ঢাকা, বাংলাদেশ   বৃহস্পতিবার ০৬ অক্টোবর ২০২২, ২০ আশ্বিন ১৪২৯

নেপাল ট্র্যাজেডি

আজ বাসার সামনেই প্রিয়ক ও তার কন্যা প্রিয়ন্ময়ীর দাফন

প্রকাশিত: ০৮:১৮, ২০ মার্চ ২০১৮

আজ বাসার সামনেই প্রিয়ক ও তার কন্যা প্রিয়ন্ময়ীর দাফন

স্টাফ রিপোর্টার, গাজীপুর ॥ নেপালে ইউএস বাংলা বিমান বিধ্বস্তের ঘটনায় নিহত এফএইচ প্রিয়ক ওরফে ফারুক হোসেন ও তার শিশু কন্যা প্রিয়ন্ময়ী তামারার লাশ তাদের গ্রামের বাড়িতে পৌঁছেছে। সোমবার রাত আটটার দিকে কফিনবন্দী লাশ দুটি একটি এ্যাম্বুলেন্সে করে শ্রীপুর উপজেলার নগর হাওলা গ্রামে পৌঁছে। এর আগে স্বামী সন্তানের দাফন অনুষ্ঠানের জন্য দুপুরে প্রিয়কের আহত স্ত্রী এ্যানিকে কর্তৃপক্ষের অনুমতি নিয়ে ঢাকা মেডিক্যাল থেকে অপর একটি এ্যাম্বুলেন্সে করে বাড়ি নিয়ে আসেন স্বজনরা। এদিন স্বামী-সন্তানের মৃত্যুর সংবাদটি প্রথমবারের মতো এ্যানিকে জানানো হয়। মঙ্গলবার জানাজা শেষে প্রিয়কের বাসার সামনে প্রিয় ফুলের বাগানে প্রিয়ক ও তার শিশু কন্যাকে পাশাপাশি দাফন করা হবে। নিহত প্রিয়কের চাচাত ভাই লুৎফর রহমান জানান, নেপাল ট্র্যাজেডিতে নিহত হন নগর হাওলা গ্রামের ফারুক হোসেন প্রিয়ক ও তার শিশু সন্তান প্রিয়ন্ময়ী তামারা। এ ঘটনায় প্রিয়কের স্ত্রী এ্যানি এবং প্রিয়কের মামাত ভাই স্থানীয় ব্যবসায়ী মেহেদী হাসান ও মেহেদীর স্ত্রী সাঈদা কামরুন নাহার স্বর্ণা আহত হন। নিহত প্রিয়ক ও তার শিশু কন্যা প্রিয়ন্ময়ীর তামারার লাশ বাড়িতে পৌঁছার খবর পেয়ে স্বজন ও এলাকাবাসী ভিড় জমায়। এ সময় অনেকে কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন। আজ সকাল নয়টায় আবদুল আউয়াল কলেজ মাঠে ও বেলা এগারোটায় মাতবরবাড়ি মাঠে জানাজা হবে। প্রিয়কের মায়ের ইচ্ছানুযায়ী জানাজা শেষে বাসার সামনে বেলকুনির পাশে প্রিয় ফুলের বাগানে তাদের দাফন করা হবে। দাফন কার্যক্রম শেষে এ্যানিকে চিকিৎসার জন্য পুনরায় হাসপাতালে ফেরত নেয়া হবে।