ঢাকা, বাংলাদেশ   মঙ্গলবার ২১ মে ২০২৪, ৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

শিকড়ের গানে কাজী শুভ

নুরুল ইসলাম

প্রকাশিত: ০০:৪৫, ১৬ মে ২০২৪

শিকড়ের গানে কাজী শুভ

কাজী শুভ

জনপ্রিয় সংগীতশিল্পী কাজী শুভ। এক যুগেরও বেশি সময় ধরে সমানতালে গান করছেন তিনি। তার সমসাময়িক অনেকে হারিয়ে গেলেও তিনি একের পর এক নতুন গান দিয়ে শ্রোতাদের মনে দাগ কাটছেন। এখন পর্যন্ত প্রায় সহ¯্রাধিক গান করেছেন বলে জানান ‘সোনা বউ’খ্যাত এ শিল্পী। ২০০৯ সালে ‘সাদামাটা’ অ্যালবাম দিয়ে অডিও অঙ্গনে যাত্রা শুরু করেন তিনি। প্রথম অ্যালবামেই তিনি বাজিমাত করেন।

সে সময় তার কণ্ঠে ‘সোনাবউ’ গানটি অল্প সময়ে শ্রোতাদের মধ্যে ছড়িয়ে পড়ে। এছাড়া একই অ্যালবামের ‘তুমিবীনে আকুল পরান’, ‘নীলিমা’ ও ‘ অঝোর শ্রাবণ’ গানগুলোও বেশ সাড়া ফেলে। ফোক ঘরনার গানের জন্যই শ্রোতাদের কাছে শুভ বেশি জনপ্রিয়। তবে এর বাইরেও নানা ধরনের গানে তিনি কণ্ঠ দিয়েছেন। এ প্রসঙ্গে তার ভাষ্য, ফোক গান আমাদের মাটি ও শেকড়ের গান।

শ্রোতারা আমার কণ্ঠে এ ধরনের গানই বেশি শুনতে পছন্দ করেন। তবে আমি লোক গান যেমন করছি একইসঙ্গে মডার্ন ফোকও করছি। আবার স্যাড রোমান্টিক কিংবা জমজমাট ড্যান্স মুডের গান করেছি। আমার কাছে গানের কথা ও সুর প্রাধান্য পায়। যখন দেখি গানটির কথা ও সুর ভালো লাগছে তখন সেটি করার সিদ্ধান্ত নিই। যারা আমার গান শোনেন তারা জানেন সব রকম গানই আমার শ্রোতাপ্রিয় হয়েছে।’

এ শিল্পী এখন আসছে ঈদের জন্য নতুন গান রেকর্ডে ব্যস্ত সময় পার করছেন বলেন জানান। গেল ঈদেও তার কণ্ঠে বেশ কয়েকটি গান প্রকাশ হয়েছে। এরমধ্যে উল্লেখযোগ্য হলো ‘সুজন সখী’, ‘তোরে খুঁজে পাইনা’ ও ‘মন মজানোর মন্ত্র’। এ সময়ে শ্রোতারা কোন ধরনের কথার গান বেশি শুনছে? এ প্রসঙ্গে শুভ বলেন, এখন গানকে সহজে শ্রোতাদের কাছে পৌঁছানোর জন্য টিকটক ও ফেসবুক রিলস ব্যবহারকারীদের টার্গেট করা হয়।

এ দুটি মাধ্যমে একটু চটুল ও ফাঙ্কি কথা-সুরের গানই বেশি শোনা যায়। এছাড়া মাঝে মধ্যে অন্য গানগুলোও অনেক সময় এ দুটি মাধ্যমে ওঠে আসে। সময়টা আমাদের এখন অনেক পরিবর্তন হয়েছে। দশ বছর আগের সময়ের সঙ্গে এখনকার সময়ের ব্যবধান অনেক বেশি। সে সময়ের শ্রোতাদের গান শোনার মতো মানসিকতা এখনকার শ্রোতাদের নেই বললেই চলে।

তবে আমি মনে করি, শিল্পী হিসেবে আমাদের ভালো কথা ও সুরের গানকে প্রাধান্য দেওয়া উচিত। যে গান দীর্ঘ সময় পরেও একজন শিল্পীকে শ্রোতাদের কাছে অক্ষুণœ রাখে।’ অডিও প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানগুলো গানের চেয়ে এখন নাটকেই বেশি ব্যস্ত। অনেক সিনিয়র শিল্পী থেকে শুরু করে নতুন প্রজন্মের শিল্পীরাও এ নিয়ে নানা রকম ক্ষোভ প্রকাশ করেন।

আপনার মন্তব্য কী? শুভ বলেন, সারা বছরই দেশের বড় অডিও প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানগুলো নাটক নিয়ে ব্যস্ত থাকেন। যে প্রতিষ্ঠানগুলো আগে শুধু গানই করত তারা এখন নাটক করছে। এরমধ্যে নাম মাত্র কেউ কেউ গান প্রকাশ করছে। তাদের দাবি, ইউটিউব থেকে গানের ব্যবসা হচ্ছে না। এখন সারা বিশ্বেই গানের ব্যবসায় নতুন রূপ এসেছে।

গান প্রকাশ শুধু ইউটিউবেই হচ্ছে না। ডিজিটাল আরও অনেক প্ল্যাটফরম আছে। আমিও আশা করছি আমাদের গানেও পরিধি বাড়বে। প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানগুলোও নতুন গান প্রকাশে আর বেশি মনোযোগী হবে।’

×