২২ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট পূর্বের ঘন্টায়  
Login   Register        
ADS

বরিশালে বিদ্যুতের কম ভোল্টেজে অতিষ্ঠ গ্রাহক


স্টাফ রিপোর্টার, বরিশাল ॥ জেলা শহরসহ অধিকাংশ উপজেলায় পবিত্র রমজান মাসেও বিদ্যুতের অব্যাহত লোডশেডিংয়ের পাশাপাশি লো-ভোল্টেজের কারণে গ্রাহকরা অতিষ্ঠ হয়ে পড়েছেন। ইফতারি, তারাবির নামাজ ও সেহ্রিসহ দিনের অধিকাংশ সময় বিদ্যুত পাচ্ছেন না গ্রাহকরা। আর যেটুকু সময়ও বা পাওয়া যাচ্ছে তা লো-ভোল্টেজের কারণে ব্যবহার করা সম্ভব হচ্ছে না।

সূত্রমতে, দিনে ১০-১২ বার বিদ্যুত আসা-যাওয়ার ফলে গ্রামের তৃণমূল পর্যায়ের বসতবাড়িতে ব্যবহৃত ইলেকট্রনিক্সের মালামালের ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হলেও সংশ্লিষ্টদের কোন মাথা ব্যথাই নেই। এসব সমস্যা সম্পর্কে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের অবহিত করার পরও সমাধান না হওয়ায় গ্রাহকদের মাঝে তীব্র ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। বিদ্যুতের এ ভানুমতি খেলায় ভ্যাপসা গরমের মাঝে রোজাদার ব্যক্তিদের চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, চলতি মাসের শুরু থেকে জেলার গৌরনদী, আগৈলঝাড়া, উজিরপুর, বাবুগঞ্জ ও মুলাদী উপজেলায় বিদ্যুত সঙ্কট তীব্র আকার ধারণ করে, যার কারণে ভ্যাপসা গরমে অতিষ্ঠ হয়ে পড়েছে জনজীবন।

লো-ভোল্টের কারণে বৈদ্যুতিক মোটর না চলায় পাম্পনির্ভর বাসাবাড়িতে চলছে পানির জন্য হাহাকার। অধিকাংশ বাসাবাড়ির ফ্রিজ এখন অকেজো হয়ে পড়েছে। এর মধ্যে গৌরনদীর গেরাকুল গ্রামেরই প্রায় ২০টি ফ্রিজ নষ্ট হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। উপজেলার ভুক্তভোগীদের অভিযোগে জানা গেছে, দিনের অর্ধেকের বেশি সময় বিদ্যুত থাকে না। এছাড়া ইফতারি, তারাবির নামাজ ও সেহ্রির সময়ও বিদ্যুত না থাকায় ধর্মপ্রাণ রোজাদারদের চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। সন্ধ্যার পর ঘণ্টাখানেক বিদ্যুত সরবরাহের পরপরই চলে টানা লোডশেডিং, যা ২ থেকে ৩ ঘণ্টায়ও শেষ হয় না। গত কয়েক দিন ধরে রাতে কমপক্ষে ৬-৭ বার বিদ্যুতের ভেলকিবাজি ও লো-ভোল্টেজের কারণে জনজীবন অতিষ্ঠ হয়ে উঠেছে।