২৩ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট ৬ ঘন্টা পূর্বে  
Login   Register        
ADS

২৩ বছরে নর্থসাউথ ইউনিভার্সিটি


১৯৯২ সালে মাত্র ১৩৭ জন শিক্ষার্থী নিয়ে যাত্রা শুরু করে দেশের প্রথম বেসরকারী বিশ্ববিদ্যালয় নর্থ-সাউথ ইউনিভার্সিটি। সম্প্রতি এ বিশ্ববিদ্যালয় পদার্পণ করেছে ২৩ বছরে। গত ২২ বছরে প্রতিষ্ঠিত হয়েছে ৮১টি বেসরকারী বিশ্ববিদ্যালয়। এ পথ পরিক্রমায় দেশের বেসরকারী বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার মান নিয়ে চলেছে নানা বিতর্ক। কিন্তু এ ক্ষেত্রে ব্যতিক্রম এ বিশ্ববিদ্যালয়। ১৩৭ জনের সেই প্রতিষ্ঠানে শিক্ষার্থী এখন ২০ হাজারেরও বেশি।

সম্প্রতি প্রতিষ্ঠানিটির কর্ণধাররা পরিদর্শন করেছেন পৃথিবীখ্যাত অনেক বিশ্ববিদ্যালয়। এছাড়াও একাডেমিক ও গবেষণা বিষয়ে চুক্তি স্বাক্ষর করেছেন নেপালে অবস্থিত বিখ্যাত প্রতিষ্ঠান ত্রিভুবন বিশ্ববিদ্যালয় ও ভুটানের রয়েল ইউনিভার্সিটি অব ভুটানের সঙ্গে। ট্রাস্টি বোর্ডের চেয়ারম্যান বেনজীর আহমেদ আন্তর্জাতিক মানসম্পন্ন শিক্ষা প্রদানের অঙ্গীকার পুনর্ব্যক্ত করে বলেন, শিক্ষার মান নিয়ে আমরা কোন আপোস করি না। আমাদের প্রতিষ্ঠানে শিক্ষার্থীদের জন্য সর্বোচ্চ শিক্ষার সুযোগ নিশ্চিত করতে চাই। এ শিক্ষা হবে অবশ্যই আন্তর্জাতিক মানের। বিদেশে গিয়ে উচ্চশিক্ষা নিতে হবে না। সেই মানের শিক্ষা ইতোমধ্যে আমরা নিশ্চিত করেছি। তবে শিক্ষার সুযোগকে আরও বিস্তৃত করতে চাই আমরা। ট্রাস্টি বোর্ডের সাবেক চেয়ারম্যান ও বর্তমান সদস্য মো. শাহজাহান বলেন, শিক্ষার্থীরা আসেন মানসম্মত শিক্ষার জন্য। মা-বাবাও চান তার সন্তান সর্বোচ্চ মানের শিক্ষা গ্রহণ করুক। আমরা ইতোমধ্যেই আন্তর্জাতিক মানসম্পন্ন শিক্ষা নিশ্চিত করেছি।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আইবিএ’র পর আধুনিক ব্যবসায় শিক্ষাদানের ক্ষেত্রে অবস্থান রয়েছে এনএসইউর-ই। তাদের দেখানো পথ ধরেই পরবর্তীতে বাংলাদেশে আধুনিক ব্যবসায় শিক্ষার কাঠামো চালু হয়েছে অনেকগুলো পাবলিক এবং প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয়ে। নর্থ আমেরিকান কারিকুলামের প্রথম শিক্ষা কাঠামো এই বিশ্ববিদ্যালয়টি চালু করে বাংলাদেশে। প্রাপ্তির হিসেবেও প্রতিষ্ঠানটির অবস্থান অনেক ওপরে। এসেছে দেশ এবং বিদেশের নানা সম্মানজনক পুরস্কার। বাণিজ্য অনুষদের এসিবিএসপি স্বীকৃতির জন্য মনোনয়ন অর্জন করে গেল বছর। যদিও পার্শ্ববর্তী ভারতের অনেক উচ্চশিক্ষা প্রতিষ্ঠান ইতোমধ্যে এসিবিএসপি অর্জন করেছে। তবু দেশে এ অর্জন বেসরকারী বিশ্ববিদ্যালয়ের জন্য উদাহরণ। প্রতিষ্ঠানটির আজকের এই অবস্থানের পেছনে রয়েছে একদল শিক্ষকের অক্লান্ত পরিশ্রম। প্রতিষ্ঠানটির সকল শিক্ষকই দেশ এবং বিদেশের শ্রেষ্ঠ বিশ্ববিদ্যালয় থেকে অধ্যয়ন করেছেন। দেশের বেসরকারী বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্যে সবচেয়ে বেশি পিএইসডি ডিগ্রীধারী শিক্ষক শিক্ষার্থীদের পড়ালেখা করাচ্ছেন এই প্রতিষ্ঠানেই। এ ব্যাপারে ট্রাস্টি বোর্ডের চেয়ারম্যান বেনজীর আহমেদ বলেন, দেশে তো বটেই, উপমহাদেশেও বেসরকারী খাতে পরিচালিত বাংলাদেশের সেরা নর্থ-সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়। এই বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রাস্টি বোর্ডে যেমন আছেন দেশের খ্যাতিমান শিল্পপতি ও নিবেদিত শিক্ষানুরাগীরা, তেমনি শিক্ষাদান করেন বিশ্বের খ্যাতিমান শিক্ষকরা। তিনি আরও বলেন, এ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষা কারিকুলামও উন্নত বিশ্বের খ্যাতিমান বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর সমপর্যায়ের, যা বাংলাদেশের ভবিষ্যত প্রজন্মকে বিশ্ব চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করে দেশ পরিচালনার যোগ্য নাগরিক হিসেবে গড়ে তুলতে কার্যকর ভূমিকা রাখছে।