মেঘলা, তাপমাত্রা ৩১.১ °C
 
২০ সেপ্টেম্বর ২০১৭, ৫ আশ্বিন ১৪২৪, বুধবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
সর্বশেষ

আমির বিশ্বসেরা হবে, বিশ্বাস মিসবাহর

প্রকাশিত : ২৯ জুন ২০১৬
  • ইংল্যান্ড সফরে ভাল করতে আত্মবিশ্বাসী পাকিস্তান টেস্ট অধিনায়ক

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ ইংল্যান্ড সফরে পাকিস্তানের দ্বৈরথ যত ঘনিয়ে আসছে মোহাম্মদ আমিরকে নিয়ে আলোচনা ততই তুঙ্গে। কারণটা অনুমেয়। ২০১০ সালে লর্ডস টেস্টে স্পট ফিক্সিংয়ে জড়িয়ে পাঁচ বছরের জন্য নিষিদ্ধ হয়েছিলেন প্রতিভাবান এই পেসার। শাস্তি ভোগের পর বছরের শুরুতে নিউজিল্যান্ড সফরে ওয়ানডে-টি২০ দিয়ে ফিরেছেন আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে। কাকতালীয়, সেই লর্ডস দিয়ে এবার টেস্টে ফেরার পালা ...। পাকিস্তান সাদা পোশাকের অধিনায়ক মিসবাহ-উল হকের বিশ্বাস সব প্রতিকূলতা পেছনে ফেলে আমির বিশ্বের এক নম্বর বোলারে পরিণত হবে। ‘ওর বলের গতি, সুইং এবং নিয়ন্ত্রণের দিকে তাকালেই বোঝা যাবে কি হচ্ছে। আমির এখনও বিশ্বসেরা বোলার হওয়ার যোগ্যতা রাখে। আমার বিশ্বাস ও সে পথেই এগোচ্ছে।’

ইংলিশ কন্ডিশনের সঙ্গে মানিয়ে নিতে মিসবাহর নেতৃত্বে টেস্ট দল এখন ইংল্যান্ডের রোজ বোলে, সেখানেই অনুশীলনের সময় সংবাদ মাধ্যমের সঙ্গে কথা বলেন পাকিস্তান টেস্ট অধিনায়ক। লর্ডসে প্রত্যাবর্তন টেস্টে আমির মিশ্র প্রতিক্রিয়া পাবে বলেও মনে করেন তিনি। বল হাতে পারফর্ম করে সবার মন জয় করার সামর্থ্যে বিশ্বাসী। মিসবাহ আরও বলেন, ‘ওর (আমিরের) জীবনে যাই হোক না কেন, সে প্রত্যাবর্তনের জন্যই খেলে যাচ্ছে এবং সেটা ভালভাবেই করছে। এত ধকল কাটিয়ে ফেরার পর (ওয়ানডে-টি২০) কি দুর্দন্ত বোলিংটাই না করে যাচ্ছে। এমন বোলিং করা একজনের গ্যালারির আওয়াজ (মন্তব্য) শোনার দরকার নেই। বল হাতেই সে এসব নিয়ন্ত্রণ করবে। ভাল ফর্ম আমিরকে অবশ্যই একদিন বিশ্ব সেরার আসনে বসাবে।’ ইংল্যান্ড সফরে পাকিস্তান চার টেস্টে সিরিজ ছাড়া পাঁচ ওয়ানডে ও একটি টি২০ খেলবে। ১৪ জুলাই লর্ডস টেস্ট দিয়ে শুরু ময়দানী লড়াই। তার আগে রয়েছে তিন প্রস্তুতি ম্যাচ। টনটনে প্রথম তিনদিনের প্রস্তুতিতে মিসবাহদের প্রতিপক্ষ কাউন্টি দল সমারসেট। আমির তার দুরন্ত পেস আক্রমণ দিয়ে ইংলিশ ব্যাটিং লাইনআপ গুড়িয়ে দেবে, এমনটা বিশ্বাস মিসবাহর। আমিরকে ইংল্যান্ড কেমনভাবে নেয়? এ নিয়েও আলোচনার কমতি নেই। তবে ইংলিশ টেস্ট অধিনায়ক এ্যালিস্টার কুক এবং তারকা পেসার স্টুয়ার্ড ব্রড ইতোমধ্যে স্পষ্ট করে বলেছেন, অতীত নয়, তারা বর্তমান নিয়েই ভাবতে চান। আমিরকে সাদরে গ্রহণ করবেন বলেও জানিয়ে দেয়া হয়েছে। প্রায়শ্চিত্তের পথে পারফর্ম করতে ২৪ বছর বয়সী বাঁহাতি নিজেও মরিয়া, ‘এরই মধ্যে ওয়ানডে-টি২০ খেলেছি। কিন্তু টেস্টে সঙ্গে তার তুলনা হয় না। এটাই হবে আমার সত্যিকারের ফেরা। আমি ফের লর্ডসের অনার্স বোর্ডে নাম তুলতে চাই। ইংলিশ ক্রিকেটপ্রেমীদের সমর্থনও ফিরে পেতে চাই। আমি তৈরি।’

২০১০Ñএ আলোচিত ওই সিরিজে ১৮ বছর বয়সে নিজের প্রথম ইংল্যান্ড সফরে এই লর্ডসেই ৮৪ রান দিয়ে ৬ উইকেট নিয়ে ইতিহাসের সর্বকনিষ্ঠ খেলোয়াড় হিসেবে অনার্স বোর্ডে নাম লিখিয়েছিলেন। ১৯ উইকেট নিয়ে ছিলেন সিরিজে পাকিস্তানের শীর্ষ শিকারি, যৌথভাবে পেয়েছিলেন ‘ম্যান অব দ্য সিরিজ’ এর পুরস্কারও। সেই স্মৃতি তিনি ভোলেন কি করে। ওদিকে এই সিরিজ দিয়েই পাকিস্তানের নতুন কোচ মিকি আর্থারের মিশন শুরু হচ্ছে। অস্ট্রেলিয়ার কোচ হিসেবে ইংল্যান্ড সফরের অতীত অভিজ্ঞতা কাজে লাগাতে চান তিনি।

প্রকাশিত : ২৯ জুন ২০১৬

২৯/০৬/২০১৬ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

খেলার খবর



শীর্ষ সংবাদ: