ঢাকা, বাংলাদেশ   সোমবার ২৮ নভেম্বর ২০২২, ১৪ অগ্রাহায়ণ ১৪২৯

monarchmart
monarchmart

দ্রুতগামী ট্রেন ‘বন্দে ভারত এক্সপ্রেস’ দিবে বিমানে চড়ার অনুভূতি

প্রকাশিত: ১৮:২৪, ৪ অক্টোবর ২০২২; আপডেট: ১৮:৪৪, ৪ অক্টোবর ২০২২

দ্রুতগামী ট্রেন ‘বন্দে ভারত এক্সপ্রেস’ দিবে বিমানে চড়ার অনুভূতি

বন্দে ভারত এক্সপ্রেস ট্রেন উদ্বোধন

তৃতীয় বন্দে ভারত এক্সপ্রেসের সেমি-হাইস্পিড ট্রেন পরিষেবা চালু হয়ে গেছে। শুক্রবার (৩০ সেপ্টেম্বর) ট্রেনটির উদ্বোধন করেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।

গুজরাটের গান্ধীনগর থেকে মুম্বাই পর্যন্ত ছুটবে এই ট্রেন। আগের দুইটি বন্দে ভারত এক্সপ্রেসের তুলনায় এই নতুন ট্রেনটি প্রযুক্তিগতভাবে অনেকটাই উন্নত এবং হালকা বলে জানিয়েছে ভারতীয় রেল কতৃপক্ষ। এই ট্রেনের গতিও অনেক বেশি।

এই মুহূর্তে বন্দে ভারত এক্সপ্রেসকে দেশের দ্রুততম ট্রেন বলা হয়। দিল্লি থেকে বারাণসী রুটে এই ট্রেন প্রথম চালু হয়েছিল ২০১৯ সালের ১৫ ফেব্রুয়ারি।

রেল কর্মকর্তাদের দাবি, নতুন বন্দে ভারত ট্রেনে চড়লে যাত্রীরা বিমানে ওড়ার মতো অনুভূতি পাবেন। ট্রেনটির গতি এতই বেশি যে, তাকে ট্রেন বলে মনেই হবে না।

১৬ কামরার এই ট্রেনের গতি ঘণ্টায় ১৬০ কিলোমিটার।  এই ট্রেনে যাত্রীদের আরামের ব্যবস্থাও আগের দুইটি ট্রেনের চেয়ে উন্নত করা হয়েছে।

এই ট্রেনে রয়েছে ‘কবচ’ প্রযুক্তি। এর মাধ্যমে দুর্ঘটনা এড়ানো যাবে বলে দাবি করেছে রেল কর্তৃপক্ষ। দুই ট্রেনের মুখোমুখি সংঘর্ষ কিংবা অন্য বিপদ এড়ানো যেতে পারে ‘কবচ’ প্রযুক্তির সাহায্যে। ট্রেনটির শৌচাগারগুলিতে বিমানের মতো ব্যবস্থা থাকবে। 

বিশেষভাবে সক্ষমদের জন্য থাকবে আলাদা শৌচাগার। দৃষ্টিহীন যাত্রীদের কথা ভেবে এই ট্রেনের আসনের পাশে ব্রেইলে লেখা হয়েছে আসন সংখ্যা। বন্যার পানিতে যাতে বন্দে ভারত এক্সপ্রেসের কোনও ক্ষতি না হয়, তার জন্য ট্রেনে রাখা হয়েছে বিশেষ ব্যবস্থা। ট্রেনের নীচে থাকা যন্ত্রপাতিগুলি বন্যার ফলে জমা পানিতেও সুরক্ষিত থাকবে।

সূত্র: আনন্দবাজার পত্রিকা

এসআর

সম্পর্কিত বিষয়:

monarchmart
monarchmart