ঢাকা, বাংলাদেশ   শুক্রবার ১৪ জুন ২০২৪, ৩০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

গিলে ফেলা আস্ত মোবাইল যেভাবে বের করলেন চিকিৎসকরা 

প্রকাশিত: ১৩:১৫, ২৯ মে ২০২৩

গিলে ফেলা আস্ত মোবাইল যেভাবে বের করলেন চিকিৎসকরা 

এন্ডোস্কোপিতে পেটে ধরা পড়ে মোবাইল।

প্রচন্ড পেট ব্যথার অভিযোগ নিয়ে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে একজন কয়েদি পুলিশের সঙ্গে উস্পস্থিত হলে চিকিৎসককে জানায় ৭ দিন আগে সে মোবাইল গিলে ফেলেছে।

চিকিৎস পরিক্ষা-নিরিক্ষা করার পর রিপোর্টে পেটে মোবাইলের হদিস পাওয়া যায়। এরপর দ্রুত অপারেশনের জন্য তাকে হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়।

সাধারণত এ ধরনের কোনো কিছু পেট কেটে বের করা হয়। তাই পেট কাটার আগে এন্ডোস্কোপি নামক একটি গুরুত্বপূর্ণ পরীক্ষা করা হয়। তাতে দেখা যায়, মোবাইলটা পেটের ভেতর দুই ভাগ হয়ে আছে। এরপর পেট না কেটেই এন্ডোস্কোপির কিছু বিশেষ পদ্ধতি অনুসরণ করে মোবাইলটি বের করে আনতে সক্ষম হন কর্তব্যরত চিকিৎসকরা। কিন্তু ব্যাটারি কোথায়? 

পরে রোগী জানালেন ব্যটারি পায়খানার সঙ্গে বের হয়ে গেছে। যেহেতু রোগী একজন কয়েদি, তাই মোবাইল টা বের করার পর একটা জীবাণুমুক্ত ব্যাগে তুলে সেটা হাসপাতালে সার্জারি ডিপার্টমেন্ট প্রধান প্রফেসর ডা. সালমা সুলতানার হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে।  

এভাবেই দক্ষতার সঙ্গে পেট না কেটেই এন্ডোস্কোপি করে মোবাইল বের করেন সার্জারী বিভাগের ডা. মাশফিক আহমেদ ভুঁইয়া। 

এমএইচ

×