ঢাকা, বাংলাদেশ   বৃহস্পতিবার ২৯ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১৬ ফাল্গুন ১৪৩০

১৫ বছর পর ইংল্যান্ডকে হারাল উইন্ডিজ

​​​​​​​স্পোর্টস রিপোর্টার

প্রকাশিত: ২২:৪২, ১০ ডিসেম্বর ২০২৩

১৫ বছর পর ইংল্যান্ডকে হারাল উইন্ডিজ

ট্রফি হাতে অধিনায়ক শাই হোপ

গতবারের চ্যাম্পিয়ন ইংল্যান্ডের জন্য এবারের বিশ্বকাপটা ছিল দুঃস্বপ্নের মতো। নয় ম্যাচের ছয়টিতে হার, এর একটি আবার আফগানিস্তানের কাছে- গ্রুপ পর্ব থেকেই বিদায় নেয় জস বাটলারের দল। সাবেক দুইবারের চ্যাম্পিয়ন ওয়েস্ট ইন্ডিজ তো ভারত বিশ্বকাপে খেলার যোগ্যতাই অর্জন করতে পারেনি, বাদ পড়েছে বাছাই টুর্নামেন্ট থেকে। এমন দুটি দলের দ্বৈরথ ঘিরে ক্রিকেটপ্রেমীদের আগ্রহ না থাকলেও ব্যর্থতা ঝেরে দল দুটির জন্য ঘুরে দাঁড়ানো ছিল বিশেষ গুরুত্বপূর্ণ। যেখানে -১এ সাফল্যের পথে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে দীর্ঘ ১৫ বছর পর ওয়ানডে সিরিজ জিতল শাই হোপের ওয়েস্ট ইন্ডিজ, নিজেদের মাটিতে ২৫ বছর পর! ব্রিজটাউনে ফয়সালার তৃতীয় ম্যাচে তারা সফরকারীদের হারিয়েছে উইকেটে। বৃষ্টিতে ৪০ ওভারে নেমে আসা ম্যাচে উইকেটে ২০৬ রান করে ইংল্যান্ড। জবাবে ৩১. ওভারে উইকেট হারিয়ে লক্ষ্যে পৌঁছে যায় উইন্ডিজ। অভিষেকেই ম্যাচসেরা ম্যাথু ফর্ড।  

ইংল্যান্ডের প্রথম তিন ব্যাটসম্যানকেই আউট করেন ফোর্ড। একে একে সাজঘুরে ফেরান ফিল সল্ট, উইলজ্যাকস জ্যাক ক্রাউলিকে। ম্যাচে ২১ বছর বয়সী ডানহাতি মিডিয়াম পেসারের বোলিং বিশ্লেষণ --২৯-৩। পরে রান তাড়ায় রোমারিও শেফার্ডের সঙ্গে গড়েন ৫৬ রানের অবিচ্ছিন্ন ম্যাচ জেতানো জুটি। সেই জুটিতে অবশ্য আসল কাজটি করেন শেফার্ডই। ২৮ বলে ৪১ রানের ইনিংস খেলে অপরাজিত থাকেন তিনি। ফর্ড অপরাজিত থাকেন ১৩ রান করে। সর্বোচ্চ স্কোরার অবশ্য কেসি কার্টি ৫০, ওপেনার আলিক আথান্স ৪৫। ইংল্যান্ডের পক্ষে সর্বোচ্চ ৭১ রান করেন বেন ডাকেট, লিয়াম লিভিংস্টোন ৪৫। ২১ বছর বয়স। ঘরোয়া ক্রিকেটে খুব বেশি ম্যাচ খেলার অভিজ্ঞতা আছে, তা নয়। ম্যাথু ফর্ড লিস্ট ম্যাচসহ খেলেছেন ১২টি আর সব মিলিয়ে টি২০ খেলেছেন ১৮টি। ঘরের মাঠে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অভিষেক, গ্যালারিতে বাবা-মা পরিজন। প্রথম ওভারেই উইকেটের স্বাদ, একটু পর শিকার আরও দুই উইকেট। এরপর রান তাড়ায় বাট হাতে অবদান, দলের জয়কে সঙ্গী করে ফেরা। ম্যাচ জয়ের সঙ্গে সিরিজ জয়েরও স্বাদ। আর কী লাগে! অভিষেকে ম্যান অব ম্যাচ হয়ে ম্যাথু ফোর্ড নিজেই অভিভূত, ‘পর্দার আড়ালে অনেক কঠিন পরিশ্রম করেছি। ক্যাম্পে কঠিন অনুশীলন করেছি। স্বপ্ন সত্যি হয়েছে, আমার জন্য বিশেষ কিছু। সবাইকে ধন্যবাদ এটা সম্ভব করার জন্য। ঘরের মাঠের দর্শকদের সামনে, মা-বাবার সামনে...এটা হৃদয়গ্রাহী।

ম্যাচ হেরে হতাশ ইংল্যান্ড অধিনায়ক বাটলার দূষছেন দ্রুত উইকেট হারানোকে, ‘ব্যাট হাতে কিছু রান কম করেছি। ৪০ রানে উইকেট হারানো আমাদের বড় ধাক্কা দিয়েছে। মাঠ অনেক ভেজা ছিল, বল হাতে আমরা ভালোই করেছি। স্পিনাররা খেলায় ফিরিয়েছিল। ছেলেদের জন্য দীর্ঘ যাত্রার এটা মাত্র শুরু। আশা করছি, ভবিষ্যতের জন্য কিছু গড়তে পারব।ওয়েস্ট ইন্ডিজ ইংল্যান্ডের বিপক্ষে এর আগে শেষ ওয়ানডে সিরিজ জিতেছিল ২০০৭ সালে, ইংল্যান্ড সফরে ন্যাটওয়েস্ট সিরিজে জিতেছিল - ব্যবধানে, ক্রিস গেইলের নেতৃত্বে। ঘরের মাটিতে তারও আগে, ১৯৯৮ সালে -১এ, ব্রায়ান লারার নেতৃত্বে।

 

×