ঢাকা, বাংলাদেশ   মঙ্গলবার ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১২ আশ্বিন ১৪২৯

চালের দাম কমানোসহ তিন বিষয়ে জোর

মূল্যস্ফীতি নিয়ন্ত্রণে নতুন কৌশল

এম শাহজাহান

প্রকাশিত: ২২:৩২, ১৮ আগস্ট ২০২২

মূল্যস্ফীতি নিয়ন্ত্রণে নতুন কৌশল

কাওরানবাজারে ডিম ও মুরগির আড়তে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণের অভিযান

সব ধরনের জ্বালানি তেলের দাম বাড়ার নেতিবাচক প্রভাব পড়তে শুরু করেছে নিত্যপণ্যের বাজারেখাদ্যপণ্যের পাশাপাশি বেড়ে যাচ্ছে ব্যবহার্য জিনিসপত্রের দামজীবনযাত্রার ব্যয় বেড়ে যাচ্ছেকষ্ট বাড়ছে নিম্ন ও মধ্যম আয়ের মানুষেরএ অবস্থায় পণ্যমূল্য স্বাভাবিক রাখতে মূল্যস্ফীতি নিয়ন্ত্রণের উপায় খুঁজছে সরকারবিশেষ করে গরিব মানুষ যাতে আরও গরিব না হয়ে পড়েন সে বিষয়টি বিবেচনায় নিয়ে নতুন কর্মকৌশল নির্ধারণ করছে অর্থ মন্ত্রণালয়চালের দাম কমিয়ে আনা, কৃষি উপাদন বাড়ানো এবং সামাজিক

নিরাপত্তা জোরদার করে গরিব মানুষের ক্রয় ক্ষমতা বাড়ানোর মতো কর্মসূচী গ্রহণ করা হবেখবর সংশ্লিষ্ট সূত্রের

জানা গেছে, জ্বালানি তেলের দাম বৃদ্ধির কারণে ভর্তুকির পরিমাণ কিছুটা কমে আসার সম্ভাবনা তৈরি হলেও মূল্যস্ফীতি নিয়ন্ত্রণ কঠিন হয়ে পড়ছেচলতি ২০২২-২৩ অর্থবছরে মূল্যস্ফীতি ৫ দশমিক ৬ শতাংশের মধ্যে রাখার লক্ষ্যমাত্রা থাকলেও সেটি আর সম্ভব হচ্ছে নাএতে করে জীবনযাত্রার ব্যয় বেড়ে দিশাহারা মানুষএ কারণে অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি নিয়েও এ মুহূর্তে ভাবা হচ্ছে নাযদিও চলতি বাজেটে ৭ দশমিক ৫ শতাংশ প্রবৃদ্ধি অর্জনের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছেসংশ্লিষ্ট সূত্র জানিয়েছে, জ্বালানি তেলের দাম বৃদ্ধির প্রভাব দীর্ঘমেয়াদী হওয়ার আশঙ্কা রয়েছেআগামী ৯ মাসের মধ্যে পরিস্থিতি উন্নতি হওয়ার কোন সম্ভাবনা দেখা যাচ্ছে নাএ কারণে গরিব মানুষের কথা চিন্তা করে স্বল্পমেয়াদী বেশকিছু কর্মসূচী গ্রহণ করা হবে

এসব কর্মসূচীর বেশির ভাগ চলতি বাজেটে ঘোষণা করা হয়েছেআবার নতুন কিছু কর্মসূচী এতে যুক্ত করা হবেনাম প্রকাশে অনিচ্ছুক অর্থ মন্ত্রণালয়ের একজন শীর্ষ কর্মকর্তা এ প্রসঙ্গে জনকণ্ঠকে বলেন, সামাজিক নিরাপত্তার আওতায় যারা রয়েছেন তাদের আরও দ্রুত সেবা প্রদানে আন্তরিক সরকারবিশেষ করে যেসব ভাতা বিদ্যমান রয়েছে সেগুলো আরও বাড়ানো হবেসারাদেশে ১৫ টাকা কেজির চাল বিতরণ কার্যক্রম জোরদার করা, নগদ সহায়তা প্রদান, খোলা বাজারে চাল বিক্রি (ওএমএস) কার্যক্রম বাড়ানো, সরকারী বাজার নিয়ন্ত্রণকারী সংস্থা-টিসিবির ফ্যামিলি কার্ডে নি¤œ মধ্যবিত্তদের নিয়ে আসা, ভোগ্যপণ্যের ব্যবসায়ীদের কারসাজি বন্ধে সিন্ডিকেট ভেঙ্গে দেয়া, বাজারে অভিযান পরিচালনা করা, ভোজ্যতেল, চাল, পেঁয়াজ, ডিম ও ব্রয়লার মুরগির দাম কমানোর মতো পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবেজ্বালানি তেলের দাম বৃদ্ধি করার পরই এ বিষয়ে অর্থ মন্ত্রণালয়ের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা বৈঠক করেছেনবিষয়টি অর্থমন্ত্রীর নজরে আনা হয়েছেশীঘ্রই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে মূল্যস্ফীতি নিয়ন্ত্রণের কৌশল সংক্রান্ত একটি প্রতিবেদন উপস্থাপন করা হবেতিনি বলেন, প্রবৃদ্ধি নিয়ে এখন ভাবা হচ্ছে নাএ সময়ে মূল্যস্ফীতি নিয়ন্ত্রণকে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়ে দেখা হচ্ছেএদিকে, অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল জানিয়েছেন, জ্বালানি তেলের দাম বৃদ্ধির ফলে মূল্যস্ফীতি বাড়ছে

তবে মূল্যস্ফীতি নিয়ন্ত্রণ বা জিনিসপত্রের দাম যাতে সাধারণ মানুষের নাগালের মধ্যে থাকে সেই কৌশল গ্রহণ করা হবেপ্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পরামর্শে এ বিষয়ে শীঘ্রই একটি কৌশল নির্ধারণ করবে অর্থ মন্ত্রণালয়চলতি বাজেট বক্তৃতায়ও অর্থমন্ত্রী জানিয়েছিলেন, চাহিদা ও সরবরাহের মধ্যে অসঙ্গতি রোধের মাধ্যমে মূল্যস্ফীতি নিয়ন্ত্রণে সরকার বদ্ধপরিকরমূল্যস্ফীতির কারণসমূহের মধ্যে রয়েছে-বাণিজ্য সহযোগীদের মূল্যস্ফীতি বৃদ্ধি, জ্বালানি তেলের মূল্যবৃদ্ধি, ডলারের বিপরীতে টাকার মূল্য হ্রাস, বৈশ্বিক সরবরাহ ব্যবস্থার প্রতিবন্ধকতা এবং রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধ, বিষয়গুলোর সরকারের নিয়ন্ত্রণের বাইরেএছাড়া মূল্যস্ফীতি যাতে নিয়ন্ত্রণের মধ্যে রাখা যায় সেজন্য বেসরকারী খাতে ঋণপ্রবাহ বাড়ানোতিনি আরও জানান, চলতি বাজেটে মূল্যস্ফীতি নিয়ন্ত্রণের মূল কৌশল হবে বিদ্যমান চাহিদার প্রবৃদ্ধি কমিয়ে সরবরাহ বাড়ানো

এদিকে, বাংলাদেশ ব্যাংকের তথ্যমতে, গত মার্চের তুলনায় সাড়ে ২৬ শতাংশ কমেছে ঋণপত্র খোলা, বিপরীতে বেড়েছে রফতানি ও প্রবাসী আয়আর এতে আগামী দুই মাসের মধ্যে অর্থনৈতিক চাপ অনেকাংশেই কেটে যাওয়ার আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন কেন্দ্রীয় ব্যাংকের নতুন গবর্নর আবদুর রউফ তালুকদারকেন্দ্রীয় ব্যাংক বলছে, অর্থপাচার বন্ধসহ বাজারে টাকার জোগান বাড়াতে নজর রাখা হচ্ছেগবর্নর জানান, সবচেয়ে বড় চাপ আমদানিএর পাশাপাশি মূল্যস্ফীতিও বড় চ্যালেঞ্জতবে আগামী দুতিন মাসের মধ্যে মূল্যস্ফীতি পরিস্থিতি ভাল অবস্থানে যাবেবিশ্ব মন্দার জেরে অভ্যন্তরীণ অর্থনীতির চাপ কমাতে বাজারে চাহিদা নিয়ন্ত্রণ, ডলারসহ টাকার সরবরাহ বৃদ্ধির মাধ্যমে শক্তিশালী অর্থনীতির ভিত গড়ার লক্ষ্যে কাজ শুরু হয়েছেআর এতেই আমদানিতে ঋণপত্র খোলা কমে দাঁড়িয়েছে ৬ বিলিয়নে, বিপরীতে প্রবাসী আয় ও রফতানি বেড়ে সব মিলিয়ে ৬ দশমিক ১ বিলিয়ন ছাড়িয়েছেঅর্থ বিশেষজ্ঞরাও বলছেন, মূল্যস্ফীতি নিয়ন্ত্রণে রাখাই বর্তমান বড় চ্যালেঞ্জইতোমধ্যে অর্থনীতিতে নতুন চাপ হিসেবে দেখা দিয়েছে এই সূচকতিন মাস ধরে মূল্যস্ফীতির হার ৮ শতাংশের বেশিচাল, ডাল, আটা, ময়দা, তেল সব নিত্যপণ্যই বেশি দামে কিনে খেতে হচ্ছেমূল্যস্ফীতির হার বাড়লে দারিদ্র্য সীমার একটু ওপরে থাকা মানুষের একটি অংশ আবার গরিব হয়ে যাওয়ার আশঙ্কায় থাকে

মূল্যস্ফীতির চাপে সাধারণ মানুষ কোভিড-১৯ পরিস্থিতির রেশ না কাটতেই রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধ বিশ্ব অর্থনীতিকে টালমাটাল করে দিয়েছেগত দুবছরেরও বেশি সময় ধরে মূল্যস্ফীতির জাঁতাকলে পিষ্ট হচ্ছে সাধারণ মানুষবিশেষ করে ভোগ্য ও নিত্যপণ্যের দাম বাড়ার কারণে কষ্ট বেড়েছে বেশিরভাগ মানুষেরআয় না বাড়লে জীবন বাঁচাতে বেশি মূল্য দিয়ে খাদ্যপণ্য কিনতে হচ্ছেজীবনযাত্রার ব্যয় বেড়েছে কয়েকগুণএ অবস্থায় নতুন করে সব ধরনের জ্বালানি তেলের দাম বাড়ানোর ফলে মূল্যস্ফীতি আরও উস্কে যাবে বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরাবাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরোর (বিবিএস) হিসেবে তিন মাস ধরে মূল্যস্ফীতি ৭ শতাংশের ওপরে রয়েছেএ হার গত ৮ থেকে ৯ বছরের মধ্যে সর্বোচ্চসর্বশেষ জুলাইয়ে পয়েন্ট টু পয়েন্ট মূল্যস্ফীতি হয়েছে ৭ দশমিক ৪৮ শতাংশএর মধ্যে খাদ্যসূচকে মূল্যস্ফীতি হয়েছে ৮ দশমিক ১৯ শতাংশখাদ্যসূচকে গত বছরের একই মাসের চেয়ে বেড়েছে ৩ দশমিক ১১ শতাংশীয় পয়েন্টআর জুলাইয়ে খাদ্যবহির্ভূত সূচকে ৬ দশমিক ৩৯ শতাংশ মূল্যস্ফীতি হয়েছেএ সূচকে এক বছরে বেড়েছে মাত্র ৪৯ শতাংশীয় পয়েন্ট

জ্বালানি তেল ও পরিবহন ভাড়া খাদ্যবহির্ভূত সূচকের মধ্যে পড়েফলে এখন এ সূচকে বাড়তি চাপ তৈরি হবে, পাশাপাশি খাদ্যের দামও বাড়বে জ্বালানি তেলের কারণেফলে সার্বিক মূল্যস্ফীতির হার আরও বেড়ে যাওয়ার শঙ্কা  তৈরি হয়েছেযদিও চলতি বাজেটে ৫ দশমিক ৫ শতাংশের ঘরে মূল্যস্ফীতির হার রাখার ঘোষণা দিয়েছেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামালকিন্তু জ্বালানি তেল ও সারের মূল্য বাড়ানো হয়েছেএছাড়া সামনের দিনগুলোতে বিদ্যুত ও গ্যাসের মূল্যবৃদ্ধির আভাস সব মিলে মূল্যস্ফীতি ৫ দশমিক ৫ শতাংশের ঘরে থাকবে নাএছাড়া ইউক্রেন-রাশিয়া যুদ্ধে সৃষ্ট বৈশ্বিক সঙ্কটের কারণে এমনিতে মূল্যস্ফীতির রের্কড সৃষ্টি হয়েছেপ্রতিটি পণ্যের দাম বেড়েছেখাদ্য, পরিবহন ও বাসস্থান এ তিনটি ছাড়া মানুষ চলতে পারে নাজ্বালানি তেলের মূল্যবৃদ্ধির কারণে প্রতিটি খাদ্য পণ্যের দাম বাড়বেবাড়বে পরিবহন সেবার মূল্য এবং বাসস্থান ব্যয়ওসব মিলে মূল্যস্ফীতির হার আরও বাড়বেএ প্রসঙ্গে বিআইডিএসের সাবেক মহাপরিচালক এমকে মুজেরি বলেন, জ্বালানি তেলের মূল্যবৃদ্ধির বিরূপ প্রভাব সবকিছুর ওপর পড়বেপরিবহন খরচ ও পণ্যের দাম বাড়বেফলে আগামী দিনগুলোতে মূল্যস্ফীতি আরও বাড়বেতিনি বলেন, জ্বালানি তেলের মূল্যবৃদ্ধির কয়েক দিন আগে সারের মূল্য বাড়ানো হয়এতে কৃষিতে উপাদন খরচ বাড়বেবিশেষ করে বোরো  মৌসুমে এর বিরূপ প্রভাব পড়বেনিত্যপণ্যের দাম বৃদ্ধির কারণে মূল্যস্ফীতি হবে

এছাড়া জ্বালানি তেলের এই মূল্যবৃদ্ধির ফলে দেশে প্রায় সব ধরনের পণ্যের উপাদন ও পরিবহন ব্যয় বাড়বে, যার প্রভাবে খরচ বাড়বে সাধারণ মানুষেরসড়ক ও নৌপথে যাত্রী ও পণ্য পরিবহনে এবং কৃষি, শিল্প ও বিদ্যুত উপাদনে সবচেয়ে বেশি প্রভাব পড়বেএর ফলে বাস-লঞ্চ ভাড়ার পাশাপাশি তেলচালিত যানবাহনের খরচ বাড়বেসেচে খরচ বাড়ায় শস্য ফলনের ক্ষেত্রে বাড়তি ব্যয় হবে কৃষকেরশিল্প এবং বিদ্যুত খাতে নতুন খরচ যোগ হওয়ার ফলে বিভিন্ন পণ্য ও সেবার দামও বাড়বেকোভিডের পর সাধারণ মানুষের আয় কমেছেবেড়েছে দরিদ্র মানুষের সংখ্যাবেসরকারী কয়েকটি গবেষণার পক্ষ থেকে দাবি করা হয়েছে করোনার কারণে গত দুবছরে প্রায় ৩ কোটি মানুষ নতুন করে দরিদ্র হয়েছেনএমন অবস্থায় সীমিত আয়ের মানুষ শুধু মাসিক খরচই কমায়নি, সঞ্চয়ও ভেঙ্গে ভেঙ্গে খাচ্ছেনচাকরিজীবী ও ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীদের অনেকে ঋণগ্রস্ত হয়েছেন বা তাদের ঋণ বেড়েছেবিশেষজ্ঞরা বলছেন, মূল্যস্ফীতি নিয়ন্ত্রণে অভ্যন্তরীণ বাজারে কঠোর তদারকি করে দেশে উপাদিত পণ্যের মূল্যবৃদ্ধি ঠেকানো সম্ভবপ্রয়োজন চালের দাম সহনীয় রাখতে বাজার কৌশল নির্ধারণ করা, পাশাপাশি মূল্যস্ফীতির চাপে সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত গরিব মানুষদের বাজেটের মাধ্যমে নগদ ও খাদ্য সহায়তা দিয়ে সুরক্ষা দিতে হবে