ঢাকা, বাংলাদেশ   বুধবার ১৭ এপ্রিল ২০২৪, ৩ বৈশাখ ১৪৩১

১১৭ ওষুধের দাম বাড়েনি ॥ ঔষধ প্রশাসন 

ওষুধ ও হার্টের রিংয়ের দাম কমাতেই হবে ॥ স্বাস্থ্যমন্ত্রী

স্টাফ রিপোর্টার

প্রকাশিত: ০০:১০, ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৪

ওষুধ ও হার্টের রিংয়ের দাম কমাতেই হবে ॥ স্বাস্থ্যমন্ত্রী

ডা. সামন্ত লাল সেন

স্বাস্থ্যমন্ত্রী ডা. সামন্ত লাল সেন বলেছেন, হৃদরোগীদের জীবনদায়ী চিকিৎসা সামগ্রী করোনারি স্টেন্টের (হার্টের রিং) দাম কমাতে হবে। একইসঙ্গে ওষুধের দাম কমানোর কথা বলেছেন তিনি।
মঙ্গলবার সচিবালয়ে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ে হৃদরোগীদের স্টেন্ট দাম নিয়ে এক বৈঠক শেষে তিনি সাংবাদিকদের এ কথা বলেন। স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, ওষুধ ও হার্টের রিং উভয়ের দাম নির্ধারণেই বৈঠকে বসেছে। তবে দাম কমাতেই হবে। 
তবে যেসব ওষুধ না খেলে মানুষ মারা যেতে পারে, সেই ১১৭টি ওষুধের দাম এক পয়সাও বাড়ানো হয়নি বলে দাবি করেছেন ওষুধ প্রশাসন অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মেজর জেনারেল মোহাম্মদ ইউসুফ। তবে এর বাইরে ডলারের সঙ্গে সমন্বয় করে কিছু ওষুধের দাম বাড়ানো হয়েছে বলে জানান তিনি।  
মোহাম্মদ ইউসুফ বলেন, বর্তমানে ডলারের দাম বেড়ে গেছে। আর ওষুধের কাঁচামাল বিদেশ থেকে আনতে হয়। সেই অনুযায়ী, কিছু দামে সমন্বয় করা হয়েছে। তবে অত্যাবশ্যকীয় ওষুধের দাম এক পয়সাও বাড়ানো হয়নি। ১১৭টি ওষুধের দাম সরকার আগে যা ঠিক করে রেখেছিল, সেগুলো আমরা কঠোরভাবে নিয়ন্ত্রণ করেছি। তবে যেসব পণ্য আমরা বিদেশ থেকে আনি, সেগুলোর দাম বেড়ে যাওয়ায় উৎপাদন খরচ বেড়ে গেছে। সে ক্ষেত্রে কিছু সমন্বয় করা হয়েছে। তবে স্বাভাবিকভাবে বেশি বাড়তে দেওয়া হয়নি।
তিনি বলেন, কিছু নতুন নতুন ওষুধ এসেছে। সেগুলোর দাম বাড়ছে, আমি স্বীকার করি। তবে সেটা ডলারের দামের সঙ্গে সমন্বয় করে। এর বাইরে কোনো ওষুধের দাম বৃদ্ধির সুযোগ আমরা দেইনি। এ সময়ে স্ট্যান্টের দাম বর্তমানে কত আছে, জানতে চাইলে স্বাস্থ্য সচিব জাহাঙ্গীর আলম বলেন, গতবছরের ১২ ডিসেম্বর যেটা ঠিক করা হয়েছে, সেটাই থাকবে।
কেউ দাম বাড়িয়ে বিক্রি করলে কী ব্যবস্থা নেওয়া হবে, প্রশ্নে তিনি বলেন, এখানে ভ্রাম্যমাণ আদালতের ব্যবস্থা আছে। আইনে শাস্তির ব্যবস্থা আছে। কার্ডিয়াক সেন্টারের বিশেষজ্ঞরা আজকের বৈঠকে ছিলেন, তাদেরও অনুরোধ করেছি মনিটরিং করতে। কারণ সরকারের একার পক্ষে সব কিছু করা সম্ভব হবে না। এটা আমাদের সবার সম্মিলিত প্রয়াস লাগবে।
ওষুদের দাম চল্লিশ শতাংশ বেড়েছে, এ নিয়ে প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, এটা কোনো কোনো ক্ষেত্রে সঠিক, কোনো ক্ষেত্রে সঠিক না। সঠিক না এ কারণে যে কিছু কিছু ওষুধের দাম নির্ধারণ করে দেওয়া আছে। কিছু কিছু ওষুধের দাম  ফ্লেক্সিবল (নমনীয়) আছে। সেটার দাম নির্ধারণে আজ আমরা বৈঠক করতে পারিনি। তবে খুবই অল্প সময়ের মধ্যে বৈঠক করে এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।

×