বাঁচার পথ ফুরিয়ে যায়। তবুও সুরক্ষিত আশ্রয়ের খোঁজে সে এদিক সেদিক ঘুরে বেড়াচ্ছে অসহায়ভাবে। উপায় না পেয়ে একটি জ্বলন্ত ঢিবির ওপর উঠে পড়ে। তখনই টনি ডোহেরটি তাকে বাঁচানোর জন্য চেষ্টা চালান। আগুনে ঝলসে যাওয়া কোয়ালাকে বাঁচাতে নিজের সাদা শার্ট খুলে ফেলেন। তারপর সেই ঢিবি থেকে কোয়ালাটিকে আলতো ছোঁয়ায় শার্টের মধ্যে নিয়ে কোলে তুলে নেন টনি। তার কথায়, সে সোজা আগুনের মধ্যে চলে যাচ্ছিল। এ দৃশ্য দেখেই গাড়ি থেকে নেমে দৌড়াই তার দিকে। যে কোনভাবে কোয়ালাটিকে বাঁচাতে হবে, এটাই মাথার মধ্যে ছিল। তারপরই তাকে কোলে তুলে নিই। অর্ধনগ্ন অবস্থাতেই কোয়ালার প্রাণ বাঁচান তিনি। সেখান থেকে ফিরে অসহায় ভীত প্রাণীটিকে পানির বোতল দিয়ে পানি খাওয়ানোর চেষ্টা করেন তিনি। ভিডিওতে দেখা যায়, অসহায় প্রাণীটি আতঙ্কে চিৎকার করে কাঁদছে। শরীরের বিভিন্ন জায়গায় আগুনের স্পষ্ট ছাপ। লোম পুড়ে গিয়ে ক্ষত জায়গাগুলো গোলাপি হয়ে গেছে। উপস্থিত এক ব্যক্তি টনিকে সাদা কোট এগিয়ে দেন। তিনি সেটি পরেও নেন। অসুস্থ কোয়ালাটিকে পরে এক কোয়ালা হাসপাতালে ভর্তি করেন তিনি। -নিউইয়র্ক পোস্ট

প্রকাশিত : ২৩ নভেম্বর ২০১৯

২৩/১১/২০১৯ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

শেষের পাতা



শীর্ষ সংবাদ: