ঢাকা, বাংলাদেশ   বুধবার ০৫ অক্টোবর ২০২২, ১৯ আশ্বিন ১৪২৯

দুদকের হয়রানির শিকার আবাসন খাত

প্রকাশিত: ০৫:৫৬, ২৬ অক্টোবর ২০১৬

দুদকের হয়রানির শিকার আবাসন খাত

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ আবাসন খাত দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) হয়রানির শিকার হচ্ছে বলে অভিযোগ করেছে রিহ্যাব। সংগঠনটি বলছে, প্রতিদিন গড়ে ৩টি করে চিঠি আসছে দুদক থেকে। বিভিন্ন ব্যক্তি সম্পর্কে তারা তথ্য চাচ্ছে। এতে আমাদের সমস্যা না হলেও গ্রাহকদের মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ছে। আমরা ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছি। মঙ্গলবার রাজধানীর হোটেল সোনারগাঁওয়ে রিয়েল এস্টেট এ্যান্ড হাউজিং এ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (রিহ্যাব) আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলা হয়। সংগঠনটির ২৫ বছর পূর্তি উপলক্ষে এ সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়। সংবাদ সম্মেলনে বলা হয়, দেশের আবাসন খাতে ব্যাংকে পড়ে থাকা অলস টাকার ব্যবহার বাড়াতে হবে। কারণ এ খাতে বিনিয়োগ করলে জিডিপির প্রবৃদ্ধি বাড়বে। কর্মসংস্থান বাড়বে। দ্রুত উন্নয়ন ঘটবে। দুদকের কার্যক্রম অন্যভাবে করতে হবে জানিয়ে বলা হয়, আবাসন খাতে বিনিয়োগ করলে কোন প্রশ্ন করা হবে না বলে জাতীয় সংসদ থেকে আইন করা হয়েছে। কিন্তু দুদকের কারণে কেউ বিনিয়োগে সাহস করছে না। তারা বলেন, দুদক তাদের কাজ করবে। এটা আমরাও চাই। কিন্তু কাউকে অহেতুক হয়রানি নয়। কেবল চিঠি দিয়ে আতঙ্ক সৃষ্টি করলে দেশের টাকা বিদেশে যাবে, টাকা লুকানোর কৌশল রপ্ত করবে মানুষ। আগে সরকারী প্রতিষ্ঠানে দুর্নীতি কমানোরও আহ্বান জানান তারা। সংবাদ সম্মেলনে বলা হয়, সমস্যায় জর্জরিত দেশের আবাসন খাত। নানা কারণে আবাসন খাত এখন সঙ্কটের মধ্যে দিয়ে যাচ্ছে। এ জন্য আবাসন ব্যবসায়ীদের সংগঠন রিহ্যাবের সদস্য সংখ্যা কমে যাচ্ছে। এর পেছনে বিনিয়োগ পরিবেশ না থাকা, মূল্যস্ফীতি, দুদকের হয়রানি ও জমি সঙ্কটকে দায়ী করা হয়েছে। সংবাদ সম্মেলনে রিহ্যাব প্রেসিডেন্ট আলমগীর শামসুল আল-আমিন বলেন, গত কয়েক দশক ধরে সহজে গ্রাহকদের হাতে ফ্ল্যাট তুলে দিতে সচেষ্ট রয়েছে রিহ্যাব। এছাড়া রাজস্ব আয়, কর্মসংস্থান, রড-সিমেন্টসহ ২৬৯টি লিংকেজ শিল্পের প্রসার করে সমগ্র নির্মাণ খাতে জাতীয় প্রবৃদ্ধিতে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রেখে আসছে। দেশের অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধিতে আবাসন খাতের অবদান ১৫ শতাংশ। দেশের প্রবৃদ্ধি গতিশীল রাখতে আবাসন খাত চাঙা থাকা আবশ্যক। আবাসন খাত চাঙা রাখতে সরকারের আরও সহযোগিতার প্রত্যাশা করেন রিহ্যাব প্রেসিডেন্ট। সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন রিহ্যাব সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট নূরন্নবী চৌধুরী শাওন, ভাইস প্রেসিডেন্ট লিয়াকত আলী ভূঁইয়া, প্রকৌশলী সরদার মোঃ আমিন প্রমুখ। সাংবাদিক কল্যাণ ট্রাস্টে মাছরাঙা টিভির ৩ কোটি টাকা অনুদান বেসরকারী টেলিভিশন চ্যানেল মাছরাঙা টিভি মঙ্গলবার বাংলাদেশ সাংবাদিক কল্যাণ ট্রাস্টে ৩ কোটি টাকা অনুদান প্রদান করেছে। মাছরাঙা টিভির ব্যবস্থাপনা পরিচালক অঞ্জন চৌধুরী পিন্টু প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে তাঁর কার্যালয়ে অনুদানের টাকার চেক হস্তান্তর করেন। প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সচিব ইহসানুল করিম এ কথা বলেন। খবর বাসস’র। সাংবাদিকদের কল্যাণের জন্য প্রধানমন্ত্রীর উদ্যোগে এই ট্রাস্ট গঠন করা হয়। সরকার এই ট্রাস্ট থেকে দেশের অসচ্ছল সাংবাদিকদের নিয়মিত অর্থ সাহায্য প্রদান করে আসছে। একাধিক অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী মিডিয়া মালিকদের এই ট্রাস্টে দান করার জন্য এগিয়ে আসার আহ্বান জানিয়েছেন। তাঁর এই আহ্বানে সাড়া দিয়ে মাছরাঙা টিভি ট্রাস্টকে ৩ কোটি টাকা দান করেছে।