ঢাকা, বাংলাদেশ   বৃহস্পতিবার ২৫ জুলাই ২০২৪, ১০ শ্রাবণ ১৪৩১

সল্ট ঝড়ে স্বরূপে ইংলিশরা

স্পোর্টস রিপোর্টার

প্রকাশিত: ০০:৫৪, ২১ জুন ২০২৪

সল্ট ঝড়ে স্বরূপে ইংলিশরা

ওপেনিংয়ে নেমে ৪৭ বলে অপরাজিত ৮৭ রানের ম্যাচজয়ী ইনিংস খেলে মাঠ ছাড়ছেন ইংলিশ তারকা ফিল সল্ট

বৃষ্টিতে স্কটল্যান্ড ম্যাচ পরিত্যক্ত হওয়ার পর অস্ট্রেলিয়ার কাছে বড় হারÑ গ্রুপ পর্বে শুরুতেই খাদের কিনারায় চলে গিয়েছিল ইংল্যান্ড। ‘ডিফেন্ডিং’ চ্যাম্পিয়নদের জন্য সেরা আটের টিকিট হয়ে উঠেছিল অনিশ্চিত। ওমান এবং নামিবিয়ার বিপক্ষে দাপুটে জয়ের পরও জস বাটলারদের ভাগ্য ঝুলছিল অন্য ম্যাচের ওপর। অসিরা যেখানে স্কটিসদের উড়িয়ে দিলে ‘বি’ গ্রুপের দ্বিতীয় দল হিসেবে সুপার এইটে উঠে আসে থ্রি লায়ন্সরা। আর সুপার এইটে ইংলিশদের ‘আসল’ তেজ টের পেল ওয়েস্ট ইন্ডিজ। ৮ উইকেটের বড় জয়ের পথে ক্যারিবীয়দের ¯্রফে উড়িয়ে দিল বর্তমান চ্যাম্পিয়নরা।

সেন্ট লুসিয়ায় ৪ উইকেটে ১৮০ রান তুলেছিল রোভমান পাওয়েলের উইন্ডিজ। জবাবে ১৭.৩ ওভারে ২ উইকেট হারিয়ে জয়ের বন্দরে পৌঁছে যায় ইংল্যান্ড। ৪৭ বলে ৭ চার ও ৫ ছক্কায় অপরাজিত ৮৭ রানের ঝড়ো ইনিংস খেলে ম্যাচসেরা ফিল সল্ট। ২৬ বলে ৫ চার ও ২ ছক্কায় জনি বেয়ারস্টো অপরাজিত ৪৮ রানে।
গ্রুপ-পর্বে তিন ম্যাচে সল্ট আউট হয়েছিলেন ৩৭, ১২ ও ১১ রানে, বেয়ারস্টো ৭, অপরাজিত ৮ ও ৩১। সেই তারাই জ্বলে উঠলেন মোক্ষম সময়ে। চলতি বিশ্বকাপে একের পর এক ম্যাচে বোলাররা যেভাবে দাপট দেখিয়ে আসছিলেন, কন্ডিশন যেভাবে ব্যাটারদের জন্য শত্রু হয়ে উঠছিল, তাতে ১৮১ মোটেই সহজ লক্ষ্য ছিল না। কিন্তু গত কয়েক বছরে আগ্রাসী ব্যাটিংয়ের পসরা নিয়ে হাজির হওয়া ইংলিশরা এদিন শুরু থেকেই ছিল স্বচ্ছন্দ। সপ্তম ওভারে ৬৭ রান তুলে নেন দুই ওপেনার সল্ট ও বাটলার।

২২ বলে ২৫ রান করে অধিনায়ক বাটলার সাজঘরে ফেরার পর মঈন আলিও বেশিক্ষণ টিকতে পারেননি। এরপরই শুরু সল্ট-বেয়ারস্টো শো। তৃতীয় উইকেটে মাত্র ৪৪ বলে অবিচ্ছিন্ন ৯৭ রানের জুটি গড়ে জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে এ জুটি। টি২০ ক্যারিয়ারে আগে থেকেই ওয়েস্ট ইন্ডিজকে পেলেই পেয়ে বসেন সল্ট। ক্যারিবীয়দের বিপক্ষে প্রতি চার বলে একটি করে বাউন্ডারি (৪ কিংবা ৬) হাঁকিয়েছেন তিনি।

এখন পর্যন্ত উইন্ডিজদের সঙ্গে ৯ ইনিংসে ২ হাফ সেঞ্চুরি ও ২ সেঞ্চুরিতে ৬৮.২৮ গড় এবং ১৮৬.৭১ স্ট্রাইকরেটে সল্ট ৪৭৮ রান করেছেন। যা ইংল্যান্ড-ক্যারিবীয়দের মুখোমুখি লড়াইয়ে কোনো ক্রিকেটারের ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ রান। তিনি এই কীর্তি গড়েছেন ৯ ইনিংসে। প্রতিপক্ষ হিসেবে ক্যারিবীয়রা ইংলিশ ওপেনারের কতটা প্রিয় এটা যেন তারই নজির। 
সল্টের এই অপরাজিত ৮৭ টি২০ বিশ্বকাপে ইংলিশদের হয়ে করা চতুর্থ সর্বোচ্চ রানের ইনিংস। ২০২২ আসরে ৮৬ রানের ইনিংস খেলেছিলেন অ্যালেক্স হেলস। ইংল্যান্ড ব্যাটারদের মধ্যে বিশ্বকাপে সর্বোচ্চ ব্যক্তিগত রানের ইনিংসও হেলসের। ২০১৪ আসরে তিনি ১১৬ রান করেন শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে।  এদিন সল্ট ছক্কা হাঁকিয়েছেন ৫টি। সবমিলিয়ে উইন্ডিজদের বিপক্ষে টি২০ তার ছক্কা সংখ্যা ৩২। যা ইংলিশ ব্যাটার হিসেবে কোনো নির্দিষ্ট প্রতিপক্ষের সঙ্গে সর্বোচ্চ ছক্কার রেকর্ড। ৮ উইকেটের এই জয় টি২০ বিশ্বকাপে ইংলিশদের যৌথভাবে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ব্যবধানে জয়।

২০২২ আসরে তারা ভারতকে ১০ উইকেটে সবচেয়ে বড় ব্যবধানে হারানোর কীর্তি গড়েছিল। এ ছাড়া ৮ উইকেটে জিতেছে আরও তিনবার। ২০২১ বিশ্বকাপে অস্ট্রেলিয়া, একই আসরে বাংলাদেশ এবং চলতি টুর্নামেন্টে ওমানকেও হারিয়েছে একই ব্যবধানে। বিপরীতে ওয়েস্ট ইন্ডিজের জন্য বড় ধাক্কা অবশ্যই। এই ম্যাচের আগে পর্যন্ত টানা আটটি টি২০তে জিতেছিল তারা। যা তাদের টানা সবচেয়ে বেশি জয়ের রেকর্ড।

ইংলিশরা সেই কীর্তি থামিয়ে দেয় এদিন। এর আগে ২০১২-১৩ মৌসুমে ৭, ২০১৭ সালে ৫টি। দারুণ এই জয়ে সল্ট-বেয়ারস্টোর পাশাপাশি বোলারদেরও প্রশংসা করেছেন অধিনায়ক বাটলার। আলাদা করে প্রশংসা করেছেন লেগস্পিনার আদিল রশিদের।
ভারতে গত বছর ওয়ানডে বিশ্বকাপটা মোটেই ভালো কাটেনি আগেরবারের (২০১৯) চ্যাম্পিয়ন ইংল্যান্ডের। চাপের মুখে এবার টি২০ বিশ্বকাপের শিরোপা ধরে রাখার মিশনে গ্রুপ-পর্বের ব্যর্থতা কাটিয়ে সময় মতো জ্বলে উঠল ইংলিশরা। আজ দ্বিতীয় ম্যাচে তাদের প্রতিপক্ষ দক্ষিণ আফ্রিকা। জিতলেই সেমির পথে অনেক দূর এগিয়ে যাবে বাটলারের দল।

×