ঢাকা, বাংলাদেশ   বুধবার ১৭ এপ্রিল ২০২৪, ৩ বৈশাখ ১৪৩১

নিউজিল্যান্ডে মহান শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত

প্রকাশিত: ২১:১৬, ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৪

নিউজিল্যান্ডে মহান শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত

শহীদ বেদীতে পুষ্পমাল্য অর্পণ করা হয়। 

বঙ্গবন্ধু পরিষদ নিউজিল্যান্ডের উদ্যোগে বুধবার (২১ ফেব্রুয়ারি) মহান শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত হয়েছে। এ উপলক্ষে বঙ্গবন্ধু পরিষদ নিউজিল্যান্ডের অস্থায়ী কার্যালয়ের প্রাঙ্গনে পড়ন্ত বিকেলে এক বিশেষ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। 

নিউজিল্যান্ড বঙ্গবন্ধু পরিষদের সভাপতি ড. মো. আব্দুর রশিদের সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক প্রকৌশলী আফজালুর রহমান রনির সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানের শুরুতেই সমবেত কণ্ঠে জাতীয় সংগীত পরিবেশন এবং শহীদ বেদীতে পুষ্পমাল্য অর্পণ করা হয়। 

মহান একুশে ফেব্রুয়ারির ভাষা শহীদ, বাংলাদেশের মুক্তি সংগ্রামের সকল শহীদ এবং মহান মুক্তিযুদ্ধের বীর শহীদদের আত্মার মাগফেরাত কামনা করে মোনাজাত করেন নিউজিল্যান্ডের অকল্যান্ডে বাংলাদেশ সরকারের অনারারি কনসাল প্রকৌশলী সফিকুর রহমান ভূঁইয়া (অনু)।

আলোচনা ও সাংস্কৃতিক পর্বে কবিতা আবৃত্তি করেন ডাক্তার তাপস বড়ুয়া। মূল আলোচনা পর্বে বক্তব্য প্রদান করেন জনাব জাকির হোসেন, ডা. তাপস বড়ুয়া, শেখর গোমেজ, ডা. আবুল কাশেম, সারমেন সেরেন রদ্রিক্স, মাহবুবা আজিজ খান এবং নিউজিল্যান্ডের অকল্যান্ডে বাংলাদেশের অনারারি কনসাল প্রকৌশলী সফিকুর রহমান ভূঁইয়া (অনু)। বক্তারা প্রবাসে এবং দেশে মাতৃভাষার  শুদ্ধ চর্চার উপর গুরুত্ব প্রদান করেন। বাংলা ভাষার সঠিক চর্চা পরবর্তী প্রজন্মকে বাংলা সংস্কৃতি, মাটি এবং মানুষের সাথে যুক্ত রাখবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন। বক্তারা একুশের চেতনায় গর্বিত জাতি হিসেবে বঙ্গবন্ধু কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে ক্ষুধা মুক্ত দারিদ্র্যমুক্ত উন্নত সমৃদ্ধ অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশ বিনির্মাণের সংগ্রামে যথাযত ভূমিকা রাখার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন।

সমাপনী বক্তৃতায় অনুষ্ঠানের সভাপতি ড. মো. আব্দুর রশিদ ভাষা আন্দোলনের সকল পর্যায়ে বঙ্গবন্ধুর ঐতিহাসিক ভূমিকা এবং অবদান স্মরণ করেন। ১৯৪৭ থেকে ১৯৫২এর ২১ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু কিভাবে কারাবন্দি থেকে কিংবা কারাগারের বাইরে থেকে রাষ্ট্রভাষা আন্দোলনকে সক্রিয় অংশগ্রহণ, পরামর্শ ও নির্দেশনা দিয়ে বেগবান করেছেন, তথ্যের ভিত্তিতে ড. রশিদ তা তুলে ধরেন। পরিশেষে ১৯৭১ সালের একুশে ফেব্রুয়ারি কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে দেওয়া বঙ্গবন্ধুর ঐতিহাসিক ভাষণ পরিবেশন করা হয়।

অনুষ্ঠান আয়োজনে সার্বিক সহায়তায় ছিলেন সৈয়দ জি এম জুলফিকার হায়দার, মির্জা রাকিব এবং শামামা শাহরিন। অনুষ্ঠানে  নিউজিল্যান্ড বাংলাদেশ কমিউনিটির বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ, তাদের পরিবার এবং নতুন প্রজন্মের বাংলাদেশিরা উপস্থিত ছিলেন

এম হাসান

×