মেঘলা, তাপমাত্রা ৩১.১ °C
 
২২ আগস্ট ২০১৭, ৭ ভাদ্র ১৪২৪, মঙ্গলবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
সর্বশেষ

দুঃসময়ে মেসির পাশে সবাই

প্রকাশিত : ৮ জুলাই ২০১৫, ০৬:১০ পি. এম.

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ নিদারুণ দুঃসময়ে আছেন লিওনেল মেসি। জাতীয় দলের হয়ে সাফল্য না পাওয়ায় এবার তার নিজ দেশ আর্জেন্টিনায় চলছে সমালোচনার ঝড়। তবে এই হতাশার সময়ে মেসি পাশে পাচ্ছেন সবাইকে।

ফুটবলবিশ্বের সবখানেই এখন মেসিকে নিয়ে ছলছে কাটাছেঁড়া। কোপা আমেরিকার ফাইনালে চিলির কাছে হারের পর থেকে বাকি সবাইকে ছেড়ে আসামির কাঠগড়ায় দাঁড় করানো হয়েছে বার্সিলোনা তারকাকে! ব্রাজিল বিশ্বকাপের সময়ও একই দশা হয়েছিল চারবারের ফিফা সেরা ফুটবলারের। বিষয়টি এখন এমন যে, ‘যত দোষ নন্দ ঘোষ’।

আর্জেন্টিনা সর্বশেষ বড় শিরোপা জিতেছিল কোপা আমেরিকাতেই, ১৯৯৩ সালে। দীর্ঘ ২২ বছর পর সাফল্যের আশায় আর্জেন্টাইনরা তাকিয়েছিল মেসির দিকে। আবারও আশাভঙ্গের বেদনায় পুড়ে স্বাভাবিকভাবেই দিয়াগো ম্যারাডোনার দেশের মানুষ হতাশ। গত মৌসুমে বার্সিলোনার ট্রেবল জয়ের অন্যতম নায়ক নিজেও হতাশায় আচ্ছন্ন। ফাইনালে হারের দুদিন পর নিজের ফেসবুক পেজে মেসি লিখেছেন, ‘ফাইনালে হারের চেয়ে যন্ত্রণাদায়ক আর কিছু নেই। কিন্তু আমি সমর্থকদের ধন্যবাদ জানাতে চাই। তাঁরা সব সময় আমাদের সমর্থন দিয়েছেন এবং কঠিন সময়ে পাশে থেকেছেন।’

মেসি অনুতপ্ত, হতাশ হলে কি হবে। আর্জেন্টিনার জনগণ ঠিকই তার উপর ক্ষ্যাপা। দেশটির সংবাদমাধ্যমও তাঁকে যেন ধুয়ে দিচ্ছে। আর্জেন্টিনার জনপ্রিয় ক্রীড়াদৈনিক ওলের আশঙ্কা করে লিখেছে, আরেকটি ফাইনালে হারের হতাশার পর তীব্র সমালোচনার কারণে মেসি হয়তো জাতীয় দল থেকে কিছুদিন বিশ্রাম নিতে পারেন। অবশ্য এমন শঙ্কার কথা উড়িয়ে দিয়েছেন আর্জেন্টাইন ফুটবল অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি লুইস সেগুরা। দেশের সবচেয়ে বড় তারকাকে নিয়ে সমালোচনায় জবাব দিয়ে তিনি বলেন, ‘আমি কিছুতেই বুঝি না মানুষ কেন তার (মেসির) এত সমালোচনা করে। শিরোপা জিততে না পেরে সমর্থকদের মতো মেসিও অনেক কষ্ট পেয়েছে।’

আরও অনেকের মতো মেসির পাশে আছেন তার বাবা জর্জে মেসিও। নিন্দুকদের সমালোচনার জবাব দিতে গিয়ে জর্জে বলেছেন, ‘সবাই শুধু ব্যর্থতা বোঝে। আর তারা সেই দায় অন্যের ওপর চাপিয়ে দিতেও পারদর্শী। দুভার্গ্য, আমরা গঠনমূলক সমালোচনার চেয়ে কাউকে বিব্রত বা হেনস্তায় ফেলা যায় এমন নিন্দায় বেশি ব্যস্ত থাকি।

প্রকাশিত : ৮ জুলাই ২০১৫, ০৬:১০ পি. এম.

০৮/০৭/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


শীর্ষ সংবাদ: