ঢাকা, বাংলাদেশ   মঙ্গলবার ১৬ এপ্রিল ২০২৪, ৩ বৈশাখ ১৪৩১

অতীতে অসংখ্যবার ভূমিকম্প হয়েছিল

তুরস্কে ভূমিকম্প হলেই মারা যায় হাজার হাজার মানুষ

প্রকাশিত: ১৯:৪৮, ৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৩

তুরস্কে ভূমিকম্প হলেই মারা যায় হাজার হাজার মানুষ

ভূমিকম্পে ধ্বংসস্তূপে রুপ নিয়েছে

পৃথিবীর অন্যতম সক্রিয় ভূমিকম্প প্রবণ অঞ্চলগুলোর মধ্যে তুরস্কও রয়েছে। দেশটির ৯৫ শতাংশ এলাকা ভূমিকম্পপ্রবণ। দেশটিতে ভূমিকম্প হলেই হাজার হাজার মানুষের মৃত্যু ঘটে বলে পূর্ব ইতিহাস থেকে জানা যায়। গতকাল সোমবারও তুরস্কে ভয়াবহ ভূমিকম্প হয়। তবে এটিই প্রথম নয়, আগেও বহুবার দেশটিতে শক্তিশালী ভূমিকম্পের ঘটনা ঘটেছিল।

১১৫ খ্রিস্টাব্দে তুরস্কে ভূমিকম্পে প্রায় আড়াই লক্ষ মানুষ মারা গিয়েছিলেন। রিখটার স্কেলে যার কম্পনের মাত্রা ছিল। আর ১৫০৯ সালের ১০ সেপ্টেম্বর ভূমিকম্পের ফলে তুরস্কে প্রাণ হারিয়েছিলেন দশ হাজার জন।

১৬৫৩ সালের ২৩ ফেব্রুয়ারি ‌ভূমিকম্পে তুরস্কে প্রায় আড়াই হাজার মানুষ নিহত হয়েছিলেন। রিখটার স্কেলে এই কম্পনের মাত্রা ছিল ৭.৫। ১৬৮৮ খ্রিস্টাব্দের ১৩ জুলাই ভূমিকম্পে কেঁপে উঠেছিল তুরস্ক। ফলে প্রায় ১০ হাজার তুরস্কবাসী প্রাণ হারিয়েছিলেন।  

তুরস্কের এরজিনকানে ১৭৮৪ সালের ২৩ জুলাই ভূমিকম্পের ফলে মারা গিয়েছিলেন ৫ হাজার জন। কারও কারও মতে ওই ভূমিকম্পে ১০ হাজার মানুষের মৃত্যু হয়। ১৭৬৬ সালের ২২ মে তুরস্কে ৪ হাজার জন ভূমিকম্পে মারা যান।

১৮৪০ সালের ২ জুলাই তুরস্কে ভূমিকম্পে নিহত হয়েছিলেন প্রায় ১০ হাজার মানুষ। রিখটার স্কেলে এই কম্পনের মাত্রা ছিল ৭.৪। ১৮৮১ সালের ৩ এপ্রিল ভূমিকম্প হয়েছিল তুরস্কে। ফলে প্রাণ হারিয়েছিলেন ৭ হাজার ৮৬৬ জন। ঠিক তার দু’বছর পর ১৮৮৩ সালের ১০ অক্টোবর তুরস্কে ভূকম্পের ফলে মারা গিয়েছিলেন ১২০ জন। রিখটার স্কেলে কম্পনের মাত্রা ছিল ৭.৩। ১৮৯৯ সালের ২০ সেপ্টেম্বর ভূকম্পে প্রাণ হারিয়েছিলেন ১৪৭০ জন তুরস্কবাসী। ১৮৯৪ সালের ১০ জুলাই তুরস্কে ভূমিকম্পের ফলে মারা যান এক হাজার ৩০০ জন।

১৯৩০ সালের ৭ মে ভূমিকম্পে তুরস্কে মারা গিয়েছিলেন আড়াই হাজার মানুষ। রিখটার স্কেলে এই কম্পনের মাত্রা ছিল ৭.৫। আর ১৯৩৯ সালে তুরস্কে ভয়াবহ ভূমিকম্প হয়েছিল। রিখটার স্কেলে মাত্রা ছিল ৭.৮। এই ভূকম্পে ৩২ হাজার ৭০০ জন মারা গিয়েছিলেন।

১৯৪২ সালের ২৯ ডিসেম্বর ভূমিকম্পে ৩ হাজার জন মারা গিয়েছিলেন তুরস্কে। ১৯৪৩ সালের ২৬ নভেম্বর ভূমিকম্পের ফলে তুরস্কে প্রাণ হারিয়েছিলেন ৫ হাজার মানুষ। রিখটার স্কেলে এই কম্পনের মাত্রা ছিল ৭.৫। পরের বছরের ১ ফেব্রুয়ারি তুরস্ক ফের ভূমিকম্পের সম্মুখীন হয়। রিখটার স্কেলে কম্পনের মাত্রা ছিল ৭.৫। এই ঘটনায় ৪ হাজার মানুষ মারা গিয়েছিলেন।

১৯৯৯ সালের ১৭ অগস্ট তুরস্কের ইজমিটে ভূমিকম্পের ফলে মারা যান ১৭ হাজারেরও বেশি মানুষ। রিখটার স্কেলে এই কম্পনের মাত্রা ছিল ৭.৬। ১৯৭৬ সালের ২৪ নভেম্বর তুরস্কে ভূমিকম্পে মারা গিয়েছিলেন ৪ হাজার জন। রিখটার স্কেলে এই কম্পনের মাত্রা ছিল ৭.৫। এছাড়াও দেশটিতে আরও ভূমিকম্পের ঘটনা ঘটেছিল। যেখানে সব সময়ই লাশের সারি থাকতোই। 

এদিকে, সর্বশেষ গতকাল সোমবার ভোররাতে গাজিয়ানটেপের কাছে ৭.৮ মাত্রার ভূমিকম্প আঘাত হানে। এর ১২ ঘণ্টা পর ৭.৫-মাত্রার আরও একটি ভূমিকম্প হয়। এ ঘটনায় দেশটিতে এখন পর্যন্ত প্রায় ৪ হাজার মানুষ মারা গেছেন। সময়ের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে মৃতের সংখ্যা ক্রমেই বাড়ছে। 


 

 

এমএইচ

×