২০ ফেব্রুয়ারী ২০২০, ৮ ফাল্গুন ১৪২৬, বৃহস্পতিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
 
সর্বশেষ

শান্তি শৃঙ্খলার স্বার্থে যখন যে পদক্ষেপ প্রয়োজন তা নেয়া হবে ॥ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

প্রকাশিত : ১৭ অক্টোবর ২০১৯

পার্বত্যাঞ্চল প্রতিনিধি, খাগড়াছড়ি ॥ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল এমপি বলেন, সারাদেশে সন্ত্রাস ও দুর্নীতির বিরুদ্ধে অভিযান চলছে। দেশে স্থিতিশীলতা বজায় রাখা এবং শান্তি শৃঙ্খলার স্বার্থে যখন যে ধরনের পদক্ষেপ প্রয়োজন সে ধরনের পদক্ষেপ নেয়া হবে। তিনি বুধবার জেলার রামগড় উপজেলায় নবনির্মিত রামগড় মডেল থানা ভবন উদ্বোধন শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে একথা বলেন।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, পার্বত্য এলাকায় স্থায়ী শান্তি প্রতিষ্ঠার প্রচেষ্টা অব্যাহত রয়েছে। এখানকার জনপ্রতিনিধি, সুশীল সমাজের প্রতিনিধি এবং প্রশাসনের উর্ধতন কর্মকর্তাদের সঙ্গে বৈঠকে গ্রহণযোগ্য সিদ্ধান্ত নেয়া হবে। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ফলক উন্মোচন করে রামগড় উপজেলায় চারতলা বিশিষ্ট নবনির্মিত রামগড় মডেল থানা ভবন উদ্বোধন করেন। এ সময় খাগড়াছড়ি জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি শরণার্থী বিষয়ক টাস্কফোর্স চেয়ারম্যান কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা এমপি, সংরক্ষিত আসনের এমপি বাসন্তি চাকমা, বাংলাদেশ বর্ডার গার্ডের মহাপরিচালক মেজর জেনারেল মোঃ সাফিনুল ইসলাম, খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান কংজরী চৌধুরী, পুলিশের চট্টগ্রাম অঞ্চলের ডিআইজি খন্দকার গোলাম ফারুক, জেলা প্রশাসক প্রতাপ চন্দ্র বিশ^াস, পুলিশ সুপার মোঃ আহমার উজ্জামানসহ বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তা উপস্থিত ছিলেন। ৭ কোটি ৩৫ লাখ টাকা ব্যয়ে চারতলা বিশিষ্ট রামগড় মডেল থানা ভবন নির্মাণ করা হয়।

কোন অবস্থাতেই পার্বত্য এলাকার শান্তি নষ্ট করা যাবে না ॥

নিজস্ব সংবাদদাতা, রাঙ্গামাটি, থেকে জানান, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান এমপি বলেছেন, তিন পার্বত্য জেলায় হঠাৎ করে রক্তপাত শুরু হয়েছে। সন্ত্রাসীরা নির্বিচারে জন প্রতিনিধি, নিরীহ মানুষসহ নির্বাচনী কর্মকর্তা পর্যন্ত সকলকে হত্যা করছে। তাদের কাছ থেকে কোন সাধারণ মানুষ রেহাই পাচ্ছে না। এদেশে কোন সন্ত্রাসী ও জঙ্গী গোষ্ঠী থাকবে না। যে কোন মূল্যে তাদের বিরুদ্ধে অভিযান পরিচালনা করা হবে। এ সব অভিযান পরিচালনা করার জন্য সরকারের বিভিন্ন সংস্থাকে যেভাবে সহায়তা করা প্রয়োজন আমরা সব কিছু করতে প্রস্তুতি রয়েছি। কোন অবস্থাতে এই অঞ্চলের শান্তি শৃঙ্খলা নষ্ট করা যাবে না। আমরা তিন জেলার এমপির সঙ্গে কথা বলেছি। এখানে নিয়োজিত আর্মি, পুলিশ এবং বিজিবিসহ সকল সংস্থার সঙ্গে কথা বলেছি। আমাদের দুর্বলতা কোথায় রয়েছে তা নিয়ে আমরা আলোচনা করেছি। এখানে কোন অবস্থাতেই শান্তিপ্রিয় পাহাড়ী-বাঙালীসহ সহঅবস্থান ধ্বংস করা যাবে না। সন্ত্রাসী, জঙ্গী ও মাদকের বিরুদ্ধে প্রধানমন্ত্রী ঘোষিত জিরো ট্রলারেন্স নীতি অনুসরণ করা হবে।

রাঙ্গামাটি জেলা প্রশাসকের সন্মেলন কক্ষে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান বুধবার সন্ধ্যায় এসব কথা বলেন। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে সহোযোগিতায় আয়োজিত এই বিশেষ সভায় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সভাপতিত্ব করেন। এতে বক্তব্য রেখেছেন বীর বাহাদুর উশেসিং এমপি, দীপংকর তালুকদার এমপি চট্টগ্রামের জিওসি এসএম মতিউর রহমান, জননিরাপত্তা বিভাগের সিনিয়র সচিব মোঃ কামাল উদ্দীন, পুলিশের মহাপরিচালক ডঃ জাবেদ পাটোয়ারী, পার্বত্য মন্ত্রণালয়ের সচিব মেজবাহুল ইসলাম। বিজিবির মহাপরিচালক সাফিনুল ইসলাম, র‌্যাব মাহাপরিচালক বেনজীর আহমেদ, রাঙ্গামাটি জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বৃষকেতু চাকমা, তিন পার্বত্য জেলার জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপারগণ বক্তব্য দিয়েছেন।

প্রকাশিত : ১৭ অক্টোবর ২০১৯

১৭/১০/২০১৯ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

শেষের পাতা



শীর্ষ সংবাদ: