ঢাকা, বাংলাদেশ   রোববার ২৩ জুন ২০২৪, ৯ আষাঢ় ১৪৩১

বোরখা পড়ে নারী সেজে  চুরি করার সময় কিশোর আটক  

অনলাইন রিপোর্টার 

প্রকাশিত: ২২:১৯, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২৩

বোরখা পড়ে নারী সেজে  চুরি করার সময় কিশোর আটক  

চুরি করার সময় আটক কিশোর

বোরখা পড়ে নারী সেজে ঢাকা মেডিকেলে চুরি করার সময় এক কিশোরকে আটক করেছে হাসপাতালের আনসার সদস্যরা। তবে তাকে আটকের পর পুলিশের কাছে সোপর্দ না করে আনুমানিক ২০ ঘণ্টা আটকে রাখার অভিযোগ ওই আনসার সদস্যদের বিরুদ্ধে।

এবিষয়ে ঢাকা মেডিকেলের আনসারের প্লাটুন কমান্ডার (পিসি) উজ্জ্বল বেপারী জানান, রবিবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে হাসপাতালের নতুন ভবনের ৮০১ নম্বর ওয়ার্ডের সামনে থেকে কৌশলে এক নারীর ভ্যানিটি ব্যাগ হাতিয়ে নেয় বোরখা পড়া ওই কিশোর। একপর্যায়ে ওই নারী সন্দেহ হলে বোরকা পড়া ওই কিশোরকে ধরে ফেলে। তখন সেখানকার আনসার সদস্যরা তাকে হেফাজতে নেয়। বোরখা খুলে দেখা যায়, সে ছেলে। এরপর থেকে ওই কিশোর আমাদের হেফাজতেই ছিল।

তিনি জানান, ওই কিশোরের কাছ থেকে তার বাড়ির ঠিকানা নিয়ে পরিবারের সাথে যোগাযোগ করা হয়। তার পরিবার আসবে আসবে বলে প্রায় ২০ ঘণ্টা অতিক্রম হলেও কেউ না আসায় সোমবার হাসপাতালের পুলিশ ক্যাম্পে তাকে হস্তান্তর করা হয়।

এদিকে ঢাকা মেডিকেল পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ (ইন্সপেক্টর) মো. বাচ্চু মিয়া জানান, রবিবার রাত সাড়ে ৮টা দিকে হাসপাতালে নতুন ভবনের ৮০১ নম্বর ওয়ার্ডের সামনে থেকে আনসার সদস্য ওই কিশোরকে আটক করে। এসময় সে কালো বোরখা পড়া ছিলো। আটকের পর তাকে আনসার সদস্যদের হেফাজতে নেয়।

তিনি বলেন, আটকের ২০ ঘন্টা পর আজ সোমবার সন্ধ্যায় ওই কিশোরকে তারা আমাদের কাছে নিয়ে আসে। কিশোরের কাছ থেকে জানা গেছে, তাকে আনসার সদস্যরা লাঠি দিয়ে মারধর করেছে।

আটক হওয়া ওই কিশোর নিজে জানায়, তার বাড়ি নারায়ণগঞ্জের নিমতলা এলাকায়। ৫০০ টাকা দিয়ে বোরখা কিনে সেইটা পড়ে সে হাসপাতালে ঘুরে ঘুরে চুরির চেষ্টা করে। রবিবার রাতে চুরি করার সময় আনসার সদস্যরা তাকে ধরে তাদের হেফাজতে রাখে। সেখানে লাঠি দিয়ে তার পায়ে অনেক আঘাত করে আনসার সদস্যরা।

এদিকে হাসপাতালটির পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মো. নাজমুল হক জানান, বোরখা পড়ে চুরি করার সময় এক কিশোরকে আনসার সদস্যরা আটক করে পুলিশের কাছে হস্তান্তর করেছে। বিস্তারিত পুলিশ তদন্ত করছে।

এস

×