মেঘলা, তাপমাত্রা ৩১.১ °C
 
২৭ সেপ্টেম্বর ২০১৭, ১২ আশ্বিন ১৪২৪, বুধবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
সর্বশেষ

বার কাউন্সিলের আনুষ্ঠানিক ফলে ১ পদ বাড়লো সরকার সমর্থকদের

প্রকাশিত : ৩ সেপ্টেম্বর ২০১৫, ১০:৫২ এ. এম.
বার কাউন্সিলের আনুষ্ঠানিক ফলে ১ পদ বাড়লো সরকার সমর্থকদের
  • *১৪ পদের ১১টিতে সমন্বয় পরিষদের জয়
  • ১৪ পদের ১১টিতে সমন্বয় পরিষদের জয়

স্টাফ রিপোর্টার ॥ আইনজীবীদের নিয়ন্ত্রক ও তদারক সংস্থা বাংলাদেশ বার কাউন্সিলের আনুষ্ঠানিক ফলাফলে আরো ১ পদ বেড়েছে আওয়ামী সমর্থক আইনজীবীদের মোর্চা সম্মিলিত আইনজীবী সমন্বয় পরিষদের (সাদা প্যানেল)। গত বুধবার (২৬ আগস্ট) অনুষ্ঠিত নির্বাচনের অনানুষ্ঠানিক ফলে দেখা গিয়েছিলো কাউন্সিলের ১৪ আসনের মধ্যে ১০টি পেয়েছিলেন তারা। তবে বৃহস্পতিবার ভোরে ঘোষিত আনুষ্ঠানিক ফলে দেখা গেছে ৫টি সাধারণ ও ৬টি গ্রুপ আসন মিলিয়ে ১১টি পেয়েছে সমন্বয় পরিষদ। অন্যদিকে, বিএনপি-জামায়াত সমর্থক নীল প্যানেল পেয়েছে ৩টি আসন। যার মধ্যে সাধারণ আসনে ২টি এবং গ্রুপ আসনে ১টি।

নিরুঙ্কুশ বিজয় পেয়ে বাংলাদেশে আইনজীবীদের তদারক সংস্থা বার কাউন্সিলের নিয়ন্ত্রণ পুনরুদ্ধার করেছে আওয়ামী লীগ সমর্থক আইনজীবীরা। গত তিন বছর বার কাউন্সিলের দায়িত্বে ছিলো বিএনপি-জামায়াত সমর্থকরা। গত ২৬ অগাস্ট ভোটের পর প্রাথমিক গণনাতেই সরকারসমর্থকদের জয়ের বিষয়টি নিশ্চিত হয়ে গিয়েছিল। রীতি অনুযায়ী বুধবার বার কাউন্সিলে সারা দেশের ৭৭ কেন্দ্র থেকে পাওয়া ফলাফল সিট গণনা শেষে বৃহস্পতিবার ভোরে আনুষ্ঠানিক এই ফল ঘোষণা করেন বার কাউন্সিল চেয়ারম্যান ও এ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম।

সমন্বয় পরিষদের নেতৃত্বে থাকা ব্যারিস্টার এম আমীর উল ইসলাম ১৪ হাজার ৪৩ ভোট, আবদুল বাসেত মজুমদার ১৫ হাজার ১০৯ ভোট, আবদুল মতিন খসরু ১৪ হাজার ৪২৪ ভোট, জেড আই খান পান্না ১৩ হাজার ৭৮ ভোট এবং শ ম রেজাউল করিম ১৩ হাজার ১৯২ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন।

নীল প্যানেল হিসেবে পরিচিত জাতীয়তাবাদী ঐক্য প্যানেলের প্রার্থীদের মধ্যে কেবল কাউন্সিলের বর্তমান ভাইস চেয়ারম্যান খন্দকার মাহবুব হোসেন ১৪ হাজার ২৫৯ ভোট এবং এম এম মাহবুব উদ্দিন খোকন ১৫ হাজার ৬৯ ভোট পেয়ে সদস্য নির্বাচিত হতে পেরেছেন।

কাউন্সিলের ১৪টি সদস্য পদের মধ্যে বাকি সাতটি পদে প্রতিনিধি নির্বাচিত হন অঞ্চলভিত্তিক আইনজীবী সমিতির সদস্যদের মধ্য থেকে। এর মধ্যে ছয়টিই জিতে নিয়েছে আওয়ামী লীগ সমর্থকরা।

সাদা প্যানেলের বিজয়ী এই ছয়জন হলেন- কাজী মোঃ নজীবুল্লাহ হিরু (গ্রুপ-এ), এইচ আর জাহিদ আনোয়ার (গ্রুপ-বি), মোঃ ইব্রাহীম হোসেন চৌধুরী (গ্রুপ-সি), পারভেজ আলম খান (গ্রুপ-ই), মোঃ ইয়াহিয়া (গ্রুপ-এফ) ও মোঃ রেজাউল করিম-১ (গ্রুপ-জি)। আর নীল প্যানেলের প্রার্থীদের মধ্যে ডি-গ্রুপ থেকে কেবল কাইমুল হক কাউন্সিলের সদস্য হতে পেরেছেন।

গত ২৬ অগাস্ট সারা দেশের ৭৭টি কেন্দ্রে একযোগে বার কাউন্সিল নির্বাচনের ভোট গ্রহণ হয়, যাতে ভোটার ছিলেন ৪৩ হাজার ৩০২ জন। এবার মোট ৬১ জন প্রার্থী নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন।

সরাসরি ভোটে নির্বাচিত এই ১৪ জন পরে নিজেদের মধ্যে ভোটাভোটি করে বার কাউন্সিলের নতুন ভাইস চেয়ারম্যান নির্বাচন করবেন। এ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম পদাধিকার বলে বার কাউন্সিলের চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পালন করেন।

প্রকাশিত : ৩ সেপ্টেম্বর ২০১৫, ১০:৫২ এ. এম.

০৩/০৯/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


শীর্ষ সংবাদ:
গন্তব্যে পৌঁছেছে পদ্মা সেতুর সুপার স্ট্রাকচারবাহী ভাসমান ক্রেন || শিক্ষা প্রতিষ্ঠান স্থাপনে বড় পরিবর্তন আসছে, আট সদস্যের কমিটি || আগামী বাজেট হবে সাড়ে চার লাখ কোটি টাকার ॥ অর্থমন্ত্রী || বিদ্যুতের দাম ইউনিট প্রতি ৭২ পয়সা বৃদ্ধির সুপারিশ || মাল্টিমিডিয়া ক্লাসরুমে পাঠদান চলছে জোড়াতালি দিয়ে || মংডুতে ৩ গণকবরের সন্ধান ॥ দুদিনে এসেছে আরও ২০ হাজার || বৃষ্টিতে ভিজছে শিশুরা, খাবার জোগাড়ে অনেকে নেমেছে ভিক্ষায় || চট্টগ্রাম বন্দরের বে টার্মিনাল নির্মাণে গতি সঞ্চার || আন্তর্জাতিক মানবপাচার চক্রের খপ্পরে ৫ শ’ তরুণ মেক্সিকো সীমান্তে || সব্যসাচী লেখক সৈয়দ হকের আজ প্রথম প্রয়াণবার্ষিকী ||