মেঘলা, তাপমাত্রা ৩১.১ °C
 
২১ আগস্ট ২০১৭, ৬ ভাদ্র ১৪২৪, সোমবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
সর্বশেষ

দেশে কোন জঙ্গী গোষ্ঠী নেই ॥ হানিফ

প্রকাশিত : ২৭ অক্টোবর ২০১৫

বিশেষ প্রতিনিধি ॥ আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল-আলম হানিফ বাংলাদেশে আইএসসহ কোন জঙ্গী গোষ্ঠীর অস্তিত্ব নেই দাবি করে বলেছেন, আন্তর্জাতিকভাবে বাংলাদেশের ভাবমূর্তি নষ্ট করার জন্য দেশী-বিদেশী একটি মহল পরিকল্পিতভাবে আইএসের ধুঁয়া তুলছে। বাস্তবে দেশে আইএসের কোন অস্তিত্ব নেই।

সোমবার বিকেলে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু এ্যাভিনিউয়ে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আওয়ামী যুবলীগের সঙ্গে এক মতবিনিময় সভায় তিনি এসব কথা বলেন। জেলহত্যা দিবস উপলক্ষে আগামী ২ নবেম্বর ঐতিহাসিক সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে আওয়ামী লীগের জনসভাকে সফল করতেই এই মতবিনিময় সভার আয়োজন করা হয়।

সভায় হানিফ আরও বলেন, দুই বিদেশী নাগরিক হত্যা, পুলিশের এএসআই হত্যা এবং পুরান ঢাকায় তাজিয়া মিছিলে হামলা মূলতঃ খালেদা জিয়ারই জঙ্গীবাদী তৎপরতার অংশ। এসব হত্যাকা- ও নাশকতামূলক কর্মকা-ের মাধ্যমে খালেদা জিয়া দেশের মধ্যে একটি অস্থিতিশীল পরিবেশ সৃষ্টি করে গণতন্ত্রের অভিযাত্রা ও উন্নয়নের অগ্রযাত্রা ব্যাহত করতে চায়।

এ সময় খালেদা জিয়া ও তার মিত্রদের এই ষড়যন্ত্র শক্তভাবে মোকাবেলা করার জন্য যুবলীগ নেতাকর্মীদের প্রতি আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, বাংলাদেশে কোন জঙ্গী সংগঠনের অস্তিত্ব নেই। জঙ্গী বলতে যা বোঝায় তা হলো বিএনপি-জামায়াতের কর্মকা-। আসলে দেশে বিএনপি-জামায়াতের বাইরে আর কোন জঙ্গী সংগঠন নেই। তিনি বলেন, বিদেশী নাগরিকদের হত্যাসহ কয়েকটি ঘটনার পর আইএস জড়িত বলে প্রচারণা চালানো হচ্ছে। আমরা বলছি, আইএস নেই; কিন্তু বাইরে থেকে জোর করে আইএস আছে বলে চাপিয়ে দিতে চাচ্ছে। এগুলো সরকারের বিরুদ্ধে আন্তর্জাতিক ষড়যন্ত্র।

হানিফ আরও বলেন, শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ যখন নিম্ন থেকে মধ্য আয়ের কাতারে প্রবেশ করে আরও সমৃদ্ধির পথে এগিয়ে যাচ্ছে, সারা বিশ্ব যখন রাষ্ট্রনায়ক শেখ হাসিনার নেতৃত্ব, দক্ষতা, যোগ্যতা ও প্রজ্ঞার স্বীকৃতি দিয়ে তাঁকে সম্মাননা জানাচ্ছে; ঠিক তখনই টিআইবিসহ কিছু প্রতিষ্ঠান এই সরকারের কোনো সফলতাই খুঁজে পাচ্ছে না। নানা ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হয়েছে।

আওয়ামী লীগের এই নেতা বলেন, টিআইবিসহ একটি মহল সরকারের বিরুদ্ধে নানা মিথ্যা তথ্য দিয়ে জনগণকে বিভ্রান্ত করার অপচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। এসব প্রতিষ্ঠান মূলত দেশের স্বাধীনতা, সার্বভৌমত্ব, গণতন্ত্র ও উন্নয়ন বিরোধীদের মদদে এগুলো করছে। এসব প্রতিষ্ঠানের আয়-ব্যয় ও কর্মকা- সম্পর্কে খোঁজখবর রাখা রাষ্ট্রের কর্তব্য।

মাহবুব-উল- আলম হানিফ বলেন, আওয়ামী লীগের সকল কর্মসূচী সফল করার ক্ষেত্রে যুবলীগ সব সময় অগ্রণী ভূমিকা পালন করে থাকে। আমি বিশ্বাস করি, আগামী ২ নবেম্বরের সমাবেশে যুবলীগ চেয়ারম্যানের নেতৃত্বে যুবলীগ নেতাকর্মীর ব্যাপক উপস্থিতির মধ্য দিয়ে সেই ধারাবাহিকতা রক্ষা হবে।

সংগঠনের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ ওমর ফারুক চৌধুরীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত মতবিনিময় সভায় উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক এ্যাডভোকেট আফজাল হোসেন, কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য আমিনুল ইসলাম আমিন, যুবলীগ সাধারণ সম্পাদক মোঃ হারুনুর রশীদ প্রমুখ।

প্রকাশিত : ২৭ অক্টোবর ২০১৫

২৭/১০/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

প্রথম পাতা



শীর্ষ সংবাদ: